শ্বাসকষ্টে রিকশাচালকের স্ত্রী, অক্সিজেন নিয়ে হাজির পুলিশ

প্রকাশিত: ৬:৪৭ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ২৮, ২০২১

প্রতিনিধি, চট্টগ্রাম:

অক্সিজেন কেনার সামর্থ্য নেই গরিব রিকশাচালক খলিল মিয়ার। অথচ প্রচণ্ড শ্বাসকষ্টে ঘরে কাতরাচ্ছিলেন তার স্ত্রী জুলেখা (৪০)। রাত সাড়ে ৯টার দিকে জুলেখার শ্বাসকষ্ট শুরু হলে অক্সিজেন মাত্রা ৮৩ তে নেমে আসে। ডাক্তার অক্সিজেন দেয়ার পরামর্শ দেয়। কিন্তু অক্সিজেন কেনার সামর্থ্য নেই তার। তবে লোকে মুখে শুনেছেন পুলিশের কাছে গেলে ফ্রিতে পাবেন অক্সিজেন সিলিন্ডার। সেই আশায় ফোন দিলেন সিএমপির ডবলমুরিং থানায়। পুলিশও তার ফোন পেয়ে দ্রুত অক্সিজেন সিলিন্ডার নিয়ে হাজির হয়ে যায় তার বাসায়। অক্সিজেন পেয়ে এখন সুস্থ আছেন জুলেখা।

মঙ্গলবার রাতে চট্টগ্রাম নগরীর আগ্রাবাদের নাজিরপুল এলাকায় এই ঘটনাটি ঘটে।

 

এ বিষয়ে ডবলমুরিং থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মহসীন বলেন, কমিশনার স্যারের নির্দেশে করোনাকালে আমরা মাঠে থেকে জনগণের পাশে ত্রাণ, ইফতার ও সেহেরি বিতরণ, মাস্ক বিতরণসহ সচেতনতামূলক কাজ করছি। উনার আরেকটি উদ্যোগ হলো, নগরের কোনো বাসিন্দা যাতে টাকা অভাবে বা জরুরি প্রয়োজনে অক্সিজেনের অভাবে শ্বাস নিতে কষ্ট না পান। সে লক্ষ্যে চালু হওয়া সিএমপির অক্সিজেন ব্যাংক থেকে আমরা সেবা দিয়ে যাচ্ছি। এমনই একজন রিকশা চালক তার স্ত্রীর অক্সিজেনের প্রয়োজনের কথা জানিয়ে ফোন করলে আমরা নিজেদের গাড়িতে করে সিলিন্ডার পাঠিয়ে তা রোগীকে লাগিয়ে দিয়েছি। রোগী যথাসময়ে অক্সিজেন পাওয়ায় এখন সুস্থ আছেন।

 

উল্লেখ্য, গত ২১ এপ্রিল থেকে করোনা ভাইরাস সংক্রমণের দ্বিতীয় ধাপ মোকাবিলায় রোগীদের শ্বাস নিতে উদ্যোগ নেয় চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ (সিএমপি)। প্রতিটি থানায় তিন থেকে চারটি অক্সিজেন ভর্তি সিলিন্ডার নিয়ে গড়ে তোলা হয়েছে ‘অক্সিজেন ব্যাংক’। কোভিড ১৯ আক্রান্ত নগরবাসীর সহযোগিতায় প্রতিটি থানায় এ অক্সিজেন ব্যাংক গড়ে তোলা হয়। যেকোনো ব্যক্তি জরুরি প্রয়োজনে সিএমপির থানায় রাখা অক্সিজেন সিলিন্ডার ব্যবহার করতে পারবেন। অক্সিজেন শেষ হয়ে গেলে সংশ্লিষ্ট থানায় যোগাযোগ করে পুনরায় সেই সিলিন্ডার রিফিলও করা যাবে।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
  • 28
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    28
    Shares

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