,

দেশের প্রথম নারী ইউরোলজিস্ট তাজকেরা সুলতানা চৌধুরী

দেশের প্রথম নারী ইউরোলজিস্ট তাজকেরা সুলতানা চৌধুরী। তার বাবা মোহাম্মদ শাহেদ কৃষিবিদ। পেশাগত কারণেই তাকে এক স্থান থেকে আরেক স্থানে যেতে হয়েছে বদলির কারণে। অর্থাৎ এ কারণে এক বিদ্যালয়ে বেশি দিন পড়ার সুযোগ হয়ে ওঠেনি তাজকেরা সুলতানার। ফলে ইচ্ছা ও মেধা ভালো থাকা সত্ত্বেও বিদ্যালয়ে প্রথম, দ্বিতীয়- এ রকম প্লেসে থাকতে পারতেন না। এ কারণে তার খুব খারাপ লাগত। তিনি মনে করতেন, এখন ( সেই সময়ে) পড়ালেখায় তেমন ভালো করতে না পারলেও আমাকে (তাজকেরা) ভবিষ্যতে বড় হতে হবে। মানবসেবা অর্থাৎ সুবিধাবঞ্চিতদের পাশে শক্তভাবে দাঁড়াতে হবে। এমন ব্রত বা ইচ্ছা থাকার কারণে বেশ ভালোভাবেই এসএসসি পাস করেন বাংলাদেশ মহিলা সমিতি বালিকা উচ্চবিদ্যালয় থেকে। চট্টগ্রাম সরকারি মহিলা কলেজ থেকে এইচএসসি পাস করেন ভালো ফল নিয়ে। চট্টগ্রামে চলে আসার কারণ তার বাবা খামারবাড়ি থেকে অবসরে গিয়ে ১৯৮৪ সালে চলে যান পরিবারের কাছে। দুই পরীক্ষায়ই তার আশানুরূপ ফল হওয়ায় মাথায় ঢুকে যায় ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা। সাধ জাগে চিকিৎসক হওয়ার। কেননা সুবিধাবঞ্চিতদের পাশে থাকার প্রতিজ্ঞা রয়েছে তাজকেরার। দিলেন চিকিৎসক হওয়ার পরীক্ষা। সেখানেও কাক্সিক্ষত ফল। ভর্তি হওয়ার সৌভাগ্য হলো কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজে। তার পর থেকে আর পেছনে তাকাতে হয়নি হবু চিকিৎসক তাজকেরা সুলতানার। অবশ্য প্রথমে তার বাবা চাননি মেয়ে দূরে চলে যাক। মেয়ে তাজকেরা ও আত্মীয়স্বজনের বুদ্ধি পরামর্শের কারণে শেষ পর্যন্ত রাজি হন বাবা। অবশ্য তখন ভর্তির সময়ও প্রায় শেষ হয়ে আসছিল।

