,

“নির্মলেন্দু গুণদা আমি মেট্রিক পাশ করেছি”

 

 

 

      মাকসুদা লিসা

“তোমার পায়ের নিচে আমিও অমর হব,

আমাকে কী মাল্য দেবে, দাও।

এই নাও আমার যৌতুক, এক-বুক রক্তের প্রতিজ্ঞা।
ধুয়েছি অস্থির আত্মা শ্রাবণের জলে, আমিও প্লাবন হব,
শুধু চন্দনচর্চিত হাত একবার বোলাও কপালে।
আমি জলে-স্থলে-অন্তরীক্ষে উড়াব গাণ্ডীব,
তোমার পায়ের কাছে নামাব পাহাড়” ।

 

 

নির্মলেন্দু গুণ দা ঠিক একই রকম আছেন। বদলাননি একটুও। অবিকল সেই অবয়ব। চোখে মোটা ফ্রেমের চশমা। সেই ঝুল পাঞ্জাবী। সেই লম্বা বিশাল শরীরের মানুষটি।

 

গুণদা কে অন্যদের চেয়ে আলাদা করে চেনা যায়। চেনা যায় তার মুখয়বের বৈশিষ্টে। সৌন্দর্যে। সেই লম্বা দাঁড়ি গোঁফ। যা অনেককাল তার চেহারাটাকে স্মৃতির ক্যানভাসে আটকে রেখেছে।

সেই গুণদা। আমার কিশোরী বয়সের অনুপ্রেরণা। যার একটি কথা আজও আমাকে লড়তে শেখায়। পড়তে শেখায়। শেখায় কাব্যিকতার জগতে প্রবেশ করার মন্ত্র।

 

নির্মলেন্দু গুণ আমার জীবনে প্রথম দেখা কোন মহাপুরুষ। বিদ্বান। গুণীজন। কবি। লেখক, সাংবাদিক।

 

একদা গুণদা আমাদের বাড়ীতে এসেছিলেন। তখন আমি সবে স্কুলে যাওয়া-আসা শুরু করেছি। কোন এক জমিজমা সংক্রান্ত বিষয়ে। আমার বাবা’র কাছে এসেছিলেন। স্মৃতির পাতায় সবকিছু ঝাপসা।। যতদূর মনে পড়ে, তার কোন আত্মিয় বা পরিচিতজন আমাদের এলাকায় কোন বাড়ী বা জমী নিয়ে ঝামেলায় পড়েছিলেন। আমার বাবা এলাকার মুরব্বি। সাবেক মেম্বার। তিনবার নির্বাচন করে পাশ করেছেন। শেষবার চেয়ারম্যান ছিলেন।

 

তাছাড়া এলাকার সব জায়গা সম্পতি তার পরিবারেরই (ভাই,বোন, চাচা) ছিল। বিশাল জমিদারী। পুরো এলাকায় কোন জায়গা জমি বিক্রি হলে তার দ্বারস্থ হতে হতো সবাইকে। জমির দাগ নাম্বার, খাজনা, মৌজা, ইত্যাদিই আরো অনেক কিছুর সমাধান তার কাছে।

আমাদের সেসময় পড়ার ঘর ছিল দুটি। একটা রাস্তার ঠিক পাশে। চেয়ার টেবিল দিয়ে ঠাসা। মুল বাড়ী থেকে একটু দূরে।

সেই সময় আমাদের বাসায় লজিং মাষ্টার সিস্টেম ছিল। প্রয়োজনের অতিরিক্ত দু’জন মাষ্টার আমার বড় ভাই-বোনদেরকে পড়াতেন। থাকতেন। নিজেরা ভবিষ্যৎ গড়তেন। আমি ছিলাম ছোটদের দলে।

 

নির্মলেন্দু গুণদার সঙ্গে আরোও দুই তিনজন এসেছিলেন। সেই জমিজমা কোন বিষয় নিয়ে আলোচনায় নিয়ে। সন্ধ্যায় পাঠ চলছিল তখন। শুনেছিলাম সে বড় কবি।

সেই কিশোরি বয়সে আমাকে অনেকেই আদর করতেন। মায়া করতেন। ছোট বাচ্চাদের যেভাবে মানুষ কাছে ডাকে। স্নেহমাখা সুরে। ঠিক সেই ভালবাসা। আমার মনে আছে। দাদা আমাকে কাছে ডেকে অনেক কিছু জানতে চাইলেন। প্রশ্ন করলেন। আমি সঠিক উত্তর দিয়েছিলাম। কবিতা শুনলেন। মনে পড়ে দাদা এতটাই আপ্লুত হয়েছিলেন যে, বিদায়বেলায় আমার বাবাকে অনুরোধ করে গেলেন, ‘মেম্বার সাহেব, আপনার এই মেয়েটাকে আপনি লেখাপড়া শিখান। অন্তত মেট্রিক পাশ সে জেন করে। এই মেয়ে বড় মেধাবী হবে”।

