ফিটনেস পরীক্ষায় সাকিবের চমক

প্রকাশিত: ৩:৫১ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১১, ২০২০

ফিটনেস পরীক্ষায় সাকিবের চমক

মাঠে ময়দানে ডেস্ক:

আইসিসির দেয়া এক বছরের নিষেধাজ্ঞা কাটানোর পর মাঠে ফিরেছেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। নিষেধাজ্ঞার সময় কাটিয়েছেন পরিবার ও দেশ-বিদেশে ঘুরে ফিরে। তারপরও ফিটনেস পরীক্ষায় চমকে দিলেন এই অলরাউন্ডার।

বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট সামনে রেখে হওয়া এই ফিটনেস পরীক্ষায় ইতিমধ্যে অনেক ক্রিকেটার বেশ সফলভাবেই পার হয়েছেন। এমনকি দীর্ঘদিন জাতীয় দলের বাহিরে থাকা আব্দুর রাজ্জাক, মোহাম্মদ আশরাফুল ও শাহরিয়ার নাফিজ উত্তীর্ণ হয়েছেন। যদিও বাদ পড়েছেন ফিনিশার খ্যাত নাসির হোসেন ও এক সময়ে টেস্টে টপ স্পিনার সোহাগ গাজী।

এবার সবার শেষে ফিটনেস পরীক্ষা দিয়ে রীতিমতো তাক লাগিয়ে দিয়েছেন সাকিব। বিপ টেস্টে যার স্কোর ১৩ দশমিক ৭। যা ফিটনেস পরীক্ষায় সর্বোচ্চ নম্বর। এর আগের দুদিন সবাই পরীক্ষা দিয়েছেন, বাদ ছিলেন একমাত্র সাকিব।

সোম ও মঙ্গলবার প্রায় একশ’র বেশি ক্রিকেটার বিপ টেস্ট দেন। যেখানে সর্বোচ্চ ১৩ দশমিক ৬ স্কোর নিয়ে শীর্ষে ছিলেন কুমিল্লার পেসার মেহেদি হাসান। এবার তাকে টপকালেন সেরা অলরাউন্ডার।

এর আগে ৩৭৬ দিন ২২ গজের পিচ থেকে দূরে থাকার পর গত সোমবার (৯ নভেম্বর) প্রথম প্রিয় হোম অব ক্রিকেটে ফেরেন সাকিব আল হাসান। সেই যে ২০১৯ সালের ২৯ অক্টোবর লিখিত বক্তব্য পড়ে গেলেন, তারপর ফিরলেন এদিন। মাঠে নামার দুদিন পরই আজ ফিটনেস পরীক্ষায় সবাইকে ছাড়িয়ে গেলেন। দিলেন নিজের সক্ষমতার প্রমাণ।

বিসিবি সূত্রে জানাযায়, ফিটনেস পরীক্ষায় এবার মানদণ্ড ছিল ১১। অর্থাৎ এই নাম্বারের নিচে কেউ পেলে আসন্ন বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টে খেলার ছাড়পত্র পাবেন না তিনি। যে কাতারে কপাল পুড়েছে নাসির হোসেন, সোহাগ গাজী ও শুভাশীষ রায়ের। অথচ, তা খুব সহজেই উৎড়ে গেলেন বিশ্বের সেরা অলরাউন্ডার।

 

আরও পড়ুন: কাতার নয় নেপালকে নিয়ে ভাবছেন জেমি ডে

 

উল্লেখ্য, বিসিবির ঘরোয়া টি-টুয়েন্টি টুর্নামেন্ট বঙ্গবন্ধু কাপে খেলতে গত বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে কাতার এয়ারওয়েজের একটি ফ্লাইটে যুক্তরাষ্ট্র থেকে দেশে ফেরেন সাকিব। চলতি মাসের শেষ দিকে হবে এই টুর্নামেন্ট। এ টুর্নামেন্টের মধ্যদিয়ে টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে ৫ হাজার রানের মাইলফলক স্পর্শের সুযোগ রয়েছে সাকিবের সামনে। বাংলাদেশের প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে টি-টুয়েন্টিতে পাঁচ হাজারি ক্লাবে প্রবেশ করতে সাকিবের দরকার মাত্র ৩০ রান।

বাংলাদেশের সেরা তারকা সাকিব ৩০৮ ম্যাচে করেছেন ৪ হাজার ৯৭০ রান। এই রান করেছেন ঘরোয়া ক্রিকেট ও বিপিএল, আইপিএল, বিগ ব্যাশ, সিপিএল, পিএসএলের মতো ফ্র্যাঞ্চাইজি আসরে খেলে।

এদিকে সাকিব আন্তর্জাতিক ম্যাচে নামার আগেই একটি সুসংবাদও পান। বাঁহাতি তারকাকে ওয়ানডেতে সেরা অলরাউন্ডারের সিংহাসন ফিরিয়ে দিয়েছে আইসিসি। ওডিআই অলরাউন্ডার র‍্যাঙ্কিংয়ে দ্বিতীয়জন থেকে বেশ বড় ব্যবধানেই এগিয়ে আছেন সাকিব। তার রেটিং ৩৭৩।

যদিও নিষিদ্ধ করার পর আইসিসি ক্রিকেটের তিন ফরম্যাট থেকে সাকিবের নাম সেরা অলরাউন্ডারের তালিকা থেকে সরিয়ে নিয়েছিল।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
  • 8
    Shares

সর্বশেষ সংবাদ