,

ভূমিকম্পকে সতর্ক বার্তা হিসেবে গ্রহন করা উচিত

২৪ ঘন্টার ব্যবধানে সিলেটসহ সারা দেশে দু’দফা ভূকম্পন অনুভ’ত হয়। আতংকের পাশাপাশি উদ্বেগ জন্ম নেয় জনমনে। প্রাচীন জনবসতি সিলেট বরাবরই ভ’মিকম্প ঝুঁকিপ্রবন হিসেবে বিবেচিত। তাই প্রতি ছোট, মাঝারি ধরণের ভ’-কম্পন উদ্বেগকে আরো ঘনিভুত করে। প্রাচীন ঐতিহ্যের লিলাভ’মি হওয়ায় অনেক বাড়িঘর ব্যবসা প্রষ্ঠিান এখন ঝুকিপূর্ণ। সেঞানে আধুনিক ছোয়া লেগেছে তাও কতটা ভ’মিকম্পন সহনীয় তার কোন সঠিক সার্ভে নেই।

ইতালির মধ্যাঞ্চলে গত বুধবার ভূমিকম্পের আঘাতে একটি জনবসতি প্রায় ধ্বংস হয়ে গেছে। রিখটার স্কেলে এর মাত্রা ছিল ৬ দশমিক ২; কিন্তু উৎপত্তিস্থলের গভীরতা কম থাকায় (১০ কিলোমিটার) ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে অনেক বেশি। নিহতের সংখ্যা আড়াই শ’ ছাড়িয়েছে। আহত হয়েছে তিন শতাধিক মানুষ। ধ্বংসস্তূপের নিচে অনেকে আটকা পড়ে আছে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। অন্যদিকে ইতালির ভূমিকম্পের মাত্র কয়েক ঘণ্টা পর বাংলাদেশ সময় বিকেল সাড়ে ৪টায় আরেকটি শক্তিশালী ভূমিকম্প আঘাত হানে মিয়ানমারে। ৬ দশমিক ৮ মাত্রার এ ভূমিকম্পে ৫০০ কিলোমিটার দূরে থাকা ঢাকা, এমনকি আরো দূরের কলকাতা শহরও কেঁপে ওঠে। ভূমিকম্পের উৎপত্তিস্থল ভূপৃষ্ঠ থেকে ৮৪ কিলোমিটার গভীরে থাকায় ক্ষয়ক্ষতি তুলনামূলকভাবে কম হয়েছে। এলাকাটিতে জনবসতিও কম ছিল। এর পরও সেখানে তিনজন নিহত ও কয়েক ডজন মানুষ আহত হয়েছে। বেশ কিছু প্যাগোডাসহ দুই শতাধিক স্থাপনা ভেঙে গেছে। আগের দিন মঙ্গলবারও মিয়ানমারে আরেক দফা ভূমিকম্প হয়েছে। চলতি বছরের এ পর্যন্ত এ এলাকায় বেশ কয়েকটি বড় ধরনের ভূমিকম্প হয়েছে। ৬ দশমিক ৭ মাত্রার আরেকটি ভূমিকম্প আঘাত হেনেছিল গত জানুয়ারি মাসে, উৎপত্তিস্থল ছিল ভারতের মণিপুরের রাজধানী