,

আজহার ও কায়সারের শুনানী ১৮ জুন

আদালত প্রতিবেদক: জামায়াতের সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল এ টি এম আজহারুল ইসলাম ও জাতীয় পার্টির (জাপা) নেতা সৈয়দ মোহাম্মদ কায়সারের আপিল আবেদন শুনানির জন্য আগামী ১৮ জুন দিন নির্ধারণ করেছেন হাইকোর্ট। ওই দিন আজহারের আপিল কার্যতালিকায় ১ নম্বর ও কায়সারের আপিল কার্যতালিকায় ২ নম্বরে রয়েছে বলে জানা গেছে।

বুধবার (১০ এপ্রিল) প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বাধীন চার সদস্যের আপিল বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে শুনানিতে ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম। আর আসামিপক্ষে ছিলেন সিনিয়র অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন ও ব্যারিস্টার শিশির মনির।

তবে এ মামলায় শুনানির প্রস্তুতির জন্য ৮ সপ্তাহের সময় আবেদন করেন অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন।

এসময় আদালত বলেন, ‘আমরা শুনানির জন্য যেদিন সময় দেবো ওই দিনই শুনানি শুরু হবে। আজহারের আপিল মামলাটি কার্যতালিকায় ১ নম্বরে থাকবে এবং কায়সারের মামলাটি ২ নম্বরে থাকবে। একটা মামলার আপিল শুনানি শেষ হলে আরেকটা শুরু হবে।’ এরপর আদালত আপিল শুনানির জন্য ১৮ জুন নির্ধারণ করে দেন।

এটিএম আজহারুল ইসলাম:

`একাত্তরে মানবতাবিরোধী অপরাধের’ মামলায় জামায়াতের সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল এ টি এম আজহারুল ইসলাম খালাস চেয়ে ট্রাইব্যুনালের রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করেন। আপিলে তার খালাসের পক্ষে যুক্তি রয়েছে প্রায় ১১৩টি। ২০১৫ সালের ২৯ জানুয়ারি সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের সংশ্লিষ্ট শাখায় অ্যাডভোকেট অন রেকর্ড জয়নুল আবেদীন তুহিন এই আপিল দায়ের করেন।

এ টি এম আজহারুল ইসলামের মূল আপিল আবেদনে ৯০ পৃষ্ঠার সঙ্গে ১১৩ টি গ্রাউন্ডসহ মোট দুই হাজার ৩৪০ পৃষ্ঠার আবেদন জমা দেওয়া হয়।

আপিল দায়েরের পর তার আইনজীবী শিশির মুহাম্মমদ মনির সাংবাদিকদের বলেছিলেন, ‘আপিলে আমরা প্রত্যেকটি অভিযোগ চ্যালেঞ্জ করেছি, তিনি কোনও অপরাধের সঙ্গে জড়িত ছিলেন না। এ মামলায় সাক্ষীদের পরস্পর বিরোধী বক্তব্য আজহারুল ইসলামকে নির্দোষ প্রমাণ করে।’

তিনি বলেন, ২৬ নম্বর সাক্ষীর জবানবন্দি অনুযায়ী এটিএম আজাহারের বিরুদ্ধে আনা হত্যা, গণহত্যার অভিযোগগুলো প্রমাণ করতে প্রসিকিউশনের আইনজীবীরা সম্পূর্ণ ব্যর্থ। প্রসিকিউশনের ৪ ও ২৫ নম্বর সাক্ষীর জবানবন্দি অনুযায়ী ডকুমেন্ট তৈরি করে তারা (প্রসিকিউশন) নিজেদের মতো করে মামলা সাজিয়েছে।

২০১৪ সালের ৩০ ডিসেম্বর আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-১ এর তৎকালীন চেয়ারম্যান বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিমের নেতৃত্বাধীন ট্রাইব্যুনাল তার বিরুদ্ধে মৃত্যুদণ্ড ঘোষণা করে রায় দিয়েছিলেন।

আজহারের বিরুদ্ধে হত্যা, গণহত্যা, ধর্ষণ, নির্যাতন, অগ্নিসংযোগসহ ৬টি অভিযোগ আনে প্রসিকিউশন। ট্রাইব্যুনালের দেওয়া রায়ে ৫টি অভিযোগ প্রমাণিত হয়।

সৈয়দ মোহাম্মদ কায়সার:

জাতীয় পার্টির (জাপা) নেতা ও সাবেক কৃষি প্রতিমন্ত্রী সৈয়দ মোহাম্মদ কায়সার খালাস চেয়ে ট্রাইব্যুনালের রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করেন। আপিলে ট্রাইব্যুনালের রায় বাতিলের পাশাপাশি তাকে বেকসুর খালাস দেওয়ার আবেদন জানানো হয়।

২০১৫ সালের ১৯ জানিুয়ারি সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের সংশ্লিষ্ট শাখায় এই আপিল করা হয়। সৈয়দ মোহাম্মদ কায়সারের পক্ষে অ্যাডভোকেট অন রেকর্ড জয়নুল আবেদীন তুহিন এই আপিল করেছেন। এ মামলার শুনানি করবেন অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন।

আপিলে খালাসের আরজিতে ৫৬টি যুক্তি তুলে ধরা হয়েছে। ৫০ পৃষ্ঠার মূল আপিলের সঙ্গে প্রয়োজনীয় নথি সংযুক্ত রয়েছে।

২০১৪ সালের ২৩ ডিসেম্বর আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-২ এর চেয়ারম্যান বিচারপতি ওবায়দুল হাসানের নেতৃত্বাধীন আদালত কায়সারকে মৃত্যুদণ্ড ঘোষণা করে রায় দেন।

