,

উখিয়ায় মানবতার বিভৎস চেহারা

কবীর আহমদ সোহেল , উখিয়া থেকে ফিরে: পৃথিবীর দীর্ঘতম সমুদ্র সৈকতের জনপদ কক্সবাজার। এ জেলারই একটি উপজেলা উখিয়া। দারিদ্রতার কষাঘাতে নিস্পিষ্ট এখানকার জনগোষ্ঠি। খরা দুর্ভিক্ষ জলোচ্ছাসের সাথেই বসবাস সাগরপাড়ের এই জনপদের মানুষের। দেশের মানুষই যে এলাকাকে খুন একটা ভাল কওে চেনেনা। সেই এলাকার নাম এখন আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে। দেশ বিদেশের বিভিন্ন মিডিয়া কর্মীদের পদচারণা এখন উখিয়ার আনাচে কানাচে। না কোন খ্যাতির জৌলসে কিংবা অর্জন অবদানের জন্য এ প্রচারণা নয়। মানবতার বিভৎস চিত্র দেখা যায় এই উখিয়ায়। নির্মমতা কতটুকু নিষ্ঠুর হতে পারে তা শোনা যায় এখানে। মানবেতর জীবনের তলদেশ কত গভীর তা দেখা যায় এখানে। ক্ষুধার জ¦ালা কত কঠিন অনুভব করা যায় এখানে। সভ্যযুগে গাছের পাতা দিয়ে লজ্জা নিবারনের প্রাণান্তকর প্রচেষ্ঠারত নারীকে দেখা যায় উখিয়ায়। চোখের সামনে সন্তানহারা বাকরুদ্ধ মা’দের সমাহার এখানে। স্বামীহারা স্ত্রী’র চোখের নোনাজল কত শক্ত তা দেখা যায়। পুত্রহারা পিতার আহাজারি, গৃহহারা, সহায় সম্পদ হারা, বাস্তুহারা বনিআদমের অস্ফুট আর্তচিৎকারে বাতাস ভারী হয়ে উঠা বিষাদময় দৃশ্যের জনপদ এখন উখিয়া।
মিয়ানমারের সামরিক বাহিনীর বর্বরতার হাত থেকে জীবন বাঁচাতে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গা জণগোষ্ঠির আশ্রয়স্থল এখন উখিয়ার কুতপালং এলাকায়। রোহিঙ্গা শরণার্থিদের অবস্থা দেখতে আমরা সরেজমিন পরিদর্শন করি উখিয়া উপজেলার প্রায় ২০ কিলোমিটার এলাকা। যেখানে ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে রোহিঙ্গা শরণার্থি। গত শুক্রবার দিনভর রোহিঙ্গা শরনার্থিদের আশ্রয়স্থল ঘুরে দেখি। জানবার চেষ্ঠা করি ভাগ্যাহত বনি আদমদের যাপিত জীবনের কথা।
দৈনিক প্রভাতবেলা সম্পাদকের ( কবীর আহমদ সোহেল) নেতৃত্বে চার সদস্যের ( নিজাম উদ্দিন আহমদ, শিমুল আহমদ ও অর্পন দাস) একটি দল রোহিঙ্গা শরনার্থিদের আশ্রয়স্থল পরিদর্শন করেন। আশ্রিত এসব জনগোষ্ঠির সাথে কথা জানা যায় মিয়ানমার সামরিক বাহিনীর লোমহর্ষক বর্বরতা। স্বচক্ষে বনিআদমের মানবেতর জীবনের যে করুণ দশা অবলোকন হয় তা ভাষার কোন উপমায় উপস্থাপন করা দু:সাধ্য।
