ফেসবুকে অ্যাকাউন্ট থাকলে ভর্তি বাতিল!

প্রকাশিত: 2:04 PM, May 29, 2016

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমের ব্যবহার নিয়ে শিক্ষার্থীদের ওপর কঠোর নিষেধাজ্ঞার বিধান চালু করেছে ভারতের চেন্নায়ের একটি বিদ্যালয়।

ভারতের চেন্নাইয়ের ক্রোমপেটের শ্রীমতি সুন্দরাভাল্লি মেমোরিয়াল স্কুলে পঞ্চম থেকে সপ্তম শ্রেণি পর্যন্ত যে ছাত্রছাত্রীরা ভর্তি হতে আগ্রহী, তাদের ফেসবুকের মতো সোশ্যাল মিডিয়ায় কোনো অ্যাকাউন্ট থাকা চলবে না। সেইসঙ্গে কেউ যদি গোপনে সেটি করে তবে তার ছাত্রত্ব বাতিল হয়ে যাবে।
জানা যায়, রীতিমতো স্কুলে ভর্তির ফর্মে ছাত্রছাত্রীদের থেকে মুচলেকা নিয়ে এই বিষয়ে নিশ্চিত হয়ে পরেই ভর্তি করাচ্ছেন চেন্নায়ের স্কুল কর্তৃপক্ষ। স্কুল ছাড়া পর্যন্ত ওই ছাত্র বা ছাত্রী কোনো সোশ্যাল মিডিয়ায় অ্যাকাউন্ট খুলতে পারবে না বলেও ফর্মে জানাতে হচ্ছে।

মোট টাকা ডোনেশন, বাবা-মার শিক্ষাগত যোগ্যতা, পারিবারিক আয়— নামী, দামি স্কুলে ভর্তির নানাবিধ নিয়ম এখন চালু হয়েছে। কোনো জায়গায় সরাসরি, কোনো স্কুলে আবার পরোক্ষে ছাত্র-ছাত্রী ভর্তির সময়ে এই বিষয়গুলো দেখেন স্কুলform কর্তৃপক্ষ।

কিন্তু এসব কিছুকে ছাপিয়ে গেল চেন্নাইয়ের এই স্কুল। অনুদান, পারিবারিক আয়, বাবা-মার শিক্ষাগত যোগ্যতা নয়।

মূলত সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমের প্রতি শিক্ষার্থীদের অতিরিক্ত আসক্তি কমাতে এই উদ্যোগ নিয়ে স্কুল কর্তৃপক্ষ। সম্প্রতি এক ব্যক্তি টুইটারে ওই স্কুলের অ্যাডমিশন ফর্মের একটি ছবি পোস্ট করেন। তারপরেই বিষয়টি সামনে এসেছে।

সোশ্যাল মিডিয়ার প্রতি অতিরিক্ত আসক্তি পড়াশোনার ক্ষতি করে, তা অস্বীকার করার উপায় নেই। কিন্তু, এইভাবে মুচলেকা দিয়ে কী ছাত্রছাত্রীদের বিষয়টি থেকে সরিয়ে রাখা সম্ভব? না কি, স্কুলের শিক্ষক এবং অভিভাবকরা মিলিত ভাবে সোশ্যাল মিডিয়ার ভাল এবং খারাপ দিকগুলো ছাত্রছাত্রীদের সামনে তুলে ধরেই তাদেরকে সোশ্যাল মিডিয়া নিয়ে বেশি সচেতন করতে পারেন? সেই প্রশ্নটাই দেখা দিয়েছে সবার মাঝে।

  •  
  •  
  •  
  •  

সর্বশেষ সংবাদ