 

গুণদা সেই অনুরোধ বাবা রেখেছিলেন।

 

সেদিনের সেই কিশোরী বালিকা অনেক বড় হলো। কবিতা পড়তে শিখলো। বুঝতে শিখলো। কবিতার প্রেমে পড়লো। কবির প্রেমে পড়লো। লিখা-লিখির প্রেমে পড়লো।

 

 

ভাগ্য আমাকে দীর্ঘ বছর পরে আবার নির্মলেন্দু গুণদার সামনে হাজির হবার সুযোগ করে দিয়েছিল। কে, জানতে এতকাল পড়ে সেই মহা পুরুষের সঙ্গে আমার দেখা হবে। কথা হবে। আমার সহকর্মী হবেন। সেই সৌভাগ্য আমার হয়েছে। আমি সবে সাংবাদিকতার নাম লিখিয়েছি।

 

আমার প্রথম সংবাদপত্র হাউজ বাংলাবাজার পত্রিকা। কবির সংগে সেখানেই দেখা। তখন আমাদের সম্পাদক জাকারিয়া খান গুণদাকে দিয়ে স্পেশাল কলাম লিখাতেন। গুণদা অফিসে আসতেন। সম্পাদক ছিলেন ক্রিকেট পাগল। ক্রিকেটটা অনেক বুঝতেন। খোজ-খবর রাখতেন। কোন ব্যাটসম্যানের স্টাইক রেট কত, বোলারের ইকোনমি কত গড়গড় করে বলে দিতেন মুখস্ত। আমি নবাগত। মুগ্ধ হয়ে জাকারিয়া ভাইয়ের সবকথা শ্রবণ করতাম। জাকারিয়া ভাই আমাকে খুব স্নেহ করতেন। আমাকে ডাকতেন ‘লিচি’ বলে।

 

আমার ক্রিকেট নিয়ে লেখা নির্মলেন্দু গুণদা মনোযোগ দিয়ে পড়তেন। তার প্রমাণ মিলেছে বেশ কয়েকবার। আমি আমার এক ক্রিকেট রিপোর্টে লিখেছিলাম- ‘বাংলাদেশ ব্যালেন্স দল’।

সম্পাদকের রুমে ক্রিকেট আলোচনায় গুন’দা আমাকে সুন্দর করে শুধরে দিলেন- লিসা, কথাটা ব্যালেন্স হবে না। হবে ‘ব্যালেন্সড’।

 

এরপর আর ভুল হয়নি। আমি যখনই ‘ব্যালেন্সড’ লিখতে যাই। প্রতিবার মনে পড়ে গুণদার শুদ্ধরে দেয়া।

 

মনে পড়ে সেই কিশোরী বয়সে এক গুনীজনের সান্নিধ্যের কথা।

 

আজ ২১ জুন দাদার জন্মদিন। পড়ের ক্যানভাসে সেই কিশোরি দিনের স্মৃতি ঘুরে -ফিরে সামনে।

যে কথা এখনও বলা হয়নি নির্মলেন্দু গুণ দাকে। স্মরণ করিয়ে দেয়া হয়নি। আমিই সেই বালিকা।

“আবার যখনই দেখা হবে, আমি প্রথম সুযোগেই
বলে দেব স্ট্রেটকাটঃ

‘আমিই সেই বালিকা’।

যার কথায়, কবিতায় আপনি মুগ্ধ হয়েছিলেন। অনুরোধ করেছিলেন আমার বাবাকে।
কবি’ কবির চোখে দেখেছিলেন আমাকে দূর দৃষ্টি। হয়তো কোন প্রভিতা দেখেছিলেন আমার মাঝে।
আমি প্রেমে পড়েছি। কবি’র কবিতা আমাকে প্রেম করা শিখিয়েছে। প্রেমে পড়তে শিখিয়েছে।

 

“আমায় তুমি যতোই ঠেলো দূরে
মহাকাশের নিয়ম কোথায় যাবে ?
আমি ফিরে আসবো ঘুরে ঘুরে
গ্রহ হলে উপগ্রহে পাবে !

মাটি হলে পাবে শস্য- বীজে
বাতাস হলে পাবে আমায় ঝড়ে !
মৃত্যু হলে বুঝবে আমি কি যে ,
ছিলেম তোমার সারাজীবন ধরে !

