,

ভূমিকম্পকে সতর্ক বার্তা হিসেবে গ্রহন করা উচিত

২৪ ঘন্টার ব্যবধানে সিলেটসহ সারা দেশে দু’দফা ভূকম্পন অনুভ’ত হয়। আতংকের পাশাপাশি উদ্বেগ জন্ম নেয় জনমনে। প্রাচীন জনবসতি সিলেট বরাবরই ভ’মিকম্প ঝুঁকিপ্রবন হিসেবে বিবেচিত। তাই প্রতি ছোট, মাঝারি ধরণের ভ’-কম্পন উদ্বেগকে আরো ঘনিভুত করে। প্রাচীন ঐতিহ্যের লিলাভ’মি হওয়ায় অনেক বাড়িঘর ব্যবসা প্রষ্ঠিান এখন ঝুকিপূর্ণ। সেঞানে আধুনিক ছোয়া লেগেছে তাও কতটা ভ’মিকম্পন সহনীয় তার কোন সঠিক সার্ভে নেই।

ইতালির মধ্যাঞ্চলে গত বুধবার ভূমিকম্পের আঘাতে একটি জনবসতি প্রায় ধ্বংস হয়ে গেছে। রিখটার স্কেলে এর মাত্রা ছিল ৬ দশমিক ২; কিন্তু উৎপত্তিস্থলের গভীরতা কম থাকায় (১০ কিলোমিটার) ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে অনেক বেশি। নিহতের সংখ্যা আড়াই শ’ ছাড়িয়েছে। আহত হয়েছে তিন শতাধিক মানুষ। ধ্বংসস্তূপের নিচে অনেকে আটকা পড়ে আছে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। অন্যদিকে ইতালির ভূমিকম্পের মাত্র কয়েক ঘণ্টা পর বাংলাদেশ সময় বিকেল সাড়ে ৪টায় আরেকটি শক্তিশালী ভূমিকম্প আঘাত হানে মিয়ানমারে। ৬ দশমিক ৮ মাত্রার এ ভূমিকম্পে ৫০০ কিলোমিটার দূরে থাকা ঢাকা, এমনকি আরো দূরের কলকাতা শহরও কেঁপে ওঠে। ভূমিকম্পের উৎপত্তিস্থল ভূপৃষ্ঠ থেকে ৮৪ কিলোমিটার গভীরে থাকায় ক্ষয়ক্ষতি তুলনামূলকভাবে কম হয়েছে। এলাকাটিতে জনবসতিও কম ছিল। এর পরও সেখানে তিনজন নিহত ও কয়েক ডজন মানুষ আহত হয়েছে। বেশ কিছু প্যাগোডাসহ দুই শতাধিক স্থাপনা ভেঙে গেছে। আগের দিন মঙ্গলবারও মিয়ানমারে আরেক দফা ভূমিকম্প হয়েছে। চলতি বছরের এ পর্যন্ত এ এলাকায় বেশ কয়েকটি বড় ধরনের ভূমিকম্প হয়েছে। ৬ দশমিক ৭ মাত্রার আরেকটি ভূমিকম্প আঘাত হেনেছিল গত জানুয়ারি মাসে, উৎপত্তিস্থল ছিল ভারতের মণিপুরের রাজধানী