সাবেক মন্ত্রী এম এ হকের মৃত্যুবার্ষিকী আজ

প্রকাশিত: ১০:৪৮ পূর্বাহ্ণ, এপ্রিল ৬, ২০২১

সাবেক মন্ত্রী এম এ হকের মৃত্যুবার্ষিকী আজ

প্রভাতবেলা ডেস্ক:

সাবেক ভূমি প্রশাসন ও ভূমি সংস্কার মন্ত্রী এম এ হকের মৃত্যুবার্ষিকী আজ। একাধারে তিনি উচ্চ পদস্থ পুলিশ কর্মকর্তা, লেখক, দারিদ্র্য বিমোচনের প্রবক্তা, বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব ইন্টারন্যাশনাল রিক্রুটিং এজেন্সিসের (বায়রা) প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি, পুলিশ ওয়েলফেয়ার কো-অপারেটিভ সোসাইটির (পলওয়েল) প্রতিষ্ঠাতা, জালালাবাদ অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি ও বিভিন্ন জনহিতকর প্রতিষ্ঠানের প্রতিষ্ঠাতা। আজ তার ২৫তম মৃত্যুবার্ষিকী।

 

সিলেটের কৃতি সন্তান এম এ হক ১৮১৯ সালের ১ জানুয়ারী জকিগঞ্জের কাজলসার ইউনিয়নের কামালপুর গ্রামের এক সম্ভান্ত্র মূসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। জনগণের কাছে ‘হক সাব’ বা ‘বাঘা হক’ নামে খ্যাত ছিলেন তিনি। তার পিতা হাজী মোহাম্মদ সবজান আলী ও মাতা সকিনা খাতুন।

 

কর্মজীবন যখন যেখানে গেছেন পেশাগত দায়িত্বের পাশাপাশি সমাজ উন্নয়নে বহুমুখী আবদান রেখেছেন তিনি। নোয়াখালীতে তিনি প্রতিষ্ঠা করেন প্রাইমারী স্কুল, মসজিদ ও মক্তব। নোয়াখালী পুলিশ লাইন পার্ক, ফেনী পুলিশ ক্লাব। রংপুর প্রতিষ্ঠা করেন প্রইমারী স্কুল, পুলিশ লাইব্রেরী, ডেইরী ফার্ম, টাউন হল। ময়মনসিংহে প্রতিষ্ঠা করেন প্রাইমারী স্কুল ও পুলিশ কেন্টিন। ঢাকায় প্রতিষ্ঠা করেন পুলিশ ক্লাব (১৯৫৭), রাজারবাগ পুলিশ ক্লাব (১৯৫৮), পুলিশ কো অপারেটিভ সোসাইটি (১৯৬০), সাপ্তাহিক ইংরেজী সংবাদ ম্যাগাজিন দ্য ডিটেকটিভ (১৯৬০)। পুলিশ প্রশাসেনের নিজস্ব অর্থনৈতিক উন্নয়নের জন্য পলওয়েল প্রিন্টিং প্রেস (১৯৬২), পলওয়েল শপিং সেন্টার (১৯৬৩), জোনাকী সিনেমা হল (১৯৬২) ইত্যাদি।

 

সরকারী চাকুরী থেকে অবসর গ্রহণের পর তিনি স্বল্প সময়ের মধ্যে একজন সফল ব্যবসায়ী হিসেবে প্রতিষ্ঠা পান। ১৯৭০ সালে তিনি ঢাকায় প্রতিষ্ঠা করেন দেশের প্রথম প্রাইভেট হাসপাতাল ‘আরোগ্য’। এ ছাড়া প্রতিষ্ঠা করেন ‘দিলকুশা লায়ন্স ক্লাব’ (১৯৭৪)।

 

১৯৭৯ সালে তিনি নির্দলীয় প্রার্থী হিসেবে সিলেট-৫ (জকিগঞ্জ-কানাইঘাট) আসনের এমপি নির্বাচিত হওয়ার মাধ্যমে তাঁর প্রত্যক্ষ রাজনীতির সূচনা। তিনি ১৯৮৪-৮৫ সালে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের ভূমি প্রশাসন ও ভূমি সংস্কারমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেন। জনদলের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি (১৯৮৫-৮৬) এম এ হক ১৯৮৭ সালে রাজনীতি থেকে অবসর গ্রহণ করেন।

 

মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে নেওয়া সব কর্মসূচি করোনার কারণে স্থগিত করা হয়েছে। বাতিল করা হয়েছে এম এ হক স্মৃতি পরিষদের অনুষ্ঠানও।

 

তার বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনায় দোয়া করার জন্য মরহুমের আত্মীয়-স্বজন ও শুভানুধ্যায়ীদের প্রতি এম এ হক ফাউন্ডেশন এবং পরিবারের পক্ষ থেকে অনুরোধ জানানো হয়েছে।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
  • 16
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    16
    Shares

সর্বশেষ সংবাদ