হার এড়াতে পারবে কি বাংলাদেশ?

প্রকাশিত: ৬:২০ অপরাহ্ণ, মে ২, ২০২১

হার এড়াতে পারবে কি বাংলাদেশ?

মাঠে ময়দানে ডেস্ক:

পাল্লেকেলেতে শ্রীলংকার বিপক্ষে দ্বিতীয় টেস্টে হার এড়াতে পারবে বাংলাদেশ? টেস্টের চতুর্থ দিন শেষে হার এড়ানোর সমীকরণ আরও কঠিন হয়ে গেছে মুমিনুল হকের দলের। আলোকস্বল্পতার কারণে দিনের ১২ ওভার বাকি থাকতে যখন আম্পায়াররা খেলা শেষ ঘোষণা করলেন দ্বিতীয় ইনিংসে বাংলাদেশের স্কোর তখন ১৭৭/৫। স্বীকৃত ব্যাটারদের অপরাজিত আছেন কেবল এক লিটন দাস। ম্যাচ বাঁচাতে আগামীকাল ম্যাচের পঞ্চম দিনের পুরোটা সময় ব্যাট করতে হবে বাংলাদেশকে। জিততে হলে করতে হবে ২৬০ রান। শ্রীলংকান স্পিনাররা যেভাবে টার্ন পাচ্ছেন তাতে কাজ দুটি সাঁতরে সাগর পারি দেওয়ার মতোই কঠিন!

 

ম্যাচের প্রথম দুই দিন উইকেট থেকে সেভাবে সুবিধা পাননি বোলাররা। সেই সুযোগ কাজে লাগিয়ে প্রথম ইনিংসে রানের পাহাড় গড়েছিল শ্রীলংকা। পরে অভিষিক্ত স্পিনার প্রবীন জয়াবিক্রমার স্পিন বিষে মাত্র ২৫১ রানে গুটিয়ে গিয়ে প্রথম ইনিংসে ২৪২ রানে পিছিয়ে পড়ে বাংলাদেশ। সেখান থেকে ঘুরে দাঁড়াতে হলে দ্বিতীয় ইনিংসে দ্রুত গুটিয়ে দিতে হতো শ্রীলংকাকে। কিন্তু স্পিনবান্ধব উইকেটে সেটা করতে পারেননি বাংলাদেশের দুই স্পিনার তাইজুল ইসলাম ও মেহেদি হাসান মিরাজ।

 

তাইজুল পাঁচ উইকেট পেয়েছেন ঠিকই, কিন্তু তাতে কাজের কাজটি হয়নি। আজ ২ উইকেটে ১৭ রান নিয়ে চতুর্থ দিনের খেলা শুরু করতে নামা শ্রীলংকা শুরু থেকেই ওয়ানডে গতিতে রান তুলতে চেয়েছে। তাইজুল-মেহেদিরা লংকানদের লাগাম টেনে ধরতে পারেননি।

অধিনায়ক দিমুথ করুনারত্নের ৬৬ ও ধনঞ্জয়া ডি সিলভার ৪১ রানের কল্যাণে ৯ উইকেটে ১৯৪ রান তুলে লাঞ্চের পরপর দ্বিতীয় ইনিংস ঘোষণা করে শ্রীলংকা। যাতে দুই ইনিংস মিলিয়ে বাংলাদেশের সামনে লিড দাঁড়ায় ৪৩৭। টেস্ট ইতিহাসে অতীতে চতুর্থ ইনিংসে এতো রান তাড়া করে জিততে পারেনি কোনো দল। চতুর্থ ইনিংসে সর্বোচ্চ ২১৮ রান তাড়া করে জিততে পেরেছে বাংলাদেশ। কঠিন এই লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে শুরুতেই বড় বিপদে পড়ে বাংলাদেশ। দুই টেস্ট মিলিয়ে আগের তিন ইনিংসেই বাংলাদেশকে দারুণ সূচনা এনে দেওয়া তামিম ইকবাল ফিরে যান শুরুতেই।

দলীয় ৩১ রানের মাথায় ব্যক্তিগত ২৪ রানে আউট হয়েছেন তামিম। ফেরার আগে ২৬ বল খেলে ৩টি চার ১টি ছয়ে ২৪ রান করে ফেরেন বাংলাদেশের তারকা ওপেনার। তারপর তরুণ সাইফ হাসান বেশ ভালোই খেলছিলেন। কিন্তু ৪৬ বলে ৩৪ রান করে অপ্রয়োজনীয় এক শট খেলে ফিরে গেলেন তরুণ তারকা। প্রথম টেস্টে দারুণ এক সেঞ্চুরি করা আরেক তরুণ নাজমুল হোসেন শান্তও বেশিদূর এগুতে পারেননি। প্রবীন জয়াবিক্রমার অফ স্টাম্পের বাইরে পড়া বল বাঁক নিয়ে নাজমুলের স্ট্যাম্প ভেঙে দিয়েছে। তরুণ সাইফকেও ফিরিয়েছেন অভিষিক্ত জয়াবিক্রমা।

 

এরপর যাদের দিকে তাকিয়ে ছিল বাংলাদেশ সেই অধিনায়ক মুমিনুল হক ও মুশফিকুর রহিমকে চা বিরতির পরপরই হারিয়েছে বাংলাদেশ। মুমিনুল ৪৮ বল খেলে ৪টি চারে ব্যক্তিগত ৩২ রানের মাথায় যখন রমেশ মেন্ডিসের বলে সরাসরি বোল্ড হলেন বাংলাদেশের রান তখন ১৩৪। মুশফিকুর রহিম আউট হয়েছেন ৪০ রান করে। দলীয় ১৭১ রানের মাথায় মুশফিককে হারায় বাংলাদেশ।

তারপর বিপদে পড়া বাংলাদেশকে আরও চেপে ধরেছিল শ্রীলংকা। মেহেদি হাসান মিরাজ আর লিটন দাসকে বারবার পরাস্ত করছিলেন শ্রীলংকান স্পিনাররা। তার মধ্যেই আলোকস্বল্পতার কারণে বন্ধ হয়ে যায় খেলা। দিন শেষে ১৪ রানে অপরাজিত লিটন। তার সঙ্গে ৪ রানে ব্যাট করছেন মেহেদি। প্রথম ইনিংসে ছয় উইকেট পাওয়া অভিষিক্ত স্পিনার জয়াবিক্রমা দ্বিতীয় ইনিংসে দুই উইকেট পেয়েছেন। মেন্ডিস তুলে নিয়েছেন তিনটি উইকেট।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

সর্বশেষ সংবাদ