যুবনেতা মকসুদকে গ্রেফতার কাপুরুষোচিত ও ন্যক্কারজনক

প্রকাশিত: ২:০০ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৬, ২০২২

যুবনেতা মকসুদকে গ্রেফতার কাপুরুষোচিত ও ন্যক্কারজনক

যুবনেতা মকসুদকে গ্রেফতার কাপুরুষোচিত ও ন্যক্কারজনক।

প্রভাতবেলা প্রতিবেদক♦ জাতীয়তাবাদী যুবদলের কেন্দ্রীয় সহ সভাপতি মোহাম্মদ নুরুল ইসলাম নয়ন বলেছেন,সিলেট জেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক মকসুদ আহমদকে গ্রেফতার কাপুরুষোচিত ও ন্যক্কারজনক ঘটনা। তারুণ্যদীপ্ত যুবদলের এ বলিস্ট নেতাকে গ্রেফতার আইনশৃংখলা বাহিনীর ‘বর্বর’ কান্ড।

তিনি বলেন, সরকারের বিরুদ্ধে তীব্র আন্দোলনের আশঙ্কায় মকসুদের মতো জাতীয়তাবাদী আদর্শের সৈনিকদের আটক করা শুরু হয়েছে। আমি যুবদল নেতা মকসুদকে গ্রেফতারে তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি এবং অবিলম্বে তার নিঃশর্ত মুক্তির জোর দাবি করছি।

বৃহস্পতিবার বিকেল ৩টায় ঐতিহাসিক রেজিষ্ট্রারী মাঠে সিলেট জেলা ও মহানগর যুবদলের উদ্যোগে জেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক মকসুদ আহমদকে গ্রেফতারের প্রতিবাদে ও নিঃশর্ত মুক্তির দাবীতে আয়োজিত বিক্ষোভ মিছিল পূর্ববর্তী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি উপরোক্ত কথাগুলো বলেন।

সমাবেশ শেষে বিশাল বিক্ষোভ মিছিল সিলেটের রেজিষ্ট্রারী মাঠ থেকে শুরু হয়ে নগরীর প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে  গিয়ে শেষ হয়।

সমাবেশে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে সিলেট জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট এমরান আহমদ চৌধুরী বলেন, বিরোধী কন্ঠকে স্তব্ধ করতে নির্যাতনের চরম পদক্ষেপ গ্রহণ করছে সরকার। গুম-বিচারবহির্ভূত হত্যা-মামলা-হামলা-নির্যাতন চালাচ্ছে।

সভাপতির বক্তব্যে সিলেট জেলা যুবদলের সভাপতি এডভোকেট মোমিনুল ইসলাম মোমিন বলেন, আজকে দেশে গণতন্ত্র নেই, মানুষের ভোটাধিকার নেই, কথা বলার অধিকার নেই। এজন্য সব গণতান্ত্রিক শক্তিকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে আন্দোলনের মাধ্যমে এদেরকে বিদায় করতে হবে। এর কোনো বিকল্প নেই।

সিলেট মহানগর যুবদলের সভাপতি শাহ নেওয়াজ বখত চৌধুরী তারেক বলেন, মিথ্যা মামলায় দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া ও ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে সাজা দেওয়া হয়েছে। কিন্তু মামলা-হামলা-নির্যাতন করে জাতীয়তাবাদী আদর্শকে দমিয়ে রাখা যাবে না। তিনি মকসুদের নিঃশর্ত মুক্তি দাবী জানান।

মহানগর যুবদলের সাধারণ সম্পাদক মির্জা মোঃ সম্রাট হোসেনের পরিচালনায় সমাবেশ ও মিছিলে উপস্থিত ছিলেন মহানগর বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক এমদাদ হোসেন চৌধুরী, জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক শামীম আহমদ, দক্ষিণ সুরমা উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক কোহিনুর আহমদ, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের আহ্বায়ক আব্দুল আহাদ খান জামাল, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের আহ্বায়ক আব্দুল ওয়াহিদ সোহেল, মহানগর যুবদলের আহ্বায়ক কমিটির সাবেক সদস্য আনোয়ার হোসেন মানিক, জেলা যুবদলের আহ্বায়ক কমিটির সাবেক সদস্য আখতার আহমদ, মহানগর যুবদলের আহ্বায়ক কমিটির সাবেক সদস্য তোফাজ্জল হোসেন বেলাল, জেলা যুবদলের আহ্বায়ক কমিটির সাবেক সদস্য আশরাফ উদ্দিন ফরহাদ, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সদস্য সচিব দেওয়ান জাকির, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের সদস্য সচিব আজিজুর রহমান আজিজ, জেলা যুবদলের আহ্বায়ক কমিটির সাবেক সদস্য এডভোকেট সাঈদ আহমদ, সাহেদ আহমদ চমন, কবির উদ্দিন, মিজানুর রহমান নেছার, লিটন আহমদ, অলি চৌধুরী, কয়েস আহমদ, জুনেদ আহমদ, রায়হান আহমদ, মতিউর রহমান আফজাল, আব্দুল মালেক, মাসুক আহমদ, এডভোকেট আব্দুল্লাহ আল মামুন, জেলা ছাত্রদলের সভাপতি আলতাফ হোসেন সুমন, সাধারণ সম্পাদক দিলোয়ার হোসেন দিনার ,সিনিয়র সহ সভাপতি এডভোকেট নজরুল ইসলাম সহ-সভাপতি মাসরুর রাসেল সহ সিলেট জেলা যুবদলের আওতাধীন ১৩ উপজেলা ও ৫টি পৌর এবং মহানগর যুবদলের আওতাধীন ২৭টি ওয়ার্ডের  নেতৃবৃন্দ সহ বিপুল সংখ্যক কর্মী সমর্থক উপস্থিত ছিলেন।

 

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

সর্বশেষ সংবাদ