রঙ-তুলিতে সিলেটের ‘শাপলা’ দেখবে বিশ্ব

প্রকাশিত: ৭:৪৪ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১২, ২০২০

রঙ-তুলিতে সিলেটের ‘শাপলা’ দেখবে বিশ্ব

প্রভাতবেলা ডেস্ক:: সিলেটের জৈন্তাপুর উপজেলার ডিবির হাওরে চোখজুড়ানো লাল শাপলা বিচরণ পর্যটকদের মন কাড়ে। সংবাদমাধ্যমের কল্যাণে এই লাল শাপলার কথা ছড়িয়ে গেছে সারাদেশে। এবার সেই লাল শাপলার বিলের টানে ছুটে এলেন সুদূর জার্মানির চিত্রশিল্পী ক্লাউডিয়া।

 

জানা গেছে, জার্মানির চিত্রশিল্পী ক্লাউডিয়া, বাংলাদেশের নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের আর্টিকালচার বিভাগের প্রভাষক জুনায়েদ মোস্তফা ও রাশেদ কামাল রাশেদের সমন্বয়ে একটি দল গেল শুক্রবার আসে জৈন্তাপুরের লাল শাপলার বিলে।

 

এ দলটি রঙ-তুলির আঁচড়ে চিত্রকর্মে ফুটিয়ে তুলে লাল শাপলার মুগ্ধতা। এসব চিত্রকর্ম বিভিন্ন আন্তর্জাতিক প্রদর্শনীতে তুলে ধরা হবে। এ প্রসঙ্গে জার্মান চিত্রশিল্পী ক্লাউডিয়া সংবাদমাধ্যমকে বলেন, ‘লাল শাপলার বিল বাংলাদেশের দর্শনীয় স্থানগুলোর মধ্যে অন্যতম। এটি অনেক সুন্দর স্থান। লাল শাপলার অসাধারণ সৌন্দর্য, বিলের ওপর অতিথি পাখির উড়াউড়ি, সুর্যোদয় আর সূর্যাস্তের মায়ায় পরিবেশে অন্যরকম মুগ্ধতা এনে দেয়।’

 

তিনি বলেন, ‘আমি লাল শাপলার বিলের ১০টি চিত্রকর্ম তৈরি করেছি। এগুলো বিভিন্ন দেশে আন্তর্জাতিক প্রদর্শনীতে তুলে ধরবো।’ জার্মান এই চিত্রশিল্পী লাল শাপলার বিলে যাওয়ার সড়ক সংস্কারের তাগিদ দেন। এছাড়া বিল এলাকায় থাকা স্থাপনা সরানোর পরামর্শও দেন তিনি। নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের আর্টিকালচার বিভাগের প্রভাষক রাশেদ কামাল রাশেদ বিলের বিভিন্ন অংশে অবৈধভাবে থাকা দোকান সরিয়ে নিতে প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন।

 

জৈন্তাপুর পুরাকীর্তি ও পর্যটন উন্নয়ন সংরক্ষণ কমিটির সাধারণ সম্পাদ খায়রুল ইসলাম সংবাদমাধ্যমকে বলেন, লাল শাপলার বিল সংরক্ষণ প্রয়োজন। আগে বিলটি লিজ দেওয়া হয়েছিল, তা বাতিল করা হয়েছে। তবে বিলের প্রকৃত এলাকা এখনও নির্ধারণ করা হয়নি। প্রভাবশালীদের কবল থেকে বিলটি রক্ষা করতে প্রকৃত এলাকা নির্ধারণ করা জরুরি।

 

প্রভাতবেলা /১২-জানুয়ারি-২০/ তৌহিদ’জিহান

  •  
  •  
  •  
  •  

সর্বশেষ সংবাদ