উখিয়া উপজেলা সদর থেকে টেকনাফমূখী সড়কে কিছুদুর এগুলেই সারি সারি মানুষ। নারী, পুরুষ, বৃদ্ধ, শিশু। সড়কের দু’পাশে উচু নীচু ঢালু ভূমিতে অবস্থান নিয়েছে। ওরা মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যের রোহিঙ্গা। ওরা মুসলিম। মিয়ানমার সরকার রাখাইন রাজ্যে কোন মুসলমানের অস্তিত্ব স্বীকার করতে চায়না। যুগ যুগ ধরে চলে আসা মিয়ানমার সরকারের এই অনাচার এখন বর্বরতায় রুপ নিয়েছে। গ্রামের পর গ্রাম তারা জালিয়ে দিচ্ছে। ভাইর সামনে বোনকে, স্বামীর সম্মুখে স্ত্রীকে , মা বাবার উপস্থিতিতে নিজ কন্যাকে ধর্ষণ করছে মিয়ানমারের সামরিক সদস্যরা। পঞ্চাশোর্ধ আছদ মাহমদ প্রভাতবেলাকে বলেন, এক বিকেলে মিয়ানমারের সামরিক বাহিনীর ক’জন সদস্য তাদের গ্রামে আসে। সন্ধ্যায় চলে যায়। তারা শঙ্কিত হয়ে উঠেন। মাঝরাতে আগুনের লেলিহান শিখা দেখে ঘর থেকে বেরিয়ে পড়েন। দৌঁড়াতে দৌঁড়াতে এখন আশ্রয় বাংলাদেশের কুতপালংয়ের এক থাবুতে। সাথে তার পুত্র, সন্তান সম্ভবা পুত্রবধূ। কুতপালংয়ে এসেছেন তিনদিন আাগে। এখনো কোন খাবার জুঠেনি।
নারিমা হাড্ডিসার এক মহিলা। মুখাবয়বের কুঠরে ঢুকে গেছে তার দু’চোখ। গালের হাড় বেরিয়ে আসার উপক্রম। বাহু বের করে দেখালেন। বেয়নেটের আঘাতে ক্ষত বিক্ষত এই অবলা। পরিবারের সবাইকে (স্বামী ও এক সন্তান)মেরে ফেলেছে মিয়ানমারের বর্বর সেনারা। ৯ দিনে পৌছেছেন কুতপালংয়ে। নাড়ে পড়েনি কোন দানা পানি। বছর দুয়েকে এক শিশু কোলে। অনবরত কাঁদছে শিশুটি। এক প্লেটে ক’টি মোটা চালের ভাত কে দিয়ে গেছে বলতে পারেন না। ভাতের উপর মরিচ মাখানো ক’টুকার আলু। পশুখাদ্য তুল্য এই খাবার শিশুর প্লেটে।
উখিয়ার কুতপালং থেকে যতদুর চোখ যায় কেবল মানুষ আর মানুষ। ওরা সবাই রোহিঙ্গা শরণার্থি। এখনো আসছে। যারা এসেছে তারা যে যেখানে পারে আশ্রয় নেবার চেষ্ঠা করছে। কেই তাবু টানিয়ে। কেউ বাশ বেতের ঘর তুলে। কেউবা পরিবার পরিজন নিয়ে আস্টেপৃষ্টে এক জায়গায় গুজে আছে। যে যেখানে পাওে সেখানেই শুয়ে, বসে , দাঁড়িয়ে অবস্থানের চেষ্ঠা করছে। চোখের চাহনীতে খাবারের প্রতিক্ষা। বিচ্ছিন্নভাবে মাঝে মধ্যে ত্রানবাহি কো পরিবহন এলেই হুমড়ী খেয়ে পড়ছে। কার আগে কে নেবে? ত্রাণদাতা তখন সামাল দিতে না পেরে দ্রুত স্থান ত্যাগ করেন।
ভাগ্যবিড়ম্বিত এই বনিআদম যে যেখানে অবস্থান করছে তার পাশেই প্রাকৃতিক কাজ সেরে নিচ্ছে। দুর্গন্ধময় এক ভূতুড়ে পরিবেশ। কোথাও কোন শৃংখলা নেই। সবচেয়ে ভয়ংকর পরিস্থিতি সন্তান সম্ভবা মা’দের। প্রসব বেদনা সাথে ক্ষুধার জ¦ালায় যেন মৃত্যু যন্ত্রণায় কাতর এইসব হতভাগিনি। (চলবে)

