,

দিল্লিতে লিঙ্গ পরিবর্তনের হিড়িক

লিঙ্গ পরিবর্তনের ঘটনা দিল্লিতে বাড়ছে। হাসপাতালে অপারেশন করিয়ে কোনো নারী হয়ে যাচ্ছেন পুরুষ। আবার কোনো পুরুষ হয়ে যাচ্ছেন নারী। এদের সংখ্যা আগের চেয়ে  বেড়েছে অনেক। সংশ্লিষ্ট একজন চিকিৎসক বলেছেন, আগে বছরে এমন অপারেশন করাতেন দু’একজন। এখন প্রতি মাসেই তিন থেকে চারজন এমন অপারেশন করান। এ খবর দিয়েছে অনলাইন টাইমস অব ইন্ডিয়া। এতে বলা হয়েছে, সংশ্লিষ্ট সাংবাদিক দিল্লির কেন্দ্রীয় অঞ্চলে অবস্থিত লোক নায়েক হাসপাতালে গিয়ে দেখতে পান, এমন অপারেশন করানোর জন্য অপেক্ষমাণ ছিলেন ৫ জন। তারা লিঙ্গ পরিবর্তন করে বিপরীত লিঙ্গে পরিণত হতে চান। এমন প্রবণতা বাড়ছেই। অপেক্ষারত ওই ৫ জনের মধ্যে ছিলেন দু’জন প্রকৌশলী ও একজন মেডিকেল পড়ুয়া। হাসপাতালটির প্লাস্টিক সার্জারি বিভাগের প্রধান ডাক্তার পিএস ভাণ্ডারি। তিনি বলেছেন, প্রকৌশলী ও মেডিকেল পড়ুয়ারা লিঙ্গ পরিবর্তন করাতে আসছেন এতে বিস্ময়ের কিছু নেই। বেশির ভাগই আসছেন মধ্যবিত্ত পরিবারের যুবক বা যুবতী। মানসিক রোগ বিষয়ক পরামর্শক ডাক্তার রাজিব মেহতা বলেছেন, ১০ বছর আগে বছরে আমরা এমন ঘটনা বা রোগী পেতাম একটা বা দুটো। কিন্তু এখন প্রতি বছরে তিন থেকে চারজন এমন রোগী পাচ্ছি। সম্প্রতি এমন একজন যুবতীকে প্রাথমিক পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হয়েছে। তার নাম ইলা (পরিবর্তিত নাম)। নয়ডার ২৭ বছর বয়সী যুবতী তিনি। তিনি জন্মেছেন একজন নারী হয়ে। কিন্তু নারীদের মতো পোশাক পরতে তার ভালো লাগে না। মেয়েরা যেভাবে ফ্রক পরে, পুতুল নিয়ে খেলা করে তা তার পছন্দ নয়। ইলা বলেছেন, যখন আমাকে এসব জোর করে পরানো হতো তখন ফ্রকের সঙ্গেই যেন যুদ্ধ করতাম। এসব মেনে নিতে পারতেন না বাবা-মা। তারা মনে করতেন আমি এসব করছি ইচ্ছা করে। এ নিয়ে বাবা মা’র সঙ্গে সারাক্ষণই ঝগড়া হতো। এতে বিষণ্নতায় ভুগতে থাকি আমি। এখন থেকে তিন বছর আগে এক পর্যায়ে আমি অতিরিক্ত ঘুমের বড়ি খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করি। তখন বাবা-মা দ্রুত আমাকে নিয়ে যান স্যার গঙ্গারাম হাসপাতালে। সেখানে আস্তে আস্তে সুস্থ করে তোলা হয় আমাকে। ডাক্তাররা বলেন প্রচণ্ড উদ্বেগ, বিষণ্নতা, মাদক ও নিকোটিনের ওপর নির্ভর হয়ে পড়েছি আমি।