ইম্ফলে। সেখানে পাঁচজন নিহত ও অর্ধশতাধিক মানুষ আহত হয়েছিল। বাংলাদেশেও আতঙ্কগ্রস্থ হয়ে তিনজন নিহত ও অর্ধশতাধিক মানুষ আহত হয়েছিল। আর দশটি প্রাকৃতিক দুর্যোগের মতোই একটি দুর্যোগ ভূমিকম্প। একে রোধ করা যাবে না। অনেক প্রাকৃতিক দুর্যোগ কখন কোথায় আঘাত হানবে তা বলে দেওয়া যায়, ভূমিকম্পে বলা যায় না। এ ব্যাপারে বিজ্ঞানীরা দিনরাত চেষ্টা করে যাচ্ছেন, এখনো সফলতার হার খুব কম। তাই ভূমিকম্পের ক্ষয়ক্ষতি কমানোর জন্য প্রয়োজনীয় পস্তুু‘তি রাখার কোনো বিকল্প নেই। সেসব প্রস্তুতির মধ্যে রয়েছে, ঘরবাড়ি ভূমিকম্প-প্রতিরোধী করে গড়ে তোলা, ভূমিকম্প আঘাত হানলে দ্রুত উদ্ধারকাজ চালানোর মতো প্রস্তুতি রাখা এবং ভূমিকম্প থেকে কিভাবে রক্ষা পাওয়া সম্ভব সে ব্যাপারে মানুষকে সচেতন করা। বারবারই দেখা যাচ্ছে, ভূমিকম্পে নয়, আতঙ্কে ছোটাছুটি করতে গিয়ে মানুষ হতাহত হচ্ছে। এই মারাত্মক প্রবণতা দূর করতে হবে। ১৯৯৯ সালে জাতিসংঘ প্রকাশিত জরিপ অনুযায়ী ভূমিকম্পের জন্য সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ একটি শহর ঢাকা। বিজ্ঞানীদের মতে, ৭ মাত্রার ভূমিকম্পেও এখানকার ৬০ শতাংশ ঘরবাড়ি ধসে যেতে পারে। তার চেয়ে বেশি হলে তো কথাই নেই। এর বড় কারণ নরম মাটির ওপর যেনতেনভাবে উঁচু ভবন তৈরি। পাইপে গ্যাস সরবরাহ ব্যবস্থা এবং ওপর দিয়ে নেওয়া বিদ্যুতের তার এখানে রীতিমতো ভয়াহতা ঘটাবে। আশঙ্কা করা হয়, ভূমিকম্পে যত মানুষ না মারা যাবে, তার চেয়ে বেশি মানুষ মারা যাবে ভূমিকম্পের ফলে সৃষ্ট ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে। বড় কোনো ভূমিকম্প ঘটার আগেই এসব ব্যাপারে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া অত্যন্ত জরুরি। আর সে ক্ষেত্রে আশপাশের সাম্প্রতিক ভূমিকম্পগুলোকে একটি সতর্কবার্তা হিসেবে আমরা গ্রহণ করতে পারি।

