পুঁজিবাজারে পতন অব্যাহত

প্রকাশিত: ১২:১১ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ৯, ২০২০

পুঁজিবাজারে পতন অব্যাহত

প্রভাতবেলা ডেস্ক:

গত ৪ কার্যদিবসের মতো আজও পতন অব্যাহত রয়েছে। গতকাল ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) প্রায় ৭১ শতাংশ কোম্পানির দরপতনের ফলে প্রধান সূচকের ৫৩ পয়েন্ট পতন হয়েছে। বাকি দুই সূচকেরও বড় পতন হয়েছে। আগের কার্যদিবসের তুলনায় লেনদেনও কমেছে।

 

 

গতকাল লেনদেনের শুরুতে সূচক ঊর্ধ্বমুখী ছিল। কিন্তু ২০ মিনিটের মধ্যে বিক্রির চাপ বেড়ে গেলে নামতে থাকে সূচক। বেলা ১১টার দিকে আবার উঠার চেষ্টা করলেও ধীরে ধীরে সূচক নেমে যেতে থাকে। একই চিত্র দেখা যায় চিটাগং স্টক এক্সচেঞ্জেও (সিএসই)।

 

 

বাজার পর্যবেক্ষণ করে দেখা গেছে, গতকাল ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ৫৩ দশমিক শূন্য ৬ পয়েন্ট বা ১ দশমিক ২৩ শতাংশ থেকে কমে ২২৮ দশমিক ৩৬ পয়েন্টে, ডিএসইএস বা শরিয়াহ্ সূচক ১৯ দশমিক শূন্য ৯ পয়েন্ট বা ১ দশমিক ৯৬ শতাংশ কমে ৯৫৩ দশমিক ৮৮ পয়েন্টে এবং ডিএস৩০ সূচক ১৪ দশমিক ৮৮ পয়েন্ট বা ১ দশমিক শূন্য ৩ শতাংশ কমে ১ হাজার ৪২১ দশমিক ৩৮ পয়েন্টে অবস্থান করে।

 

 

৪ হাজার ২৩৬ কোটি টাকা কমে ডিএসইর বাজার মূলধন ৩ লাখ ২৬ হাজার ৪২৬ কোটি ৬১ লাখ ৬৫ হাজার টাকায় দাঁড়িয়েছে। ২৭৯ কোটি ৯৬ লাখ ২৯ হাজার টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট লেনদেন হয় যা আগের কার্যদিবসে ৩২৭ কোটি ৪৬ লাখ ১৭ হাজার টাকার ছিল। এ হিসাবে ৪৭ কোটি ৪৯ লাখ টাকার লেনদেন কমেছে।

 

 

এদিন ৯ কোটি ৯১ লাখ ৭৯ হাজার ৩৮০ শেয়ার এক লাখ ৫০৩ বার হাতবদল হয়েছে। লেনদেন হওয়া ৩৫১ কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের মধ্যে ৫১টির দর বেড়েছে, ২৪৯টির দর কমেছে এবং ৫১টি অপরিবর্তিত ছিল।

 

 

গতকাল টাকার অঙ্কে লেনদেনের শীর্ষে লাফার্জহোলসিম বাংলাদেশ উঠে আসে। কোম্পানিটির ১৩ কোটি ৯৯ লাখ টাকা লেনদেন হয় এবং ১ টাকা ৮০ পয়সা দর কমেছে। এরপর এডিএন টেলিকমের ৩ টাকা ৯০ পয়সা দর বেড়ে ১৩ কোটি ৩৩ লাখ টাকা, স্ট্যান্ডার্ড সিরামিকের ২৮ টাকা ৯০ পয়সা দর বেড়ে ১২ কোটি ৩৭ লাখ টাকা, ব্র্যাক ব্যাংকের ১ টাকা ৯০ পয়সা দর বেড়ে ১২ কোটি ২৩ লাখ টাকা, খুলনা পাওয়ারের ১ টাকা ৫০ পয়সা দর কমে ১০ কোটি ৬০ লাখ লেনদেন হয়।

 

 

এছাড়া নর্দান জুটের ৯ কোটি ৪১ লাখ, স্কয়ার ফার্মার ৮ কোটি ২৮ লাখ, বীকন ফার্মার ৬ কোটি ১৬ লাখ, ওয়েস্টার্ন মেরিন শিপইয়ার্ডের ৫ কোটি ২১ লাখ, পাইওনিয়ার ইন্স্যুরেন্সের ৪ কোটি ৭০ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়।

