,

আজহার ও কায়সারের শুনানী ১৮ জুন

আদালত প্রতিবেদক: জামায়াতের সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল এ টি এম আজহারুল ইসলাম ও জাতীয় পার্টির (জাপা) নেতা সৈয়দ মোহাম্মদ কায়সারের আপিল আবেদন শুনানির জন্য আগামী ১৮ জুন দিন নির্ধারণ করেছেন হাইকোর্ট। ওই দিন আজহারের আপিল কার্যতালিকায় ১ নম্বর ও কায়সারের আপিল কার্যতালিকায় ২ নম্বরে রয়েছে বলে জানা গেছে।

বুধবার (১০ এপ্রিল) প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বাধীন চার সদস্যের আপিল বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে শুনানিতে ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম। আর আসামিপক্ষে ছিলেন সিনিয়র অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন ও ব্যারিস্টার শিশির মনির।

তবে এ মামলায় শুনানির প্রস্তুতির জন্য ৮ সপ্তাহের সময় আবেদন করেন অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন।

এসময় আদালত বলেন, ‘আমরা শুনানির জন্য যেদিন সময় দেবো ওই দিনই শুনানি শুরু হবে। আজহারের আপিল মামলাটি কার্যতালিকায় ১ নম্বরে থাকবে এবং কায়সারের মামলাটি ২ নম্বরে থাকবে। একটা মামলার আপিল শুনানি শেষ হলে আরেকটা শুরু হবে।’ এরপর আদালত আপিল শুনানির জন্য ১৮ জুন নির্ধারণ করে দেন।

এটিএম আজহারুল ইসলাম:

`একাত্তরে মানবতাবিরোধী অপরাধের’ মামলায় জামায়াতের সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল এ টি এম আজহারুল ইসলাম খালাস চেয়ে ট্রাইব্যুনালের রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করেন। আপিলে তার খালাসের পক্ষে যুক্তি রয়েছে প্রায় ১১৩টি। ২০১৫ সালের ২৯ জানুয়ারি সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের সংশ্লিষ্ট শাখায় অ্যাডভোকেট অন রেকর্ড জয়নুল আবেদীন তুহিন এই আপিল দায়ের করেন।

এ টি এম আজহারুল ইসলামের মূল আপিল আবেদনে ৯০ পৃষ্ঠার সঙ্গে ১১৩ টি গ্রাউন্ডসহ মোট দুই হাজার ৩৪০ পৃষ্ঠার আবেদন জমা দেওয়া হয়।

আপিল দায়েরের পর তার আইনজীবী শিশির মুহাম্মমদ মনির সাংবাদিকদের বলেছিলেন, ‘আপিলে আমরা প্রত্যেকটি অভিযোগ চ্যালেঞ্জ করেছি, তিনি কোনও অপরাধের সঙ্গে জড়িত ছিলেন না। এ মামলায় সাক্ষীদের পরস্পর বিরোধী বক্তব্য আজহারুল ইসলামকে নির্দোষ প্রমাণ করে।’

তিনি বলেন, ২৬ নম্বর সাক্ষীর জবানবন্দি অনুযায়ী এটিএম আজাহারের বিরুদ্ধে আনা হত্যা, গণহত্যার অভিযোগগুলো প্রমাণ করতে প্রসিকিউশনের আইনজীবীরা সম্পূর্ণ ব্যর্থ। প্রসিকিউশনের ৪ ও ২৫ নম্বর সাক্ষীর জবানবন্দি অনুযায়ী ডকুমেন্ট তৈরি করে তারা (প্রসিকিউশন) নিজেদের মতো করে মামলা সাজিয়েছে।

২০১৪ সালের ৩০ ডিসেম্বর আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-১ এর তৎকালীন চেয়ারম্যান বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিমের নেতৃত্বাধীন ট্রাইব্যুনাল তার বিরুদ্ধে মৃত্যুদণ্ড ঘোষণা করে রায় দিয়েছিলেন।