গণহত্যার একটি, হত্যা, নির্যাতন, অগ্নিসংযোগ ও লুণ্ঠনের ১৩টি ও ধর্ষণের দুটিসহ মোট ১৬টি অভিযোগ তার বিরুদ্ধে আনা হয়। এর মধ্যে ১৪টি ট্রাইব্যুনালের রায়ে প্রমাণিত হয়েছে। এর মধ্যে ৩, ৫, ৬, ৮, ১০, ১২ ও ১৬ নম্বর অভিযোগে তাকে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়।

প্রসঙ্গত, মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় এখন পর্যন্ত সাতটি আপিলের রায় ঘোষণার পর রিভিউ আবেদনেরও নিষ্পত্তি হয়েছে আপিল বিভাগে।

 

0Shares

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক : কবীর আহমদ সোহেল

সম্পাদক কর্তৃক প্রগতি প্রিন্টিং এন্ড প্যাকেজিং লিঃ ১৪৯ আরামবাগ,ঢাকা থেকে মুদ্রিত ও প্রকাশিত। বার্তা ও বাণিজ্যিক কাযালয়: ২০৭/১ ফকিরাপুল, আরামবাগ , মতিঝিল, ঢাকা-১০০০।

সিলেট অফিস: ২৩০ সুরমা টাওয়ার (৩য় তলা)
ভিআইপি রোড, তালতলা, সিলেট।
মোবাইল-০১৭১২-০৩৩৭১৫,০১৭১২-৫৯৩৬৫৩

E-mail: provatbela@gmail.com,

কপিরাইট : দৈনিক প্রভাতবেলা.কম

শিরোনাম :
“যেখানে সিঙ্গারা খেলে চলবে সেখানে অতিরিক্ত কিছু খাওয়ার দরকার নেই” ভারতের ভিসা বাতিল, দেশে ফিরলেন ফেরদৌস নুসরাত হত্যায় সরাসরি জড়িত নারী গ্রেপ্তার ওসিকে রক্ষায় ফেনীর এসপি’র কৌশল নুসরাত হত্যা: দুই আসামির জবানবন্দি, সব জানতেন আ’লীগ নেতা লন্ডনে ডি এম হাই স্কুলের পুনর্মিলনী অনুষ্ঠিত ছাতকের মঈনপুরে শতদল সাহিত্য পরিষদের নববর্ষ উদযাপন দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে নুসরাত হত্যা মামলা বুকে বুক মেলালেন আরিফ-কামরান রাত পোহালেই পহেলা বৈশাখ। ছাত্রলীগের হামলা অগ্নিসংযোগে ঢাবির বৈশাখী কনসার্ট বাতিল চবি ছাত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টা টাঙ্গাইলে স্বামীর সামনে স্ত্রীকে গনধর্ষণ ছাত্রলীগ নেতার প্রেম প্রত্যাখানের কারণেই নুসরাতকে হত্যা আমার বাবা ও একাত্তরের স্মৃতিময় স্থান নুসরাত হত্যার আসামি মকসুদ আ’লীগ নেতা: গ্রেফতার অব্যাহতি ওসমানীতে ৩ কেজি সোনাসহ যাত্রী আটক নুসরাত হত্যায় জড়িতদের শাস্তি পেতেই হবে: পরিবেশমন্ত্রী আজহার ও কায়সারের শুনানী ১৮ জুন এয়ার এ্যাম্বুলেন্সে ব্যাংককের পথে মাহফুজ উল্লাহ গ্রীনলাইনে পা হারানো রাসেল পেলেন ৫ লাখ টাকা অগ্নিদগ্ধ সেই রাফি আর নেই ওড়নায় হাত বেঁধে আগুন দেয় বোরকা পরিহিত ৪ জন! কার্যতালিকায় জামায়াত নেতা আজহারের আপিল পঞ্চপাণ্ডবের বিদায়ের পর ক্রিকেটের গুরুদায়িত্ব কারা নেবে? যেভাবে বয়স কমাচ্ছেন জয়া জীবন মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে সেই মাদ্রাসাছাত্রী চলে গেলেন ফায়ারম্যান রানা ৯০ দিনে সেরা দীপু মনি শিক্ষামন্ত্রীকে সিলেটে অভ্যর্থনা কেন এই সিকিউরিটি অ্যালার্ট- শেখ হাসিনা হাসপাতাল ছাড়লেন কাদের সংকট উত্তরণে দেশে বিদেশে সফরে জামায়াত নেতারা ধর্মপাশায় বোরো ধান কাটা শুরু সুনামগঞ্জে ৪ দালালসহ ২ রোহিঙ্গা আটক সিটিহার্ট মার্কেটে দোকান নিয়ে দ্বন্দ বেঈমান বের হয়ে যাও, মোকাব্বিরকে ড. কামাল শিক্ষকদের কান্নায় পিছু হটল পুলিশ ‘স্মার্ট শপ’র প্রতারণা, ঘড়ির বদলে পেঁয়াজ খালেদার জেল: নির্জন কারাবাস নাঈমকে খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে বলতে শিখিয়ে দিয়েছিলেন জয়! কে হচ্ছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক? ডাকসু ভিপি নুরকে মারধর বুধবার রাতে পবিত্র মি’রাজ ‘জীবন ভিক্ষা’ চাইলেন জয় শামছুন্নাহার হলের ভিপিকে ছাত্রলীগের ডিম নিক্ষেপ, ‘গায়ে হাত’ খালেদা জিয়ার ব্যাপারটার জন্য আমি ক্ষমা চাচ্ছি : নাঈমের মা ফারহান-শিবানীর ‌‘আগুন ছবি’ ফের ভাইরাল! ‘জি’ নেটওয়ার্কের সব চ্যানেল বাংলাদেশে বন্ধ শপথ নিলেন মোকাব্বির