ইম্ফলে। সেখানে পাঁচজন নিহত ও অর্ধশতাধিক মানুষ আহত হয়েছিল। বাংলাদেশেও আতঙ্কগ্রস্থ হয়ে তিনজন নিহত ও অর্ধশতাধিক মানুষ আহত হয়েছিল। আর দশটি প্রাকৃতিক দুর্যোগের মতোই একটি দুর্যোগ ভূমিকম্প। একে রোধ করা যাবে না। অনেক প্রাকৃতিক দুর্যোগ কখন কোথায় আঘাত হানবে তা বলে দেওয়া যায়, ভূমিকম্পে বলা যায় না। এ ব্যাপারে বিজ্ঞানীরা দিনরাত চেষ্টা করে যাচ্ছেন, এখনো সফলতার হার খুব কম। তাই ভূমিকম্পের ক্ষয়ক্ষতি কমানোর জন্য প্রয়োজনীয় পস্তুু‘তি রাখার কোনো বিকল্প নেই। সেসব প্রস্তুতির মধ্যে রয়েছে, ঘরবাড়ি ভূমিকম্প-প্রতিরোধী করে গড়ে তোলা, ভূমিকম্প আঘাত হানলে দ্রুত উদ্ধারকাজ চালানোর মতো প্রস্তুতি রাখা এবং ভূমিকম্প থেকে কিভাবে রক্ষা পাওয়া সম্ভব সে ব্যাপারে মানুষকে সচেতন করা। বারবারই দেখা যাচ্ছে, ভূমিকম্পে নয়, আতঙ্কে ছোটাছুটি করতে গিয়ে মানুষ হতাহত হচ্ছে। এই মারাত্মক প্রবণতা দূর করতে হবে। ১৯৯৯ সালে জাতিসংঘ প্রকাশিত জরিপ অনুযায়ী ভূমিকম্পের জন্য সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ একটি শহর ঢাকা। বিজ্ঞানীদের মতে, ৭ মাত্রার ভূমিকম্পেও এখানকার ৬০ শতাংশ ঘরবাড়ি ধসে যেতে পারে। তার চেয়ে বেশি হলে তো কথাই নেই। এর বড় কারণ নরম মাটির ওপর যেনতেনভাবে উঁচু ভবন তৈরি। পাইপে গ্যাস সরবরাহ ব্যবস্থা এবং ওপর দিয়ে নেওয়া বিদ্যুতের তার এখানে রীতিমতো ভয়াহতা ঘটাবে। আশঙ্কা করা হয়, ভূমিকম্পে যত মানুষ না মারা যাবে, তার চেয়ে বেশি মানুষ মারা যাবে ভূমিকম্পের ফলে সৃষ্ট ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে। বড় কোনো ভূমিকম্প ঘটার আগেই এসব ব্যাপারে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া অত্যন্ত জরুরি। আর সে ক্ষেত্রে আশপাশের সাম্প্রতিক ভূমিকম্পগুলোকে একটি সতর্কবার্তা হিসেবে আমরা গ্রহণ করতে পারি।