আজহারের বিরুদ্ধে হত্যা, গণহত্যা, ধর্ষণ, নির্যাতন, অগ্নিসংযোগসহ ৬টি অভিযোগ আনে প্রসিকিউশন। ট্রাইব্যুনালের দেওয়া রায়ে ৫টি অভিযোগ প্রমাণিত হয়।

সৈয়দ মোহাম্মদ কায়সার:

জাতীয় পার্টির (জাপা) নেতা ও সাবেক কৃষি প্রতিমন্ত্রী সৈয়দ মোহাম্মদ কায়সার খালাস চেয়ে ট্রাইব্যুনালের রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করেন। আপিলে ট্রাইব্যুনালের রায় বাতিলের পাশাপাশি তাকে বেকসুর খালাস দেওয়ার আবেদন জানানো হয়।

২০১৫ সালের ১৯ জানিুয়ারি সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের সংশ্লিষ্ট শাখায় এই আপিল করা হয়। সৈয়দ মোহাম্মদ কায়সারের পক্ষে অ্যাডভোকেট অন রেকর্ড জয়নুল আবেদীন তুহিন এই আপিল করেছেন। এ মামলার শুনানি করবেন অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন।

আপিলে খালাসের আরজিতে ৫৬টি যুক্তি তুলে ধরা হয়েছে। ৫০ পৃষ্ঠার মূল আপিলের সঙ্গে প্রয়োজনীয় নথি সংযুক্ত রয়েছে।

২০১৪ সালের ২৩ ডিসেম্বর আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-২ এর চেয়ারম্যান বিচারপতি ওবায়দুল হাসানের নেতৃত্বাধীন আদালত কায়সারকে মৃত্যুদণ্ড ঘোষণা করে রায় দেন।

গণহত্যার একটি, হত্যা, নির্যাতন, অগ্নিসংযোগ ও লুণ্ঠনের ১৩টি ও ধর্ষণের দুটিসহ মোট ১৬টি অভিযোগ তার বিরুদ্ধে আনা হয়। এর মধ্যে ১৪টি ট্রাইব্যুনালের রায়ে প্রমাণিত হয়েছে। এর মধ্যে ৩, ৫, ৬, ৮, ১০, ১২ ও ১৬ নম্বর অভিযোগে তাকে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়।

প্রসঙ্গত, মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় এখন পর্যন্ত সাতটি আপিলের রায় ঘোষণার পর রিভিউ আবেদনেরও নিষ্পত্তি হয়েছে আপিল বিভাগে।

 

0Shares

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক : কবীর আহমদ সোহেল

সম্পাদক কর্তৃক প্রগতি প্রিন্টিং এন্ড প্যাকেজিং লিঃ ১৪৯ আরামবাগ,ঢাকা থেকে মুদ্রিত ও প্রকাশিত। বার্তা ও বাণিজ্যিক কাযালয়: ২০৭/১ ফকিরাপুল, আরামবাগ , মতিঝিল, ঢাকা-১০০০।

Designed by ওয়েব হোম বিডি

সিলেট অফিস: ২৩০ সুরমা টাওয়ার (৩য় তলা)
ভিআইপি রোড, তালতলা, সিলেট।
মোবাইল-০১৭১২-০৩৩৭১৫,০১৭১২-৫৯৩৬৫৩