এবার শুরু তাজকেরার জীবনের আরেক মোড়। শেষ বর্ষের পরীক্ষা শেষ হলো ১৯৯৯ সালে। এরপর চিন্তা করেন আরো উন্নতির, আবেদন করেন বিসিএসে। সেবার চিকিৎসক কোটার আসনসংখ্যাও ছিল সীমিত। তারপরও বেশ ভালোভাবে প্রস্তুতি নিলেন তিনি, টিকেও গেলেন তাতে। তারপরও তিনি চিন্তা করলেন বিসিএসে ডাক্তারি করলে বেশি মানুষের সেবা হবে, নাকি অন্য ভালো কোথাও ডাক্তার হলে বেশি মানুষের কাজে আসবে।
বিসিএস চাকরি না নিয়ে ঢাকায় এসে চেষ্টা চালাতে লাগলেন পোস্ট গ্র্যাজুয়েটের জন্য। ২০০০ সালের দিকে তার পরিচয় ঘটে বিএসএমএমইউতে এক ইউরোলজিস্ট বা মূত্ররোগ বিশেষজ্ঞের সাথে। তিনি তাজকেরাকে বলেন, মেয়েদের ডাক্তারি যদি করতে হয় তবে তাদের বেশির ভাগের আসা উচিত ইউরোলজিতে। এ সংক্রান্ত নানা উদাহরণও দেন তিনি। এসব পরামর্শ গুরুত্ব পায় তাজকেরার। দেরি না করে বারডেমে আউটডোর মেডিক্যাল অফিসার বা ইউরোলজি পদে আবেদন করেন মেধাবী ধৈর্যশীল তাজকেরা। তবে এ নিয়ে একটি হোঁচট খেতে হয় তাকে। হাসপাতাল প্রশাসন তার কাগজপত্র দেখে বলে দেয়, এ পদে মহিলা চিকিৎসক নেয়ার প্রয়োজন নেই আমাদের। এ কথা শুনে তার মন খারাপ হয়ে যায়। তাজকেরা তার পক্ষ থেকে এ সংক্রান্ত নানা যুক্তিও দেন প্রশাসনের কাছে। কিন্তু তাকে কোনো কাজ হলো না। উপায়ান্তর না দেখে তাজকেরা সেখান থেকে বের হয়ে পড়েন। তখন তার মনে চ্যালেঞ্জ জাগে যে করেই হোক ইউরোলজিস্ট হওয়ার। যেমন ইচ্ছা তেমন কাজ। সোজা ফের চলে যান পরামর্শ প্রদানকারী সেই চিকিৎকের কাছে। তিনি স্যার বা চিকিৎসকের কাছে জানতে চাইলেন, আমি (তাজকেরা) কি ইউরোলজিতে এমএস বা মাস্টার অব সায়েন্স করতে পারব? তিনি উৎসাহ দিয়ে বলেন হ্যাঁ, অবশ্যই পারবে। অন্যেরা পারছে না! এমন কথা শুনে তাজকেরা দেরি না করে ভর্তি হয়ে যান এমএস কোর্সে (২০১০ সালে)। পড়ালেখা চালিয়ে যেতে থাকেন ভালোভাবেই। এভাবে কেটে যায় তিন বছর। অতঃপর ঢাকার খিলগাঁওয়ের একটি হাসপাতালে (খিদমাহ হাসপাতাল) প্রাইভেট প্র্যাকটিস শুরু করেন ২০১৩ সাল থেকে। এখন তাকে একজন নামকরা ইউরোলজিস্ট হিসেবে দেখা যায় জেনারেল সার্জন আর ইউরোলজিস্ট হিসেবে বিভিন্ন চিকিৎসা কেন্দ্রে।
ভালো খবর হচ্ছে, দেশের প্রথম নারী ইউরোলজিস্ট বা মূত্র রোগ বিশেষজ্ঞ এখন ডা: তাজকেরা সুলতানা চৌধুরী। এখন সরকারি হাসপাতালের সার্জন বা শল্য চিকিৎসক। ব্যক্তিগতভাবেও চিকিৎসাসেবা দেন মূত্ররোগীদের। তবে তার বেশি ভালো লাগে দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে খুঁজে খুঁজে রোগী শনাক্ত করা। এসব নারীদের মধ্যে বেশি পাওয়া যায় মূত্রনালিতে পাথর, প্রস্রাবের সমস্যা ইত্যাদি।
তাজকেরা আমন্ত্রণ পান আমেরিকান ইউরোলজিক্যাল অ্যাসোসিয়েশনে যা বেশ পুরনো একটি প্রতিষ্ঠান। যেখানে তিনি এ সংক্রান্ত অনেক পরামর্শ দেন। যশোরের জয়তী সোসাইটির (মহিলা ও শিশু উন্নয়ন প্রতিষ্ঠান) সাথেও নানাভাবে জড়িত তিনি। শুধু বাংলাদেশ নয় বরং গোটা বিশ্বই তাকে এখন চেনে একজন নামকরা ইউরোলজিস্ট হিসেবে। তার সাফল্যের পেছনে অবশ্য তার বাবা ও স্বামীর উৎসাহ কাজ করছে। টেলিভিশনে বিশেষ সাক্ষাৎকারেও তিনি এ রোগের নানা দিক সম্বন্ধে আলোকপাত করেন। যাতে সাধারণ জনগষ্ঠেী এ ব্যাপারে সচেতন হয়। সূত্রঃ দৈনিক নয়া দিগন্ত অনলাইন

0Shares

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক : কবীর আহমদ সোহেল

সম্পাদক কর্তৃক প্রগতি প্রিন্টিং এন্ড প্যাকেজিং লিঃ ১৪৯ আরামবাগ,ঢাকা থেকে মুদ্রিত ও প্রকাশিত। বার্তা ও বাণিজ্যিক কাযালয়: ২০৭/১ ফকিরাপুল, আরামবাগ , মতিঝিল, ঢাকা-১০০০।

Designed by ওয়েব হোম বিডি

সিলেট অফিস: ২৩০ সুরমা টাওয়ার (৩য় তলা)
ভিআইপি রোড, তালতলা, সিলেট।
মোবাইল-০১৭১২-০৩৩৭১৫,০১৭১২-৫৯৩৬৫৩