ওই সময়ে ইলা দিনে অর্ধেক বোতলের বেশি হুইস্কি এবং কমপক্ষে ২০টি সিগারেট পান করতেন। ইলা বলেন, আমার মনে হতে থাকে আমার নারী দেহের ভিতর একটি ছেলে বাসা বেঁধেছে। এ অবস্থায় ডাক্তাররা তাকে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করেন। তাতে দেখা যায় তিনি জেন্ডার আইডেনটিটি ডিজঅর্ডারে (জিআইডি) ভুগছেন। এটা হলো একজন মানুষের শারীরিক লিঙ্গগত পরিচয় ও তার ভিতরে নারী বা পুরুষ হিসেবে নিজেকে প্রকাশের ক্ষেত্রে সংঘাতময় অবস্থা। একপর্যায়ে ইলার মা তাকে অনুমতি দেন। তার ওপর প্রয়োগ করা হয় বিষণ্নতারোধী ওষুধ। তাকে একজন পুরুষের মতো ভূমিকা রাখতে উৎসাহী করা হয়। কয়েক মাস ধরে তাকে দেয়া হয় টেস্টোস্টেরন (পুরুষের হরমোন) থেরাপি। এরপর মুম্বইয়ের এক হাসপাতালে তার অপারেশন হয়। কেটে ফেলা হয় তার স্তন ও প্রজনন তন্ত্র। লাগিয়ে দেয়া হয় কৃত্রিম পুরুষাঙ্গ। তারপরই ইলা হয়ে যান একজন পুরুষ। তবে পুরুষ হিসেবে তার নাম কি তা প্রতিবেদনে প্রকাশ করা হয় নি। একজন মনোবিজ্ঞানী বলেছেন, লিঙ্গ পরিবর্তন বিষয়ক অপারেশনের পর আর আগের অবস্থায় ফিরে যাওয়ার কোনো পথ নেই। তাই এক্ষেত্রে রোগীকে বলা হয় একটি পথ বেছে নিতে। হয়তো তিনি নিজে নারী হবেন না হয় তিনি পুরুষ হবেন। অপারেশনের ৬ মাস আগে তাদেরকে এ সুযোগ দেয়া হয়। এমন অপারেশন করানোর আগে একজন রোগীর মানসিক অবস্থা পুরোপুরি যাচাই করে দেখা হয়। ম্যাক্স হাসপাতাল সাকেটের মানসিক স্বাস্থ্য ও আচরণগত বিজ্ঞান বিভাগের প্রধান ডাক্তার সমীর মালহোত্রা। তিনি বলেন, তিনিও এমন অপারেশন বৃদ্ধি পাচ্ছে বলে পর্যবেক্ষণ করেছেন।
উল্লেখ্য, এমন অপারেশন কোনো বেসরকারি হাসপাতালে করাতে গেলে সেখানে খরচ অনেক বেশি। তবে এর পরিমাণ কত তা জানা যায়নি।