E-mail: provatbela@gmail.com,

কপিরাইট : দৈনিক প্রভাতবেলা.কম

শিরোনাম :
ফাবিয়ানের ‘ছাদ থেকে পড়ে যাওয়া’কে এড়িয়ে যাচ্ছে স্কুল কর্তৃপক্ষ স্কলার্স হোমের শিক্ষার্থী ফাবিয়ান লাইফ সাপোর্টে ছাতকে যুবতীর রহস্যজনক মৃত্যু মোস্তাফিজই ম্যাচ ঘুরিয়েছে, বললেন মাশরাফি বিশ্বকাপে বাংলাদেশের দাপুটে জয় আাদালতে মুরসীর ইন্তেকাল বনকলাপাড়ায় পিটুনিতে‘ডাকাত’ নিহত ‘এনজিওগ্রাম’ নয় যাচ্ছে ‘হার্ট লান’ মেশিন ওসমানীর এনজিওগ্রাম মেশিন যাচ্ছে সোহরাওয়ার্দীতে শুদ্ধাচার পুরস্কার পাচ্ছেন জৈন্তার ইউএনও মৌরিন বড়লেখায় স্বামীর হাতে স্ত্রী খুন বড়লেখায় পানিতে ডুবে দু’বোনের মৃত্যু ঈদ উদযাপনে প্রস্তুত সিলেটঃ কখন কোথায় জামাত চাঁদ দেখা গেছে বুধবার ঈদুল ফিতর যে সূরা পাঠ করলে আল্লাহ তায়ালা রিজিকের দরজা খুলে দেন জামায়াত একটি দেশ প্রেমিক দল,তাদের কোন দোষ নেই : কর্নেল অলি আমেরিকায় সন্ত্রাসী হামলায় বড়লেখার জয়নুল নিহত নৈস্বর্গিক সৌন্দর্য’র বাংলাদেশ টাইগারদের ত্রিদেশীয় সিরিজ জয় রাজধানীর বায়ুদূষণ রোধে ব্যর্থতায় হাইকোর্টের ক্ষোভ অপূর্ণই থেকে গেল প্রিয়াঙ্কার ইচ্ছা সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা:কবে কোন জেলায় হোটেলে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রীর লাশ, মিলছে না অনেক প্রশ্নের উত্তর! সন্তানের জন্য দুধ চুরি : দায় কার? রোযা:সুদৃঢ় ভিত্তির উপর সুচরিত্র গঠনের উপকরণ ছাত্রলীগের হাতে লাঞ্চিত নারী চিকিৎসক রোযার উদ্যেশ্য ও উপকারিতা বেসামাল নাইমুলঃ ক্ষমা প্রার্থনা রোজার উদ্দেশ্য রোযার সমৃদ্ধ ইতিহাস জুটির বিশ্ব রেকর্ড গড়ল ওয়েস্ট ইন্ডিজ গণফোরামের সাধারণ সম্পাদক রেজা কিবরিয়া সোমবার এসএসসি ও সমমানের ফল প্রকাশ আহলান সাহলান মাহে রামাদ্বান মওদুদ আহমদ হাসপাতালে ভর্তি সালাহউদ্দিনের দেশে ফেরা আটকে গেল ‘ফণী’ কখন কোথায় কিভাবে আঘাত হানতে পারে মনির উদ্দিন স্যার আর নেই পটুয়াখালীতে ‘ফণী’ আতঙ্ক: প্রস্তুত প্রশাসন কুষ্টিয়াজুড়ে ‘ফণী’ আতঙ্ক তীর, রূপচাঁদা, পুষ্টির তেল নিম্নমানের: ৫২ ব্র্যান্ডের পণ্যে ভেজাল হালদার খালে হাজার লিটার ফার্নেস ওয়েল, বিপর্যয়ের মুখে জীববৈচিত্র্য শমী’র বিরুদ্ধে ১’শ কোটি টাকার মানহানি মামলা বয়ফ্রেন্ড বিয়ে নাকচ করায় প্রেমিকার আত্মহত্যা! এবার মুখ খুললেন মিলার সাবেক স্বামী জব্দ হতে পারে ড. কামালের ব্যাংক অ্যাকাউন্ট! জামায়াতে কোন প্রভাব পড়বে না- ডা. শফিক মঞ্জুর নেতৃত্বে জামায়াতের সংস্কারপন্থীদের নতুন মঞ্চ! তরুণ প্রজন্মকে রাজনীতি সচেতন হতে হবে : শিক্ষামন্ত্রী ছাত্রদল: ৬০ ভাগ অছাত্র, ৮০ ভাগ অনিয়মিত