 

 

এদিকে ৯ দশমিক ৯৫ শতাংশ বেড়ে দর বৃদ্ধির শীর্ষে এডিএন টেলিকম উঠে আসে। ৫ দশমিক ২০ শতাংশ দর বেড়ে ২য় অবস্থানে উঠে এসেছে ন্যাশনাল ফিড মিল। অলিম্পিক ইন্ডাস্ট্রিজের ৩ দশমিক ৫২ শতাংশ, ব্র্যাক ব্যাংকের ৩ দশমিক ৩৩ শতাংশ, স্ট্যান্ডার্ড সিরামিকের ৩ দশমিক ২৬ শতাংশ, সিটি ব্যাংকের ২ দশমিক ৮৫ শতাংশ, ইউনাইটেড পাওয়ারের ২ দশমিক ৭৯ শতাংশ, ইয়াকিন পলিমারের ২ দশমিক ৭২ শতাংশ, প্রগতি ইন্স্যুরেন্সের ২ দশমিক ৪২ শতাংশ ও ম্যাকসন্স স্পিনিংয়ের দর ২ দশমিক ৩৮ শতাংশ বেড়েছে।

 

 

৯ দশমিক ১৭ শতাংশ দর কমে পতনের শীর্ষে মেঘনা পিইটি উঠে এসেছে। আনলিমা ইয়ার্নের ৮ দশমিক ৯৮ শতাংশ, বিচ হ্যাচারির ৮ দশমিক ৩৮ শতাংশ, নর্দান জুটের ৭ দশমিক ৪৯ শতাংশ, প্রাইম টেক্সের ৬ দশমিক ৭৮ শতাংশ, সিএপিএম আইবিবিএল মিউচুয়াল ফান্ডের ৬ দশমিক ৭৫ শতাংশ, মিথুন নিটিংয়ের ৬ দশমিক ৫৯ শতাংশ, এসএস স্টিলের ৬ দশমিক ৪৩ শতাংশ, প্রগতি লাইফের ৬ দশমিক ৩৩ শতাংশ এবং ডেল্টা স্পিনিংয়ের ৬ দশমিক ১২ শতাংশ দর কমেছে।

 

 

অন্যদিকে গতকাল সিএসইতে সিএসসিএক্স মূল্যসূচক ৭৫ দশমিক ১৬ পয়েন্ট বা দশমিক ৯৩ শতাংশ কমে ৭ হাজার ৮০৬ দশমিক শূন্য ৩ পয়েন্টে এবং সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ১২২ দশমিক ৭৭ পয়েন্ট বা দশমিক ৯৪ শতাংশ কমে ১২ হাজার ৮৮৭ দশমিক ৬৯ পয়েন্টে অবস্থান করে। সর্বমোট ২১৯ কোম্পানি এবং মিউচুয়াল ফান্ডের শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়। এর মধ্যে ৪৭টির দর বেড়েছে, ১৪৬টির দর কমেছে এবং ২৬টির অপরিবর্তিত ছিল।

 

 

এদিন সিএসইতে ১৪ কোটি ৫৩ লাখ ৫৪ হাজার ৪৬৬ টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট লেনদেন হয় যা আগের কার্যদিবসে ১৪ কোটি ৫৫ লাখ ৬৮ হাজার ৯৪১ টাকার ছিল। এ হিসাবে ১ কোটি ১৪ লাখ টাকার লেনদেন কমেছে।

 

 

সিএসইতে লেনদেনের শীর্ষে ব্র্যাক ব্যাংক অবস্থান করছে। কোম্পানিটির ৪ কোটী ৩৮ লাখ টাকার শেয়ার লেনিদেন হয়েছে। এর পরে অবস্থানগুলোতে থাকা এডিএন টেলিকমের ৩ কোটি ৯ লাখ টাকার, লাফাজহোলসিম বাংলাদেশের ৭৭ লাখ, লংকাবাংলা ফাইন্যান্সের ৩২ লাখ, আনলিমা ইয়ার্নের ২৭ লাখ, বেক্সিমকোর ২১ লাখ, ওয়েস্টার্ন মেরিন শিপইয়ার্ডের ২১ লাখ, স্কয়ার ফার্মার ১৬ লাখ, প্রিমিয়ার ব্যাংকের সাড়ে ১৬ লাখ, ফরচুন শুজের সাড়ে ১৫ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়।

 

 

প্রভাতবেলা/এমএ

  •  
  •  
  •  
  •  

সর্বশেষ সংবাদ