সংবাদটি ভাল লাগলে শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

সম্পাদক : কবীর আহমদ সোহেল

সম্পাদক কর্তৃক প্রগতি প্রিন্টিং এন্ড প্যাকেজিং লিঃ ১৪৯ আরামবাগ,ঢাকা থেকে মুদ্রিত ও প্রকাশিত। বার্তা ও বাণিজ্যিক কাযালয়: ২০৭/১ ফকিরাপুল, আরামবাগ , মতিঝিল, ঢাকা-১০০০।

সিলেট অফিস: ২৩০ সুরমা টাওয়ার (৩য় তলা)
ভিআইপি রোড, তালতলা, সিলেট।
মোবাইল-০১৭১২-০৩৩৭১৫,০১৭১২-৫৯৩৬৫৩

E-mail: provatbela@gmail.com,

কপিরাইট : দৈনিক প্রভাতবেলা.কম

শিরোনাম :
সিলেটে ইয়াবাসহ যুবক আটক সিপিএল চ্যাম্পিয়ন ত্রিনবাগো নাইট রাইডার্স ৩২ ধারা বহাল রেখে প্রতিবেদন জমা দিয়েছে সংসদীয় কমিটি বাহরাইনকে ১০-০ গোলে উড়িয়ে শুভসূচনা বাংলাদেশের রোহিঙ্গাদের সাহায্য করতে ঢাকাকে সমর্থন দেবে দিল্লিঃ শ্রিংলা ৯ম থেকে ১৩তম গ্রেডের চাকরিতে থাকছে না কোটা নির্বাচনের আগে বর্তমান সংসদ ভেঙে দেওয়াসহ ৫দফা দাবী উত্তরমুখী হয়ে লাভ নেই, ওখানে সাড়া দেওয়ার মতো কেউ নেই আইডিইবি সম্মেলন উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের শিরোপা জিতলো মালদ্বীপ জুড়ীতে বাংলাদেশের খবর’র বর্ষপূর্তি উদযাপন মেডিকেল বোর্ডে খালেদার ব্যক্তিগত চিকিৎসকদের রাখা হয়নি শনিবার যুক্তফ্রন্ট-ঐক্য প্রক্রিয়ার যৌথ ঘোষণা আসছে সারাদেশে পালন করা হবে শেখ হাসিনার জন্মদিন সমাজসেবী আমিন আলীর ইন্তেকাল এবার স্বরচিত কবিতা পাঠ করলেন জগলুল হায়দার যশোরে সাবেক ফুটবল কোচ ওয়াজেদ গাজীর দাফন সম্পন্ন মন্ত্রণালয়ের কাছেই বিদ্যুৎ বিল পাওনা ৬৬৮ কোটি টাকা! কাভার্ডভ্যান পোড়ানোর মামলায় খালেদার জামিন নামঞ্জুর চলে গেলেন নওয়াজ শরীফের স্ত্রী কুলসুম রাজধানীর ১৪ হাসপাতাল বন্ধের নির্দেশ মৌসুমী, অপু ও ওমরসানি দুবাই যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যের জবাবে ড. কামাল সংবিধান অনুযায়ী ডিসেম্বরে নির্বাচন হবে `এ কথা শুনেই মান্না, জুড়ে দেয় কান্না।’ বিকল্পধারা এখন স্বকল্প হয়ে গেছে ‘তিনিও আনকনটেস্টের এমপি’ আমরা তোমাদের কাছে কৃতজ্ঞ: ডা. বদরুদ্দোজা নির্বাচন নাও হতে পারে: ড. কামাল যাঁকে র‌্যাঙ্ক দিতে বাধ্য হন পাক জেনারেল “ কোনোরকম বিশৃঙ্খলা সহ্য করা হবে না’- হাসিনা প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে আশাজাগানিয়া বিএনপি হবিগঞ্জে আপত্তিকর অবস্থায় দেবর-ভাবী আমার মৃত্যু, বর্ষাদিন বিরোধী দলীয় চিফ হুইপ তাজুল ইসলাম চৌধুরী আর নেই নেপালকে হারিয়ে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশের কিশোরীরা সমকাল সম্পাদক গোলাম সারওয়ার চলে গেলেন রাজুর হত্যাকারীদের ফাঁসির দাবিতে সিলেটে বিক্ষোভ মিছিল সরকার ‘সংলাপে’ বাধ্য হবেঃ মওদুদ আহমেদ মেয়রের বাসার সামনেই ছাত্রদলের হামলায় রাজু খুন আরিফ সিসিক মেয়র নির্বাচিত “দায়িত্বশীল নেতার অডিও রেকর্ড পুলিশের হাতে” বিএনপি-জামায়াত ইতিহাসকে বিকৃত করছেঃ তথ্যমন্ত্রী স্বচ্ছ মন নিয়ে আলোচনায় আসুনঃ রিজভী আহমেদ প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করলেন ছাত্রলীগ নেতৃবৃন্দ ফিন্যান্সিয়াল এক্সপ্রেস সম্পাদক মোয়াজ্জেম হোসেন আর নেই শনির আখড়ায় ট্রাকচাপায় আহত শিক্ষার্থী শঙ্কামুক্ত সিসিক’র স্থগিত ২কেন্দ্রের ভোট ১১ আগস্ট বৃহস্পতিবার সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাজশাহী ও বরিশালে নৌকা, সিলেটে আরিফ