,

পাসের হারের সাথে শিক্ষার মান বাড়ানো প্রয়োজন

এইচএসসি পরীক্ষায় যারা উত্তীর্ণ হয়েছে, তাদের সবাইকে অভিনন্দন। এবারে পাসের হার বেড়েছে সেটি আনন্দের খবর। তবে ফলাফলে কিছু অসংগতিও লক্ষ করা গেছে। অন্যান্য বোর্ডে পাসের হার গত বছরের কাছাকাছি থাকলেও যশোর বোর্ডে বেড়েছে প্রায় ৩৭ শতাংশ।

যারা সাফল্যের সাথে পাস করেছে তাঁরা সহ তাঁদের বাবা-মা, পরিবার পরিজন সবাই অতি আনন্দিত। সব বাবা-মায়ের আকাক্সক্ষা থাকে তাঁদের সন্তান যেন পরীক্ষায় পাস করে। এবার বোধ করি অধিকাংশ শিক্ষার্থীই তাঁদের বাবা-মায়ের সেই আকাক্সক্ষা পূরণ করেছে। এখন প্রশ্ন হচ্ছে পাসের হার তো বেড়েছে, শিক্ষার মান কি সেভাবে বেড়েছে?
অনেকেই এটাকে রাজনৈতিক পাসের হার হিসেবে মন্তব্য করছেন। যদি সত্যি সত্যি রাজনৈতিক বিবেচনায় পাসের হার বৃদ্ধি করা হয়ে থাকে তাহলে সেটি হবে আমাদের জাতির জন্যে ভয়ানক।

ফল-বিপর্যয় বা উল্লম্ফল কোনোটাই স্বাভাবিক নয়। তবে বিজ্ঞান, ইংরেজির পাশাপাশি তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ে ভালো ফল আশাব্যঞ্জক। প্রতিবছর এসএসসি ও এইচএসসিতে শিক্ষার্থীদের সংখ্যা বাড়লেও মানসম্পন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, মেধাবী শিক্ষক ও প্রয়োজনীয় শিক্ষা-উপকরণের জোগান দিতে না পারা সার্বিকভাবে শিক্ষার অবনতিরই নির্দেশক। মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক অধিকাংশ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের অবস্থা যখন ‘সাধ আছে সাধ্য নেই’ পর্যায়ে, তখন মানসম্পন্ন শিক্ষাদান কঠিন। পাসের হার বাড়লেই মান বাড়ে না।

অনেকেই এবারে এইচএসসিতে পাসের হার বৃদ্ধির কারণ হিসেবে রাজনৈতিক স্থিতিশীল পরিবেশের কথা বলেছেন। ভবিষ্যতেও এটি ধরে রাখতে হবে। সেই সঙ্গে শ্রেণিকক্ষে শিক্ষার্থীদের নিয়মিত পাঠদান ও প্রয়োজনীয় শিক্ষা-উপকরণ সরবরাহ করা গেলে কোচিংয়ের প্রবণতা কমবে। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোতে তদারকির কাজটি শিকেয় তুলে রেখে শুধু পরিপত্র জাপাসের হারের সাথে শিক্ষার মান বাড়ানো প্রয়োজন

এইচএসসি পরীক্ষায় যারা উত্তীর্ণ হয়েছে, তাদের সবাইকে অভিনন্দন। এবারে পাসের হার বেড়েছে সেটি আনন্দের খবর। তবে ফলাফলে কিছু অসংগতিও লক্ষ করা গেছে। অন্যান্য বোর্ডে পাসের হার গত বছরের কাছাকাছি থাকলেও যশোর বোর্ডে বেড়েছে প্রায় ৩৭ শতাংশ।

যারা সাফল্যের সাথে পাস করেছে তাঁরা সহ তাঁদের বাবা-মা, পরিবার পরিজন সবাই অতি আনন্দিত। সব বাবা-মায়ের আকাক্সক্ষা থাকে তাঁদের সন্তান যেন পরীক্ষায় পাস করে। এবার বোধ করি অধিকাংশ শিক্ষার্থীই তাঁদের বাবা-মায়ের সেই আকাক্সক্ষা পূরণ করেছে। এখন প্রশ্ন হচ্ছে পাসের হার তো বেড়েছে, শিক্ষার মান কি সেভাবে বেড়েছে?
অনেকেই এটাকে রাজনৈতিক পাসের হার হিসেবে মন্তব্য করছেন। যদি সত্যি সত্যি রাজনৈতিক বিবেচনায় পাসের হার বৃদ্ধি করা হয়ে থাকে তাহলে সেটি হবে আমাদের জাতির জন্যে ভয়ানক।

