করোনা আক্রান্ত কবিতার হৃদয়গ্রাহী স্ট্যাটাস

প্রকাশিত: ১১:১৫ অপরাহ্ণ, জুন ২৫, ২০২০

করোনা আক্রান্ত কবিতার হৃদয়গ্রাহী স্ট্যাটাস

প্রভাতবেলা প্রতিবেদক:  তিন মাস এর বেশী সময় ধরে করোনা রোগীর সেবায় নিয়োজিত । প্রথম শ্রেণির সাহসী করোনা যোদ্ধা। বরিশাল সরকারী শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজের সিনিয়র স্টাফ নার্স  কবিতা বিশ্বাস। অবশেষে নিজেই করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত।

গতকাল বুধবার  বুধবার করোনা ভাইরাস টেস্টের ফলাফলে কভিড -১৯ পজিটিভ রিপোর্ট এসেছে এই সেবা কর্মীর। এর আগে ২০জুন থেকেই তিনি করোনা উপসর্গ অনুভব করছিলেন।কাশি ও শরীর ব্যথা বাড়তে থাকায় ছুটি নেন কবিতা। টেস্টের জন্য স্যাম্পল দেন। অপ্রত্যাশিত হলেও কবিতাকে ছাড়েনি করোনা।  এখন রয়েছেন আইসোলেশনে।

এ পর্যন্ত নার্সিং সুপারিন্টেন্ডেন্ট ,ডেপুটি নার্সিং সুপারিন্টেন্ডেন্ট সহ বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ৭০ জনের করোনা ভাইরাস কভিড-১৯ পজিটিভ ধরা পড়েছে।

আইসোলেশনে থাকাবস্থায় কবিতা বিশ্বাস তাঁর টাইমলাইনে একটি স্ট্যাটাস আপলোড দেন ঘন্টা খানিক আগে। হৃদয়গ্রাহী আবেগঘন এই স্ট্যাটাস টি পাঠকদের জন্য হুবহু উপস্থাপন করলাম। কবিতা বিশ্বাস লিখেন:

“ ১৩৮২ বঙ্গাব্দে তিনবছর পুরো হয়নি গুটি-বসন্ত অক্টোপাসের মতো এতোটাই জড়িয়ে ধরেছিল যে আমার স্বর্গীয়া মা কলাপাতায় ঘরের বাহিরে তিনদিন রেখে দিয়েছিলেন! স্বর্গবাসী বাবা এবং অন্য বাড়ীর এক কাকা (স্বর্গীয় গোপাল বিশ্বাস) দুজনের সেবাশুশ্রূষাতে হয়তো আজও আছি শুধু নেই বাবা,মা,কাকা! নিজেদের গোয়ালের মাখন,ঘি খাইয়ে এবং সারা শরীরে মাখিয়ে দিতেন বাবা, এবং কাকা! মার টেনশন মেয়ে তো তাঁর ক্রোড়ে আর ফিরে পাবে না! মাঝে মধ্যেই মুক্তিযুদ্ধের বকুল কথা শুনাতেন ভাই -বোনদের কাছে টেনে, তখনই মুচকি হেসে কখনো বা কেঁদেকেঁদে বলতেন বাবা– গুটিবসন্ত হয়ে তুই অনেকটা কালো হয়েছিস নাকটিও অনেক blunt হয়ে ছে! গুটিবসন্তে নাকের শুধু ছিদ্র দুটোই ছিল শুনেছি!
অনেক কথামালা আজ মনে করিয়ে দিচ্ছে!

দূর্ভাগ্যবশত করোনা করুনা করল না! ভাগ্যিস আজ আমার একমাত্র ভালোবাসার ভরসাস্থল বাবা-মা দুজনেই পরলোকে! সৃষ্টি কর্তা সহায় হোন সবা ’’।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

সর্বশেষ সংবাদ