সুমী শারমীনের নতুন গান ‘চল বেঁচে থাকি’

প্রকাশিত: ১:৩০ অপরাহ্ণ, আগস্ট ২৮, ২০২৩

সুমী শারমীনের নতুন গান ‘চল বেঁচে থাকি’

আনন্দ ঝর্ণা ডেস্ক:

সুমী শারমীন মাত্র সাড়ে চার বছর বয়স থেকে ১১ বছর পর্যন্ত নিরবিচ্ছিন্নভাবে ওস্তাদ সাইমুদ আলী খাঁন, ওস্তাদ ওমর ফারুক, ওস্তাদ আজাদ রহমান, শ্রী মঞ্জুশী রায়, পণ্ডিত অমরেশ রায় চৌধুরীর কাছে বেনারেস ঘরানায় ক্লাসিকাল ধ্রুপদে তালিম নেন।

 

নতুন কুঁড়িতে চ্যাম্পিয়নসহ জাতীয় পর্যায়ে সংগীতের বিভিন্ন বিষয়ে প্রথম হয়ে ১১টি স্বর্ণপদক অর্জন করেন এ শিল্পী। ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজ ঢাকায় ছাত্রী থাকা অবস্থায় প্লেব্যাক, জিঙ্গেলসহ বিভিন্ন চ্যানেলে সংগীত পরিবেশন করে আসছেন।

 

প্রথম প্লেব্যাক করার সৌভাগ্য হয় দেশবরেণ্য গুণী সুরকার সত্য সাহার হাত ধরে মাত্র সাত বছর বয়সে। ফোয়াদ নাসের বাবুর হাত ধরে জিঙ্গেলে নাম লেখান তিনি। তারপর আর ফিরে তাকাতে হয়নি তাকে, বাপ্পা মজুমদার, রিপন খানসহ একাধিক গুণী মেধাবী শিল্পীদের সঙ্গে গান করার পাশাপাশি নামকরা বিজ্ঞাপনের কণ্ঠদাতা সুমী শারমীন।

 

১৯৯৪ সালে তার প্রথম মৌলিক গানের একক অ্যালবাম প্রকাশিত হয়। দেশের বাইরে দীর্ঘদিন উচ্চশিক্ষার জন্য পাড়ি জমান অস্ট্রেলিয়ায়। সেখানেও থেমে থাকেননি সুমী। মেধাবী এ শিল্পী আন্তর্জাতিক ব্যান্ডে মেইন ভোকালিস্ট হিসেবে বিভিন্ন দেশে সংগীত পরিবেশন করেন। ব্রিসবেন রেডিওতে প্যানেল অপারেটর, ব্রডকাস্টিং, প্রেজেন্টার হিসেবে চাকরি করে সুনামের সঙ্গে সাত বছরের লাইসেন্স প্রাপ্ত হন।

আরও পড়ুন  লিবিয়ায় প্রবাসী বাংলাদেশিদের সতর্ক থাকার পরামর্শ

 

দেশে ফিরে হাসান আবিদুর রেজা জুয়েলের সঙ্গে গানচিল মিউজিক থেকে মিউজিক ভিডিওসহ মৌলিক গান প্রকাশিত হয় ২০২০ সালে। এরপর ২০২২ এ সুজন আরিফের সঙ্গে আরেকটি মৌলিক গান প্রকাশিত হয় এ শিল্পীর।

 

এবছর শিল্পী সুমী শারমীন বাংলাদেশ সরকারের জয়িতা অন্মেষণে শ্রেষ্ঠ জয়ীতা পদক অর্জন করেন। গানের পাশাপাশি তিনি লেখালেখির সঙ্গে জড়িত। এ পর্যন্ত তার আন্তর্জাতিক জার্নালসহ একক বই ১৮টি। তিনি জাতীয় পর্যায়ে স্বীকৃত গীতিকার হিসেবে বিভিন্ন মাধ্যমে কাজ করে যাচ্ছেন।

 

বাংলাদেশ বেতার ঢাকা এবং বাংলাদেশ টেলিভিশনে সুমী শারমীন উচ্চাঙ্গসংগীত, নজরুলসংগীত, আধুনিক গানের তালিকাভুক্ত শিল্পী। শত ব্যস্ততার মাঝেও গানের সঙ্গেই বসবাস করছেন এ শিল্পী।

 

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।

সর্বশেষ সংবাদ