ফল-বিপর্যয় বা উল্লম্ফল কোনোটাই স্বাভাবিক নয়। তবে বিজ্ঞান, ইংরেজির পাশাপাশি তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ে ভালো ফল আশাব্যঞ্জক। প্রতিবছর এসএসসি ও এইচএসসিতে শিক্ষার্থীদের সংখ্যা বাড়লেও মানসম্পন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, মেধাবী শিক্ষক ও প্রয়োজনীয় শিক্ষা-উপকরণের জোগান দিতে না পারা সার্বিকভাবে শিক্ষার অবনতিরই নির্দেশক। মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক অধিকাংশ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের অবস্থা যখন ‘সাধ আছে সাধ্য নেই’ পর্যায়ে, তখন মানসম্পন্ন শিক্ষাদান কঠিন। পাসের হার বাড়লেই মান বাড়ে না।

অনেকেই এবারে এইচএসসিতে পাসের হার বৃদ্ধির কারণ হিসেবে রাজনৈতিক স্থিতিশীল পরিবেশের কথা বলেছেন। ভবিষ্যতেও এটি ধরে রাখতে হবে। সেই সঙ্গে শ্রেণিকক্ষে শিক্ষার্থীদের নিয়মিত পাঠদান ও প্রয়োজনীয় শিক্ষা-উপকরণ সরবরাহ করা গেলে কোচিংয়ের প্রবণতা কমবে। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোতে তদারকির কাজটি শিকেয় তুলে রেখে শুধু পরিপত্র জারি করে কোচিং ব্যবসা বন্ধ করা যাবে না।

এই যে বিপুলসংখ্যক শিক্ষার্থী এইচএসসিতে উত্তীর্ণ হলো, তাদের জন্য উচ্চশিক্ষার দরজা কতটা খোলা আছে, বা খোলা রাখা প্রয়োজন সেটাও ভেবে দেখার বিষয়। একদিকে হাজার হাজার স্নাতক তৈরি হয়ে বেকার বসে থাকা, অপরদিকে চাহিদামাফিক দক্ষ জনশক্তির জোগান দিতে না পারা দ্বিমুখী জাতীয় ক্ষতি বলেই মনে করি। তাই উচ্চশিক্ষার বিষয়টিকে জাতীয় পরিকল্পনার অন্তর্ভূক্ত করার বিকল্প নেই।

এইচএসসিতে পাসের হার বাড়ায় সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা কিঞ্চিৎ আত্মসন্তুষ্টি লাভ করতে পারেন। কিন্তু যে ২৭ দশমিক ৫৩ শতাংশ শিক্ষার্থী অকৃতকার্য হলো, তাদের ভবিষ্যতের কথাও ভাবতে হবে। এটি কেবল ওই শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদেরই ক্ষতি নয়, রাষ্ট্র ও সমাজেরও বিরাট লোকসান। এই লোকসান যত দ্রুত এবং যত বেশি পরিমাণে কমিয়ে আনা যায়, ততই মঙ্গল।

রি করে কোচিং ব্যবসা বন্ধ করা যাবে না।

এই যে বিপুলসংখ্যক শিক্ষার্থী এইচএসসিতে উত্তীর্ণ হলো, তাদের জন্য উচ্চশিক্ষার দরজা কতটা খোলা আছে, বা খোলা রাখা প্রয়োজন সেটাও ভেবে দেখার বিষয়। একদিকে হাজার হাজার স্নাতক তৈরি হয়ে বেকার বসে থাকা, অপরদিকে চাহিদামাফিক দক্ষ জনশক্তির জোগান দিতে না পারা দ্বিমুখী জাতীয় ক্ষতি বলেই মনে করি। তাই উচ্চশিক্ষার বিষয়টিকে জাতীয় পরিকল্পনার অন্তর্ভূক্ত করার বিকল্প নেই।

এইচএসসিতে পাসের হার বাড়ায় সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা কিঞ্চিৎ আত্মসন্তুষ্টি লাভ করতে পারেন। কিন্তু যে ২৭ দশমিক ৫৩ শতাংশ শিক্ষার্থী অকৃতকার্য হলো, তাদের ভবিষ্যতের কথাও ভাবতে হবে। এটি কেবল ওই শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদেরই ক্ষতি নয়, রাষ্ট্র ও সমাজেরও বিরাট লোকসান। এই লোকসান যত দ্রুত এবং যত বেশি পরিমাণে কমিয়ে আনা যায়, ততই মঙ্গল।

0Shares

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক : কবীর আহমদ সোহেল

সম্পাদক কর্তৃক প্রগতি প্রিন্টিং এন্ড প্যাকেজিং লিঃ ১৪৯ আরামবাগ,ঢাকা থেকে মুদ্রিত ও প্রকাশিত। বার্তা ও বাণিজ্যিক কাযালয়: ২০৭/১ ফকিরাপুল, আরামবাগ , মতিঝিল, ঢাকা-১০০০।

