অসচেতনতা না অভ্যাসেই শিশু নিপীড়ন?

প্রকাশিত: ২:২৪ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ২২, ২০১৮

অসচেতনতা না অভ্যাসেই শিশু নিপীড়ন?

“ এই ক্লাস নাইনের ছাত্রী, তোমাদের না বলা হয়েছে কোন গার্ডিয়ানের মোবাইল দিয়ে কল করতে পারবেনা, যাও ভেতরে যাও, প্রয়োজনে স্কুলের ফোন দিয়ে কল করো-”

না , ম্যাডাম. ….. ম্যাডামকে ফোন করবো।

…… ম্যাডাম আজ আসবেন না-”

একজন শিক্ষিকা ও ছাত্রীর কথোপকথন। নগরীর একটি অভিজাত স্কুলের আঙিনায়।

দৃশ্যপট; আমি একজন দর্শক ।

একজন ছাত্রী দৌড়ে আসল। পঞ্চাশোর্ধ একজন লোককে ডাক দিল, আংকেল, আংকেল। আমি একটা কল করবো।

ভদ্রলোক মোবাইল বের করে নম্বর টিপতে লাগলেন।

এরই মাঝে গেট দিয়ে প্রবেশ করলেন একজন শিক্ষিকা। গার্ডিয়ান- আর ছাত্রীর এই অবস্থা দেখেই তিনি ধমক দিয়ে বল্লেন উপরোক্ত কথা। ছাত্রী দৌঁড়ে চলে গেল। ম্যাডাম হাটলেন ধীরপদে।

বিব্রতকর অভিভাবক একটু এগিয়ে এসে দাঁড়ালেন আমার পাশে। বলতে থাকলেন, মেয়েটি আমার মেয়ের বান্ধবী, ক্লাসমেট। আমিতো ওকে মেয়ের মত দেখি। আমার মোবাইল দিয়ে কল করলে কী প্রবলেম?

পাশের আরেক অভিভাবক বল্লেন নিশ্চয় কোন ঘটনা আছে বা ঘটেছে। সব অভিভাবক তো সমান না।

তর্ক বা যুক্তিতে উপরোক্ত দৃশ্যপটের সবই ঠিক আছে বা ঠিক নেই অথবা অাংশিক ঠিক আছে। এসবের সঠিকতা নিরুপণ আমার উদ্যেশ্য নয়।

প্রশ্ন হলো

,(ক) ছাত্রীরা জরুরী প্রয়োজনে ক্যাম্পাসে কোথা থেকে কল করবে তা কি কর্তৃপক্ষ নির্ধারন করে রেখেছেন?

(খ) যদি নির্ধারিত থাকে তাহলে ক্লাস নাইনের ছাত্রী জানেনা কেন?

(গ) সম্মানিত শিক্ষিকা ক্যাম্পাসে অভিভাবকদের সামনে ছাত্রী ধমক দিয়ে শিশুমনে কি আঘাত করেন নি?

(ঘ) ক্লাসে কিংবা অফিসে নিয়ে গিয়ে ছাত্রীকে শাস্তি বা সংশোধনী বক্তব্য কি দেয়া যেত না?

(ঙ) শিক্ষিকার এ আচরণ কি অভিভাবককে অসম্মান করেনি?

(চ) শিশুকে শারিরিক কিংবা মানসিক নিযাতন করা যাবেনা। রাষ্ট্রীয় এই নির্দেশনা কী সম্মানিত শিক্ষিকা জানেন না?

অাসলে সচেতনতার অভাবই এমন আচরণের কারণ। এসবই সামাজিক অপরাধের খন্ডিত চিত্র। আমরা দেখিনা বা দেখতে চাই না। এর প্রভাব কত মারাত্মক হতে পারে।

 

সর্বশেষ সংবাদ