0Shares

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক : কবীর আহমদ সোহেল

সম্পাদক কর্তৃক প্রগতি প্রিন্টিং এন্ড প্যাকেজিং লিঃ ১৪৯ আরামবাগ,ঢাকা থেকে মুদ্রিত ও প্রকাশিত। বার্তা ও বাণিজ্যিক কাযালয়: ২০৭/১ ফকিরাপুল, আরামবাগ , মতিঝিল, ঢাকা-১০০০।

Designed by ওয়েব হোম বিডি

সিলেট অফিস: ২৩০ সুরমা টাওয়ার (৩য় তলা)
ভিআইপি রোড, তালতলা, সিলেট।
মোবাইল-০১৭১২-০৩৩৭১৫,০১৭১২-৫৯৩৬৫৩

E-mail: provatbela@gmail.com,

কপিরাইট : দৈনিক প্রভাতবেলা.কম

শিরোনাম :
আজ জাতীয় শোক দিবস চেয়ারম্যানের নেতৃত্বে হামলা, বাড়িতেও শঙ্কায় নুর ইটের জবাবে পাটকেল দেয়া হবে- মোদিকে ইমরান রাজধানীর লালবাগে প্লাস্টিক কারখানায় আগুন চামড়া শিল্প কোন্ পথে? আ ন ম শফিকের ইন্তেকাল: কাল জানাযা নিজ এলাকায় হামলার শিকার ভিপি নুর: হাসপাতালে অচেতন কুররানী এবং মধ্যবিত্ত শ্রেণী ‘লঙ্কাওয়াশ’ হলো টিম টাইগার আখেরাতের ভয় দেখিয়ে মাদ্রাসায় ১১ ছাত্রীকে ধর্ষণ সিলেট কারাগারের ডিআইজি আটক, ৮০ লাখ টাকা উদ্ধার আ ফ ম কামাল স্মরণে প্রেসক্লাবে দোয়া মাহফিল বৈঠকে মিয়ানমার, নাগরিকত্ব ছাড়া ফিরতে নারাজ রোহিঙ্গারা যৌন হয়রানির অভিযোগে মাদ্রাসার ‘বড় হুজুর’ আটক কানাডায় রাজনৈতিক আশ্রয় চেয়েছেন এস কে সিনহা ডেঙ্গুতে জাবি শিক্ষার্থীর মৃত্যু, ক্যাম্পাস জুড়ে আতঙ্ক পেস বোলিংয়ে ল্যাঙ্গাভেল্ট, স্পিনে ভেট্টরিকে কোচ নিয়োগ যুবলীগের সভাপতি মুক্তি, সাধারণ সম্পাদক মুশফিক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব হাই-টেক পার্কের নামফলক উন্মোচন বৃটিশ প্রধানমন্ত্রী হিসেবে জনসনের দায়িত্ব গ্রহণ এবার ইসরায়েলের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সাথে প্রিয়া সাহা রাজশাহীতে সাঈদী মসজিদের বারান্দায় মুশফিকের পড়াশোনা ছবি ভাইরাল ৭২ বছর পর সিসিক’র ১০ কোটি টাকার জমি উদ্ধার শ্রীলংকায় সর্বোচ্চ নিরাপত্তা পাচ্ছে টাইগাররা মা ও স্বামীর সঙ্গে প্রিয়াঙ্কার ধূমপান, সমালোচনার ঝড় বিয়ের প্রলোভন দৈহিক মিলন, স্কুলছাত্রী অন্তঃসত্ত্বা বিপদসীমার উপরে সুরমা-কুশিয়ারার পানি ভিডিও বার্তায় যা বললেন প্রিয়া সাহা প্রিয়া সাহাকে আত্মপক্ষ সমর্থনের সুযোগ দিতে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ তরুণীর সাথে দৈহিক সম্পর্ক ও ভিডিও ধারণের অভিযোগে যুবক গ্রেফতার  পেঁয়াজ, রসুন ও আদার দাম বাড়ছেই রিফাত হত্যায় জড়িত থাকার কথা স্বীকার মিন্নির গাইবান্ধায় ৪ লাখ পরিবার পানিবন্দি, ৪’শ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ প্রেমের টানে আমেরিকান নারী এখন লক্ষ্মীপুরে মাছ উৎপাদনে আমরা প্রথম হবো : প্রধানমন্ত্রী জিএম কাদের জাতীয় পার্টির নতুন চেয়ারম্যান ইলিশের উৎপাদন ৫ লাখ টন ছাড়িয়েছে এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল প্রকাশ, পাসের হার ৭৩.৯৩ এইচএসসি পরীক্ষার ফল প্রকাশ আজ কারও যোগসাজসে আমার মেয়েকে গ্রেফতার করা হয়েছে: মিন্নির বাবা জামায়াত নিয়ে যারা বিতর্ক সৃষ্টি করে তারা জাতীয় ঐক্য চায় না: কর্ণেল অলি বৌভাতের দিন দাফন হলো বর কনেসহ ১১ জনের রংপুরে এরশাদের দাফন সম্পন্ন রিফাত হত্যা: জিজ্ঞাসাবাদের পর স্ত্রী মিন্নি গ্রেফতার তিন পদ নিয়ে বিপাকে জাতীয় পার্টি মাস্টার প্ল্যান প্রস্তুতের ওপর গুরুত্বারোপ প্রধানমন্ত্রীর ‘২১ সাল থেকে বিদ্যালয়-মাদ্রাসায় কারিগরি শিক্ষা বাধ্যতামূলক: দীপু মনি এরশাদের প্রথম নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত: ৪র্থ জানাযা ১৬ জুলাই রূপকথার ফাইনালে চ্যাম্পিয়ন ইংল্যান্ড