E-mail: provatbela@gmail.com,

কপিরাইট : দৈনিক প্রভাতবেলা.কম

শিরোনাম :
টি-টোয়েন্টিতেও আফগানদের কাছে ধরাশায়ী বাংলাদেশ ২০ ‍ও ২১ ডিসেম্বর আওয়ামী লীগের সম্মেলন বৃটেনে নির্বাচন: বাবলিন মল্লিকের প্রার্থীতা চুড়ান্ত আফগানিস্তানের দাপুটে জয় ডাক পেলেন আবু হায়দার রনি সরিয়ে দেওয়া হলো শোভন-রাব্বানীকে ছাত্রীকে যৌন হয়রানীর অভিযোগে শিক্ষক গ্রেফতার আফিফ ঝড়ে বাংলাদেশের জয় বিএনপির ৮ জ্যেষ্ঠ নেতার জামিন মুস্তাফা আহমদ কেরানীর দাফন সম্পন্ন আমাজন ও সুন্দরবন ধ্বংসের নেপথ্যে সৌদিতে এবার নামাযের সময় দোকান খোলা আজ জাতীয় শোক দিবস চেয়ারম্যানের নেতৃত্বে হামলা, বাড়িতেও শঙ্কায় নুর ইটের জবাবে পাটকেল দেয়া হবে- মোদিকে ইমরান রাজধানীর লালবাগে প্লাস্টিক কারখানায় আগুন চামড়া শিল্প কোন্ পথে? আ ন ম শফিকের ইন্তেকাল: কাল জানাযা নিজ এলাকায় হামলার শিকার ভিপি নুর: হাসপাতালে অচেতন কুররানী এবং মধ্যবিত্ত শ্রেণী ‘লঙ্কাওয়াশ’ হলো টিম টাইগার আখেরাতের ভয় দেখিয়ে মাদ্রাসায় ১১ ছাত্রীকে ধর্ষণ সিলেট কারাগারের ডিআইজি আটক, ৮০ লাখ টাকা উদ্ধার আ ফ ম কামাল স্মরণে প্রেসক্লাবে দোয়া মাহফিল বৈঠকে মিয়ানমার, নাগরিকত্ব ছাড়া ফিরতে নারাজ রোহিঙ্গারা যৌন হয়রানির অভিযোগে মাদ্রাসার ‘বড় হুজুর’ আটক কানাডায় রাজনৈতিক আশ্রয় চেয়েছেন এস কে সিনহা ডেঙ্গুতে জাবি শিক্ষার্থীর মৃত্যু, ক্যাম্পাস জুড়ে আতঙ্ক পেস বোলিংয়ে ল্যাঙ্গাভেল্ট, স্পিনে ভেট্টরিকে কোচ নিয়োগ যুবলীগের সভাপতি মুক্তি, সাধারণ সম্পাদক মুশফিক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব হাই-টেক পার্কের নামফলক উন্মোচন বৃটিশ প্রধানমন্ত্রী হিসেবে জনসনের দায়িত্ব গ্রহণ এবার ইসরায়েলের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সাথে প্রিয়া সাহা রাজশাহীতে সাঈদী মসজিদের বারান্দায় মুশফিকের পড়াশোনা ছবি ভাইরাল ৭২ বছর পর সিসিক’র ১০ কোটি টাকার জমি উদ্ধার শ্রীলংকায় সর্বোচ্চ নিরাপত্তা পাচ্ছে টাইগাররা মা ও স্বামীর সঙ্গে প্রিয়াঙ্কার ধূমপান, সমালোচনার ঝড় বিয়ের প্রলোভন দৈহিক মিলন, স্কুলছাত্রী অন্তঃসত্ত্বা বিপদসীমার উপরে সুরমা-কুশিয়ারার পানি ভিডিও বার্তায় যা বললেন প্রিয়া সাহা প্রিয়া সাহাকে আত্মপক্ষ সমর্থনের সুযোগ দিতে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ তরুণীর সাথে দৈহিক সম্পর্ক ও ভিডিও ধারণের অভিযোগে যুবক গ্রেফতার  পেঁয়াজ, রসুন ও আদার দাম বাড়ছেই রিফাত হত্যায় জড়িত থাকার কথা স্বীকার মিন্নির গাইবান্ধায় ৪ লাখ পরিবার পানিবন্দি, ৪’শ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ প্রেমের টানে আমেরিকান নারী এখন লক্ষ্মীপুরে মাছ উৎপাদনে আমরা প্রথম হবো : প্রধানমন্ত্রী জিএম কাদের জাতীয় পার্টির নতুন চেয়ারম্যান ইলিশের উৎপাদন ৫ লাখ টন ছাড়িয়েছে