বিজয় দিবসে ফারহানা হৃদয়িনী’র একগুচ্ছ পঙক্তিমালা

প্রকাশিত: ৪:৩৫ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ১৬, ২০২৩

বিজয় দিবসে ফারহানা হৃদয়িনী’র একগুচ্ছ পঙক্তিমালা

★★ বিজয়ের দিন★★

১৬ই ডিসেম্বর আজ আমার বিজয়ের দিন,
আমার বাংলা এখন শত্রুমুক্ত স্বাধীন।
দিগন্তে উড়ছে দেখো লাল সবুজের পতাকা,
যেন সবুজ ঘাসের বুকে শহীদের রক্ত আঁকা।
আকাশে বাতাসে আজ হচ্ছে প্রতিধ্বনি,
কান পেতে শোন ঐ বিজয়ের বাণী।
বাংলাদেশে নিচ্ছি আজি স্বাধীনতার সু ঘ্রাণ,
কারন লাখো শহীদ দিয়ে গেছে তাদের প্রাণ।
আজ দিকে দিকে উল্লাসে মুখরিত জয়ধ্বনি,
জয় বাংলা আমার আলোকিত দিনের বাণী।
বিজয় আমার তোমার সবার উদ্দীপনায়,
বিজয়ের আনন্দে পূর্ণ হয়েছে দেশ আজ কানায় কানায়।
বিজয়ের দিনে হে মাতৃভূমি আমার,
তোমাকে জানাই রক্তিম সালাম।

 

 

★★মুক্তি যোদ্ধা★★

ধিকি ধিকি জ্বলছে আগুন বুকে,
চোখে টলমল এক কান্না।
বাতাসে মা- বোনেদের আর্তচিৎকার,
আর ক্যাম্পে হেসেছে পাকিস্তানী হায়েনা।
হাজার হাজার বাড়িঘর ও সুখস্বপ্ন,
পুড়ে গেছে যুদ্ধের নাশকতায়।
বাঙালির বেওয়ারিশ লাশ শকুন খেয়েছে,
আর রক্ত চুষেছে আল-বদর ও রাজাকার।
কত মুক্তিকামী মানুষের প্রাণ,
কেড়ে নিয়েছে পাকিস্তানী সেনারা।
শিরা- উপশিরায় দেশপ্রেমকে প্রবাহিত করে,
মুক্তিযুদ্ধে ছুটেছে বাংলা মায়ের দামাল ছেলেরা।
শুধু দেশের প্রতি ভালোবাসায় ছিল তাদের বল,
রুখতে পারেনি তাদের কোন রাজাকারের বিষাক্ত ছল।
দিকে দিকে আর্তচিৎকার আর আহাজারী শুনেছে,
মা-বাবা, ভাই-বোনের বুলেট বিদ্ধ লাশ কবর দিয়েছে।
শত শত্রুর প্রতিরোধ রুখতে পারেনি তাদের,
করতে পারেনি তাদের চেতনার ক্ষয়।
নিঃশ্বাসে বারুদের গন্ধ বুকে প্রত্যয়,
ছিলনা তাদের কোন প্রাণ হারাবার ভয়।
তাদের চেতনায় শুধু লাল সবুজের পতাকা উড়েছে,
তারা রক্তদিয়ে বাংলাদেশের মানচিত্র গড়েছে।
তারা অকুতোভয় মুক্তিযোদ্ধা,
তারা আমাদের বিজয়, আমাদের স্বাধীনতা এনেছে।

আরও পড়ুন  সাহিত্যে নোবেলজয়ী মার্কিন কবি লুইস গ্লুক

 

 

★★ নব অরুনিমা ★★

আমরা হতে পারিনি কোন বীর শ্রেষ্ঠ অথবা বীরঙ্গনা,
আমরা বাংলাদেশের মুক্তি যুদ্ধের, ইতিহাসের অংশ।
আমরা ভালোবাসি দেশ ও দেশের মানুষ,
ভালোবাসি জন্মভূমির প্রতিটি ধূলি কণা।
আমরা মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উদ্বীপ্ত,
আমরা বাংলা মায়ের জাগ্রত সেনা।
আমরা বাংলা মায়ের এমনই এক সন্তান,
যারা দেশকে ভালোবেসে দিতে চাই প্রাণ।
হে স্বাধীনতা, তোমার অস্তিত্বকে বিলীন করতে,
ওরা সন্ত্রাসবাদের আগুন জ্বালছে দিকে দিকে।
ওরা পরাধীনতার শেকল পরাতে বদ্ধপরিকর,
ষড়যন্ত্রে মেতেছে আজ রাজাকার আলবদর।
আজ ওরা ধ্বংসের বলীখেলায় উন্মত্ব,
সাধারন মানুষের রক্তচোষায় লিপ্ত।
ওদের ষড়যন্ত্রকে রুখতেই হবে,
আমরা স্বাধীনতার অস্তিত্ব বিলীন হতে দেবো না।
আমরা মনে দৃঢ় প্রত্যয় নিয়ে পথ চলবো।
আমরা শহীদের শেষ নিঃস্বাসের আকুতি বুকে লালন করছি,
আমরা লাখো পরিবার হারানোর ব্যাথা বুকে বেধে বেঁচে আছি।
আমরা এক আহত আর্তনাদ,
আমরা মুক্তি যোদ্ধাদের সন্তান।
আমরাই আনবো দেশে সোনালী প্রভাত,
হাসবে দেশ নব অরুনিমায়।

আরও পড়ুন  রাষ্ট্রীয় পদক বিক্রির হুমকি নির্মলেন্দুর

 

★★জানি আর ফিরবেনা★★

এই বাংলার মাটিতে, একদিন এসেছিলো,
মুক্তিকামী মানুষের সংঘর্ষের দিন,
বাংলার রাজপথ, মাঠ,ঘাট,বিল,
হয়েছিলো বাঙালীর রক্তে রঙীন।
জানি আর ফিরবেনা তারা,
সোনারোদ ঝরা বাংলার নদী তীরে।
স্বাধীনতার বীজ বুনেছিলো যারা,
বন্দীনি বাংলার কোমল বুকের পরে।
মুখে বিজয়ের গান, প্রাণে আহ্বান,
দেশকে ভালোবেসে দিয়ে গেছে প্রাণ।
এই বাংলার নদী-নালা, খাল -বিল,
প্রশান্তিতে উড়িছে দেখ কত গাঙচিল,
এতো মুক্তিকামী মানুষের বলীদান।
আমরা বাঙালী আমরা ভুলবো না,
কখনো তোমাদের রক্তের ঋন।
লাখো শহীদের প্রাণের বিনিময়ে,
পেয়েছি আজ আমরা বিজয়ের দিন।

 

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।

সর্বশেষ সংবাদ