একরামুল নিহতের ঘটনায় ম্যাজিস্ট্রেটের তদন্ত অনুযায়ী ব্যবস্থা

প্রকাশিত: ৪:১৫ অপরাহ্ণ, জুন ২, ২০১৮

 প্রভাতবেলা প্রতিবেদকঃ কক্সবাজারের টেকনাফের ওয়ার্ড কাউন্সিলর একরামুল হকের ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহতের ঘটনা একজন ম্যাজিস্ট্রেট তদন্ত করছে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল।

 

শনিবার (২ জুন) সকালে ধানমন্ডির বাসায় সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এসব কথা বলেছেন।

 

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ম্যাজিস্ট্রেটের তদন্ত যদি কোনো রকম ইঙ্গিত আমাদের দেয় বা কোনো নির্দেশনা থাকে তাহলে অবশ্যই সেই অনুযায়ী ব্যবস্থা হবে। সে যদি নিশ্চিত করে দেয় যে, এটা এ ধরনের ঘটনা তাহলে আইন অনুযায়ী বিচার হবে। এছাড়াও বিষয়টি খতিয়ে দেখতে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হবে।’

 

একরামের স্ত্রী ঘটনার সময়কার ফোন কলের একটি অডিও ক্লিপ সাংবাদিকদের শুনিয়েছেন। ঘটনা নিয়ে রেকর্ড করা অডিওটি প্রকাশ হওয়ার পর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে পড়লে ব্যাপক ক্ষোভের সৃষ্টি হয়।

ফেসবুক জুড়ে ধিক্কার আর একরামের দুই নিরহ কন্যা সন্তানের বাবাকে নিয়ে আবেগ ও আত্মনাদ হাজার মানুষের বিবেককে নাড়িয়ে দিয়েছে।

 

সংবাদ সম্মেলনে একরামের স্ত্রীর অডিও রেকর্ডের বিষয়ে জানতে চাইলে সাংবাদিকদের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘ঘটনা যদি এ ধরনের ঘটেই থাকে, যদি প্রমাণ হয়, তাহলে অবশ্যই আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে। বিচার হবে।’

 

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন বলেন, কেউ আইনের ঊর্ধ্বে নয়। কেউ যদি আইন অমান্য করে থাকেন,আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কোনো সদস্য যদি আইন অমান্য করেন, যদি কেউ ইচ্ছাকৃতভাবে কিংবা প্রলুব্ধ হয়ে এ ধরনের ঘটনার সূত্রপাত করে থাকেন, তাহলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 

উল্লেখ্য, গত ২৬ মে র‍্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ একরাম নিহত হন। এরপর র‍্যাব দাবি করে, একরাম একজন মাদক ব্যবসায়ী। তবে বৃহস্পতিবার টেকনাফে এক সংবাদ সম্মেলনে নিহত কাউন্সিলর একরামের স্ত্রী আয়েশা বেগম অভিযোগ করেন, বন্দুকযুদ্ধের নামে অন্যায়ভাবে তার স্বামীকে ‘হত্যা’ করা হয়েছে।

 

একরামুল হক উপজেলা যুবলীগের সাবেক সভাপতি। তিনি টেকনাফ পৌরসভার ৩নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ছিলেন ও পৌর এলাকার কায়ুকখালী গ্রামের মৃত আব্দুস সাত্তারের ছেলে।

  •  
  •  
  •  
  •  

সর্বশেষ সংবাদ