শীত মানে পাটিসাপটা পিঠা

প্রকাশিত: ৫:২৯ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ২৮, ২০২১

শীত মানে পাটিসাপটা পিঠা

লাইফস্টাইল ডেস্ক:

বাংলার ঐতিহ্যের সাথে গভীরভাবে জড়িয়ে আছে পিঠা। আর শীতকাল মানেই হলো নানা ধরনের পিঠার আয়োজন, রয়েছে স্বাদেও ভিন্নতা। কারো কারো কাছে পছন্দ মিষ্টি স্বাদের পিঠা আবার কারো কাছে প্রিয় ঝাল স্বাদের পিঠা। তবে সব থেকে বেশি জনপ্রিয় হলো মিষ্টি পিঠা গুলোই। আর মিষ্টি পিঠার নাম নিলে প্রথমেই হয়তো মাথায় আসে পাটিসাপটা পিঠার নাম।

অনেকের খেতে ইচ্ছে করলেও ভালো করে তৈরি করতে না পারার কারণে খাওয়া থেকে বঞ্চিত হতে হয় এ সুস্বাদু পিঠা থেকে। কিন্তু খুব সহজেই তৈরি করে ফেলা সম্ভব।

পিঠাটি প্রস্তুত করতে লাগছে, ময়দা, চালের আটা, চিনি, দুধ, গুড়ো দুধ, সুজি, গুড়, নারিকেল, ঘি এবং এলাচ। উপকরণ গুলোকে নিজের মতো করে কম বেশি করে নেওয়া যাবে।

প্রথমে পিঠার ভেতরের মিশ্রণটিকে তৈরি করে নিতে হবে। এ মিশ্রণটিকে কেউ কেউ পুর আবার কেউ ক্ষীরসা বলেন।

মিশ্রণটি তৈরি করতে একটা প্যানে মিহি করা নারিকেল দিয়ে হালকা করে ভেঁজে নিতে হবে। নারিকেল সোনালি রঙ ধারণ করলেই তাতে গুড় মিশিয়ে নিতে হবে। এক্ষেত্রে নিজের যেমন মিষ্টি পছন্দ সেই পরিমাণ গুড় দিতে হবে। গুড় গলে গেলে তাতে ধীরে ধীরে ছোট চামচের সাহায্যে তরল দুধ মেশাতে হবে। মিশ্রণটিকে খুব বেশি শক্ত অথবা নরম করা যাবেনা। প্রস্তুত হয়ে গেলে নামিয়ে ঠাণ্ডা হতে দিতে হবে।

এবারে পিঠা বানানোর পালা। তার জন্য একটি শুকনো পাত্রে আটা, ময়দা, সুজি, গুড়ো দুধ মিশিয়ে তাতে ধীরে ধীরে তরল দুধ ও চিনি মেশাতে হবে। রুটি বানানোর মতো করে একটা গোলা তৈরি করে নিতে হবে। তারপর খুব মোটাও না আবার পাতলাও না এমন করে রুটি বেলে নিতে হবে।

এবারে একটা নন স্টিকি প্যানে হালকা করে ঘি লাগিয়ে নিতে হবে। একটি রুটি দিয়ে এক পাশ ভালোভাবে ভেঁজে নিয়ে আর একপাশে উল্টিয়ে দিতে হবে। এখন পূর্বে তৈরি করে রাখা মিশ্রণটিকে একটা চামচের সাহায্যে রুটির ভেতরে দিতে হবে। দেওয়ার পরে রুটিটি পেঁচিয়ে রোল করে নিতে হবে।

সাবধানে এপাশ ওপাশ করে হালকা করে ভেঁজে নিতে হবে। ভাঁজা হয়ে গেলে নামিয়ে নিয়ে পরিবেশন করতে হবে।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

সর্বশেষ সংবাদ