0Shares

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক : কবীর আহমদ সোহেল

সম্পাদক কর্তৃক প্রগতি প্রিন্টিং এন্ড প্যাকেজিং লিঃ ১৪৯ আরামবাগ,ঢাকা থেকে মুদ্রিত ও প্রকাশিত। বার্তা ও বাণিজ্যিক কাযালয়: ২০৭/১ ফকিরাপুল, আরামবাগ , মতিঝিল, ঢাকা-১০০০।

Designed by ওয়েব হোম বিডি

সিলেট অফিস: ২৩০ সুরমা টাওয়ার (৩য় তলা)
ভিআইপি রোড, তালতলা, সিলেট।
মোবাইল-০১৭১২-০৩৩৭১৫,০১৭১২-৫৯৩৬৫৩

E-mail: provatbela@gmail.com,

কপিরাইট : দৈনিক প্রভাতবেলা.কম

শিরোনাম :
আজ জাতীয় শোক দিবস চেয়ারম্যানের নেতৃত্বে হামলা, বাড়িতেও শঙ্কায় নুর ইটের জবাবে পাটকেল দেয়া হবে- মোদিকে ইমরান রাজধানীর লালবাগে প্লাস্টিক কারখানায় আগুন চামড়া শিল্প কোন্ পথে? আ ন ম শফিকের ইন্তেকাল: কাল জানাযা নিজ এলাকায় হামলার শিকার ভিপি নুর: হাসপাতালে অচেতন কুররানী এবং মধ্যবিত্ত শ্রেণী ‘লঙ্কাওয়াশ’ হলো টিম টাইগার আখেরাতের ভয় দেখিয়ে মাদ্রাসায় ১১ ছাত্রীকে ধর্ষণ সিলেট কারাগারের ডিআইজি আটক, ৮০ লাখ টাকা উদ্ধার আ ফ ম কামাল স্মরণে প্রেসক্লাবে দোয়া মাহফিল বৈঠকে মিয়ানমার, নাগরিকত্ব ছাড়া ফিরতে নারাজ রোহিঙ্গারা যৌন হয়রানির অভিযোগে মাদ্রাসার ‘বড় হুজুর’ আটক কানাডায় রাজনৈতিক আশ্রয় চেয়েছেন এস কে সিনহা ডেঙ্গুতে জাবি শিক্ষার্থীর মৃত্যু, ক্যাম্পাস জুড়ে আতঙ্ক পেস বোলিংয়ে ল্যাঙ্গাভেল্ট, স্পিনে ভেট্টরিকে কোচ নিয়োগ যুবলীগের সভাপতি মুক্তি, সাধারণ সম্পাদক মুশফিক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব হাই-টেক পার্কের নামফলক উন্মোচন বৃটিশ প্রধানমন্ত্রী হিসেবে জনসনের দায়িত্ব গ্রহণ এবার ইসরায়েলের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সাথে প্রিয়া সাহা রাজশাহীতে সাঈদী মসজিদের বারান্দায় মুশফিকের পড়াশোনা ছবি ভাইরাল ৭২ বছর পর সিসিক’র ১০ কোটি টাকার জমি উদ্ধার শ্রীলংকায় সর্বোচ্চ নিরাপত্তা পাচ্ছে টাইগাররা মা ও স্বামীর সঙ্গে প্রিয়াঙ্কার ধূমপান, সমালোচনার ঝড় বিয়ের প্রলোভন দৈহিক মিলন, স্কুলছাত্রী অন্তঃসত্ত্বা বিপদসীমার উপরে সুরমা-কুশিয়ারার পানি ভিডিও বার্তায় যা বললেন প্রিয়া সাহা প্রিয়া সাহাকে আত্মপক্ষ সমর্থনের সুযোগ দিতে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ তরুণীর সাথে দৈহিক সম্পর্ক ও ভিডিও ধারণের অভিযোগে যুবক গ্রেফতার  পেঁয়াজ, রসুন ও আদার দাম বাড়ছেই রিফাত হত্যায় জড়িত থাকার কথা স্বীকার মিন্নির গাইবান্ধায় ৪ লাখ পরিবার পানিবন্দি, ৪’শ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ প্রেমের টানে আমেরিকান নারী এখন লক্ষ্মীপুরে মাছ উৎপাদনে আমরা প্রথম হবো : প্রধানমন্ত্রী জিএম কাদের জাতীয় পার্টির নতুন চেয়ারম্যান ইলিশের উৎপাদন ৫ লাখ টন ছাড়িয়েছে এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল প্রকাশ, পাসের হার ৭৩.৯৩ এইচএসসি পরীক্ষার ফল প্রকাশ আজ কারও যোগসাজসে আমার মেয়েকে গ্রেফতার করা হয়েছে: মিন্নির বাবা জামায়াত নিয়ে যারা বিতর্ক সৃষ্টি করে তারা জাতীয় ঐক্য চায় না: কর্ণেল অলি বৌভাতের দিন দাফন হলো বর কনেসহ ১১ জনের রংপুরে এরশাদের দাফন সম্পন্ন রিফাত হত্যা: জিজ্ঞাসাবাদের পর স্ত্রী মিন্নি গ্রেফতার তিন পদ নিয়ে বিপাকে জাতীয় পার্টি মাস্টার প্ল্যান প্রস্তুতের ওপর গুরুত্বারোপ প্রধানমন্ত্রীর ‘২১ সাল থেকে বিদ্যালয়-মাদ্রাসায় কারিগরি শিক্ষা বাধ্যতামূলক: দীপু মনি এরশাদের প্রথম নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত: ৪র্থ জানাযা ১৬ জুলাই রূপকথার ফাইনালে চ্যাম্পিয়ন ইংল্যান্ড