 

0Shares

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক : কবীর আহমদ সোহেল

সম্পাদক কর্তৃক প্রগতি প্রিন্টিং এন্ড প্যাকেজিং লিঃ ১৪৯ আরামবাগ,ঢাকা থেকে মুদ্রিত ও প্রকাশিত। বার্তা ও বাণিজ্যিক কাযালয়: ২০৭/১ ফকিরাপুল, আরামবাগ , মতিঝিল, ঢাকা-১০০০।

সিলেট অফিস: ২৩০ সুরমা টাওয়ার (৩য় তলা)
ভিআইপি রোড, তালতলা, সিলেট।
মোবাইল-০১৭১২-০৩৩৭১৫,০১৭১২-৫৯৩৬৫৩

E-mail: provatbela@gmail.com,

কপিরাইট : দৈনিক প্রভাতবেলা.কম

শিরোনাম :
পেশাদারিত্বের বিকাশে পুরস্কার গুরুত্ব বহন করে শিক্ষকদের সন্তান কেজি স্কুলে ভর্তি হতে পারবে না মিরাজের অধিনায়কত্বে ভবিষ্যৎ দেখছেন মাশরাফি অভিনেত্রী অহনার সড়ক দুর্ঘটনা মামলা: হেলপারের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি আমার বক্তব্য মিডিয়ায় ভুলভাবে উপস্থাপিত হয়েছে: আল্লামা শফী মাধবকুন্ডে যাবার পথে বাস উল্টে ১২ দর্শনার্থী আহত মেয়েদের স্কুল-কলেজে দেবেন না: আহমদ শফী জাঙ্গাইল ইয়াছিন আলী সেন্টার থেকে মোটর সাইকেল চুরি সাংবাদিক মুনশী ইকবালের পিতার ইন্তেকাল মার্চে ধাপে ধাপে উপজেলা নির্বাচন বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা হিসেবে গড়তে চাই শাবনূর ‘ফিট’ নন, বিপদে পরিচালক মেজরটিলায় বাসের ধাক্কায় মোটর সাইকেল আরোহী নিহত নয়াপল্টনে গাড়িতে অগ্নিসংযোগকারী সেই যুবক গ্রেফতার আওয়ামীলীগের চার মন্ত্রিসভায় কাদের ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ধানের শীষের বিজয়! ধর্ষণে ব্যর্থ হয়ে নুসরাত ও ফারিয়াকে হত্যা গণভবনে তারকা আড্ডা আনন্দে প্রধানমন্ত্রি “ জামায়াত ব্যান্ড করতে আইন হচ্ছে’’- আনিসুল শিশু নুসরাত-ফারিয়া হত্যায় গ্রেফতার ২ পপুলার হাসপাতাল ভবন থেকে পড়ে ২ শ্রমিক আহত কৃষিদবিদ থেকে কৃষিমন্ত্রি অর্থহীন অনুচ্ছেদ, অদ্ভুত প্রশ্ন! সংসদ সদস্য হয়েছেন যেসব পিতা-পুত্র ও জামাই-শ্বশুর মাশরাফি ঝড়ে কুমিল্লার ধস ‘ভুঁইফোড়’ অনলাইন মোকাবিলা করা হবে: তথ্যমন্ত্রী খুলনাকে হারিয়ে ঢাকার জয় ফের নির্বাচনের দাবী ঐক্যফ্রন্টের মন্ত্রিপরিষদে ৫ গণমাধ্যম মালিক দীপু মনির জীবন আলেখ্য প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়নে কাজ করবেন দীপু মনি খুলনাকে ১৯৩ রানের টার্গেট দিল ঢাকা ববি হাজ্জাজের এনডিএম নিবন্ধন পাচ্ছে ১৪ দল আমাদের দুঃসময়ের শরিক : কাদের প্রধানমন্ত্রীসহ নতুন মন্ত্রীরা টুঙ্গিপাড়া যাচ্ছেন বুধবার সিলেট নগরীতে ছিনতাইকারীর কবলে গৃহবধূ কোম্পানীগঞ্জের আরপিনটিলায় গর্ত ধসে ২ পাথরশ্রমিকের মৃত্যু জিন্দাবাজারে দোকান ভাঙ্গলেন মেয়র আরিফ শেখ হাসিনাকে রেহানার শুভেচ্ছা টেষ্ট অভিষেকে থাকছেন না সিলেটের লোকাল হিরোরা সুরমা নদীর তীরের স্থাপনা সরাতে ব্যবসায়ীদের মেয়রের আল্টিমেটাম জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষা শুরু হচ্ছে বৃহস্পতিবার সংলাপে বসছে আওয়ামী লীগ-জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট জামায়াতের নিবন্ধন বাতিলের প্রজ্ঞাপন জারি খালেদা জিয়ার সাজার প্রতিবাদে সারাদেশে বিক্ষোভ মিছিল বিপিএল ষষ্ঠ আসরের প্লেয়ার্স ড্রাফটে কে কোন দলে প্রধানমন্ত্রীকে ড. কামাল হোসেনের চিঠি সেই টেষ্ট হ্যাট্টিকম্যান অলক কাপালী সিলেটের টেষ্ট অভিষেকটা স্মরণীয় হয়ে থাকবে আশা অলক কাপালীর আরেকটিবার আওয়ামী লীগকে ভোট দিনঃ শেখ হাসিনা