সংবাদটি ভাল লাগলে শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

সম্পাদক : কবীর আহমদ সোহেল

সম্পাদক কর্তৃক প্রগতি প্রিন্টিং এন্ড প্যাকেজিং লিঃ ১৪৯ আরামবাগ,ঢাকা থেকে মুদ্রিত ও প্রকাশিত। বার্তা ও বাণিজ্যিক কাযালয়: ২০৭/১ ফকিরাপুল, আরামবাগ , মতিঝিল, ঢাকা-১০০০।

সিলেট অফিস: ২৩০ সুরমা টাওয়ার (৩য় তলা)
ভিআইপি রোড, তালতলা, সিলেট।
মোবাইল-০১৭১২-০৩৩৭১৫,০১৭১২-৫৯৩৬৫৩

E-mail: provatbela@gmail.com,

কপিরাইট : দৈনিক প্রভাতবেলা.কম

শিরোনাম :
সিসিক নির্বাচন: নানা কথা, নানা গুজব আরিফকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার নির্দেশ খালেদার সাংবাদিক আফতাবের ঘুষ গ্রহণ: অডিও ভাইরাল ’ হাসিনার অধীনে সুষ্ঠ নির্বাচন হবেনা, হতে পারে না’- খালেদা তিনটি গাড়ি নয়, পরিত্যাক্ত অংশবিশেষ : মেয়র আরিফ মুক্তিপণের টাকাসহ ৭ গোয়েন্দা পুলিশ আটক এমকে আনোয়ারের বাসায় যাচ্ছেন খালেদা বঙ্গবন্ধুর সমর্থনের আন্দোলনে আনোয়ারের ভূমিকা ছিল সহনীয় ‘মায়ানমারকে রোহিঙ্গাদের ফেরত নিতে হবে..” সুষমা সান্নিধ্য লাভে সোনারগা’র পথে খালেদা মিশা সওদাগরের বাড়িতে তারকাদের মিলনমেলা রিমান্ড শেষে ২০ ছাত্রীসংস্থা নেত্রী কারাগারে অবিরাম বৃষ্টিতে সিলেটে জনজীবন বিপর্যস্ত বৈরী আবহাওয়া: লাগাতার বৃষ্টি চান্দাই ছাহেববাড়ীর উদ্যোগে রোহিঙ্গা শরনার্থিদের ত্রাণ প্রদান রোহিঙ্গা ইস্যুকে আড়াল করতে বাংলাদেশের সাথে যুদ্ধ চায় মিয়ানমার কারা এই ভাগ্যাহত রোহিঙ্গা? রোহিঙ্গাদের মতো পরিস্থিতি বাঙালীদেরও হতে পারে আরাকানে গণহত্যা বন্ধের দাবীতে সিলেটে বিক্ষোভ রোহিঙ্গা শরনার্থীদের যেমন দেখেছি উখিয়ায় মানবতার বিভৎস চেহারা ৭ খুন মামলা:তারেক সাঈদ, নূর হোসেনসহ ১৫ জনের মৃত্যুদণ্ড বহাল দুদকে প্রধান বিচারপতির বিরুদ্ধে ১২৬ অভিযোগ ‘সমাজে কী হচ্ছে, তা আমাদের টাচ করে’ প্রধান বিচারপতির পদত্যাগে আল্টিমেটাম কাজিরবাজার সেতুতে আহত মোটরসাইকেল রাইডারের মৃত্যু মোসাদ্দেক আউট, মমিনুল ইন নায়করাজ রাজ্জাক আর নেই নন্দিত নায়কের প্রত্যাবর্তন জৈন্তাপুরে সড়ক দূর্ঘটনায় ২ জনের প্রাণহানি বর্ষণ ও পাহাড়ী ঢলে জৈন্তাপুরে ফের বন্যা ফরিদীর সাথে থাকার মত পরিস্থিতি ছিল না: সুবর্ণা মুস্তাফা সুনামগঞ্জে কিশোরীকে গণধর্ষণ, যুবলীগ নেতা গ্রেপ্তার আজহার মিয়ার মৃত্যুতে নাচনের শোক ৪০ বছর ধরে ‘বানর নাচ’ই যার উপার্জন ক্যান্সার জয়ের স্বপ্নে বিভোর পপি আক্তার কাতার সংকট নিরসনে: সৌদি থেকে কুয়েতে এরদোগান ত্রাণ না পাওয়ার অভিযোগ করায় কান ধরে টানাহেঁচড়া ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ৩০টি স্বর্ণের বার জব্দ তিন নেতার বক্তব্যে বিএনপিতে তোলপাড় এইচএসসির ফল প্রকাশ, পাসের হার ৬৮. ৯১ মেয়রের উপস্থিতিতে এলাকাবাসীর সাথে কাউন্সিলরের অশুভ আচরন কলকাতার দৃষ্টিতে সেরা বাঙালি মাশরাফি ড. ফরাসউদ্দিন অর্থমন্ত্রী হচ্ছেন? জৈন্তাপুরে ছাত্রদলে দু’পক্ষের সংঘর্ষ ভাংচুর তাহসান- মিথিলার ডিভোর্স এর অন্তরালে .. খসরু প্রেসিডিয়াম সদস্য,রেজাউল আইন সম্পাদক বাচসাস নির্বাচন: রহমান নিশান প্যানেলের জয় ইউএনও তারেক সালমান গ্রেফতার ঘটনায় মাঠ প্রশাসনে ক্ষোভ:ডিসি- এসপির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা সুন্দর হাতের লেখায় নোবেল জয়