Designed by ওয়েব হোম বিডি

সিলেট অফিস: ২৩০ সুরমা টাওয়ার (৩য় তলা)
ভিআইপি রোড, তালতলা, সিলেট।
মোবাইল-০১৭১২-০৩৩৭১৫,০১৭১২-৫৯৩৬৫৩

E-mail: provatbela@gmail.com,

কপিরাইট : দৈনিক প্রভাতবেলা.কম

শিরোনাম :
টি-টোয়েন্টিতেও আফগানদের কাছে ধরাশায়ী বাংলাদেশ ২০ ‍ও ২১ ডিসেম্বর আওয়ামী লীগের সম্মেলন বৃটেনে নির্বাচন: বাবলিন মল্লিকের প্রার্থীতা চুড়ান্ত আফগানিস্তানের দাপুটে জয় ডাক পেলেন আবু হায়দার রনি সরিয়ে দেওয়া হলো শোভন-রাব্বানীকে ছাত্রীকে যৌন হয়রানীর অভিযোগে শিক্ষক গ্রেফতার আফিফ ঝড়ে বাংলাদেশের জয় বিএনপির ৮ জ্যেষ্ঠ নেতার জামিন মুস্তাফা আহমদ কেরানীর দাফন সম্পন্ন আমাজন ও সুন্দরবন ধ্বংসের নেপথ্যে সৌদিতে এবার নামাযের সময় দোকান খোলা আজ জাতীয় শোক দিবস চেয়ারম্যানের নেতৃত্বে হামলা, বাড়িতেও শঙ্কায় নুর ইটের জবাবে পাটকেল দেয়া হবে- মোদিকে ইমরান রাজধানীর লালবাগে প্লাস্টিক কারখানায় আগুন চামড়া শিল্প কোন্ পথে? আ ন ম শফিকের ইন্তেকাল: কাল জানাযা নিজ এলাকায় হামলার শিকার ভিপি নুর: হাসপাতালে অচেতন কুররানী এবং মধ্যবিত্ত শ্রেণী ‘লঙ্কাওয়াশ’ হলো টিম টাইগার আখেরাতের ভয় দেখিয়ে মাদ্রাসায় ১১ ছাত্রীকে ধর্ষণ সিলেট কারাগারের ডিআইজি আটক, ৮০ লাখ টাকা উদ্ধার আ ফ ম কামাল স্মরণে প্রেসক্লাবে দোয়া মাহফিল বৈঠকে মিয়ানমার, নাগরিকত্ব ছাড়া ফিরতে নারাজ রোহিঙ্গারা যৌন হয়রানির অভিযোগে মাদ্রাসার ‘বড় হুজুর’ আটক কানাডায় রাজনৈতিক আশ্রয় চেয়েছেন এস কে সিনহা ডেঙ্গুতে জাবি শিক্ষার্থীর মৃত্যু, ক্যাম্পাস জুড়ে আতঙ্ক পেস বোলিংয়ে ল্যাঙ্গাভেল্ট, স্পিনে ভেট্টরিকে কোচ নিয়োগ যুবলীগের সভাপতি মুক্তি, সাধারণ সম্পাদক মুশফিক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব হাই-টেক পার্কের নামফলক উন্মোচন বৃটিশ প্রধানমন্ত্রী হিসেবে জনসনের দায়িত্ব গ্রহণ এবার ইসরায়েলের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সাথে প্রিয়া সাহা রাজশাহীতে সাঈদী মসজিদের বারান্দায় মুশফিকের পড়াশোনা ছবি ভাইরাল ৭২ বছর পর সিসিক’র ১০ কোটি টাকার জমি উদ্ধার শ্রীলংকায় সর্বোচ্চ নিরাপত্তা পাচ্ছে টাইগাররা মা ও স্বামীর সঙ্গে প্রিয়াঙ্কার ধূমপান, সমালোচনার ঝড় বিয়ের প্রলোভন দৈহিক মিলন, স্কুলছাত্রী অন্তঃসত্ত্বা বিপদসীমার উপরে সুরমা-কুশিয়ারার পানি ভিডিও বার্তায় যা বললেন প্রিয়া সাহা প্রিয়া সাহাকে আত্মপক্ষ সমর্থনের সুযোগ দিতে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ তরুণীর সাথে দৈহিক সম্পর্ক ও ভিডিও ধারণের অভিযোগে যুবক গ্রেফতার  পেঁয়াজ, রসুন ও আদার দাম বাড়ছেই রিফাত হত্যায় জড়িত থাকার কথা স্বীকার মিন্নির গাইবান্ধায় ৪ লাখ পরিবার পানিবন্দি, ৪’শ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ প্রেমের টানে আমেরিকান নারী এখন লক্ষ্মীপুরে মাছ উৎপাদনে আমরা প্রথম হবো : প্রধানমন্ত্রী জিএম কাদের জাতীয় পার্টির নতুন চেয়ারম্যান ইলিশের উৎপাদন ৫ লাখ টন ছাড়িয়েছে