বাঘের মাংসে পিকনিক!

প্রকাশিত: ৪:০৩ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১২, ২০২০

বাঘের মাংসে পিকনিক!

প্রভাতবেলা ডেস্ক:

 

শীত মানেই পিকনিক। বিভিন্ন সংগঠন এ সময়ে পিকনিকের আয়োজন করে থাকে। নির্দিষ্ট স্থানে গিয়ে মজাদার খাবার রান্না করে সবাই মেলে খেতে কার না ভালো লাগে? তাই বলে বাঘের মাংস! সত্যিই এমন অদ্ভুত কাণ্ড করল ভারতের আসামের অটল রঙঢালি এলাকার বাসিন্দারা।

 

 

একটি পূর্ণবয়স্ক চিতাকে পিটিয়ে মেরে তার মাংস দিয়ে ভুড়িভোজ করেছে তারা। ভারতীয় সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত খবরে জানা যায়, আসামের এই স্থানীয়রা চিতাবাঘের মাংস দিয়ে রীতিমতো পিকনিক করেছে।

 

 

জানা যায়, কয়েকদিন আগে আসামের অটল রঙঢালি এলাকায় পাঁচ জন মানুষের ওপর হামলা চালিয়েছিল একটি চিতাবাঘ। নদী পেরিয়ে অন্য গ্রামে ঢুকেও কিছু মানুষের ওপর হামলা চালায় হিংস্র এই জন্তু। এরপর গ্রামবাসীরা বাঘটিকে ঘিরে ফেলে। শুরুতে দূর থেকে ইট, পাথর মেরে বাঘটিকে দুর্বল করে দেন তারা। এরপর লাঠি দিয়ে পিটিয়ে মেরে ফেলে তাকে।

 

 

এখানেই শেষ নয়। চিতাবাঘ মারার উল্লাসে উৎসবে মেতে ওঠে গ্রামবাসীরা। মৃত বাঘের মাংস দিয়েই আয়োজন করে পিকনিকের। অবশ্য এমন ঘটনায় অবাক হয়েছেন আসামের বন অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা। ইতোমধ্যে গ্রামবাসীদের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। এ ঘটনায় জড়িতদের চিহ্নিত করতে তদন্তে নেমেছেন তারা।

 

 

এ বিষয়ে বন অধিদপ্তরের এক কর্মকর্তা জানান, নদী পার হয়ে ক্লান্ত হয়ে গিয়েছিল চিতাবাঘটি। সেই সুযোগেই তাকে গ্রামবাসীরা মেরে ফেলেছে। এর আগেও এমন ঘটনা ঘটেছিল। আসাম-নাগাল্যান্ড সীমানায় হাতি মেরে তার মাংস খেয়েছিল গ্রামবাসীরা।

 

 

প্রভাতবেলা/এমএ

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

সর্বশেষ সংবাদ