কুলাউড়ায় নির্বাচনী আচরণবিধি ভঙ্গ, ১৬ প্রার্থীকে জরিমানা

প্রকাশিত: ১:৩৭ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ৫, ২০২১

কুলাউড়ায় নির্বাচনী আচরণবিধি ভঙ্গ, ১৬ প্রার্থীকে জরিমানা

প্রতিনিধি, কুলাউড়া:

মৌলভীবাজারের কুলাউড়া পৌরসভা নির্বাচনে অংশগ্রহণকারী মেয়র ও কাউন্সিলরসহ ১৬ প্রার্থীকে নির্বাচনী আচরণবিধি ভঙ্গ করায় মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে ৭৭ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। এর মধ্যে বর্তমান মেয়রসহ ৪ জন মেয়র প্রার্থী ও ১২ জন কাউন্সিলর প্রার্থী রয়েছেন।

গতকাল সোমবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় মৌলভীবাজার জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের নেজারত (ডেপুটি কালেক্টর) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. আরিফুল ইসলামের নেতৃত্বে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে আচরণবিধি ভঙ্গ করায় ২ জন মেয়র প্রার্থী ও ৩ জন কাউন্সিলর প্রার্থীকে জরিমানা করা হয়। এর আগে রবিবার (৩ জানুয়ারি) রাত সাড়ে ৭টায় মৌলভীবাজার জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট তানভীর হোসেনের নেতৃত্বে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে ২ জন মেয়র প্রার্থী ও ৯ জন কাউন্সিলর প্রার্থীকে জরিমানা করা হয়।

উপজেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা যায়, উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও সহকারী রিটার্নিং অফিসার মো. আহসান ইকবাল ও অফিস সহকারী কাজী মো. আনোয়ার হোসেনসহ কুলাউড়া থানা পুলিশের সহযোগিতায় পৌরসভার বিভিন্ন ওয়ার্ডে দুইদিন ধরে মোবাইল কোর্টের অভিযান পরিচালনা করেন সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট তানভীর হোসেন ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. আরিফুল ইসলাম। সোমবারের অভিযানকালে বর্তমান মেয়র ও আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী শফি আলম ইউনুছকে (নারিকেল গাছ) নারিকেল গাছের জীবন্ত প্রতীক ব্যবহার করে তার কর্মী-সমর্থকরা প্রচারণা চালাচ্ছেন ও তার নির্বাচনী ক্যাম্পে জীবন্ত প্রতীক রাখার অভিযোগে ১০ হাজার টাকা, বিএনপির প্রার্থী ও সাবেক মেয়র কামাল উদ্দিন আহমদ জুনেদকে (ধান) ধানের জীবন্ত প্রতীক দিয়ে সিএনজি অটোরিকশা দিয়ে প্রচারণা চালানোর অভিযোগে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এছাড়া পৌরসভার ২ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী আব্দুল কুদ্দুসকে (উটপাখি) দেয়ালে পোস্টার সাঁটানো ও ককশিট দিয়ে উটপাখির প্রতীকে আলোকসজ্জার অভিযোগে ৪ হাজার টাকা, ৭ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী ও বর্তমান কাউন্সিলর মো. হারুনুর রশীদকে (পানির বোতল) গাছে অবাধে পোস্টার সাঁটানো ও নির্বাচনী ক্যাম্পে পোস্টার সাঁটানোর অভিযোগে ৫ হাজার টাকা ও অহিদ বখ্শ মান্নাকে (গাজর) তার প্রতীকে আলোকসজ্জা করার অভিযোগে ৫ হাজার টাকাসহ মোট ৫ জন প্রার্থীকে ৩৪ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

এর আগে রবিবার রাতে একই গাড়িতে একাধিক মাইক ব্যবহার, বিভিন্ন স্থানে নির্দিষ্ট সাইজের চেয়ে অতিরিক্ত সাইজের পোস্টার ব্যবহার ও দোকানপাটসহ বিভিন্নস্থানে স্টিকার লাগানোর অপরাধে দুই জন মেয়র প্রার্থী ও ৯ জন কাউন্সিলর প্রার্থীকে মোট ৪৩ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। যাদের বিরুদ্ধে জরিমানা করা হয়েছে তারা হলেন- মেয়র প্রার্থী সিপার উদ্দিন আহমদ (নৌকা) ৮ হাজার টাকা ও স্বতন্ত্র প্রার্থী শাজান মিয়া (জগ) ৮ হাজার টাকা, ১ নং সংরক্ষিত আসনের মহিলা কাউন্সিলর প্রার্থী সুফিয়া বেগম চৌধুরী ৩ হাজার টাকা, ২ নং সংরক্ষিত আসনের মহিলা কাউন্সিলর প্রার্থী রাজিয়া সুলতানা চৌধুরী ৩ হাজার টাকা ও রেহানা পারভিন ২ হাজার টাকা, ৩ নং সংরক্ষিত আসনের মহিলা কাউন্সিলর প্রার্থী নার্গিস আক্তার ২ হাজার টাকা ও সুমাইয়া রহমান ৩ হাজার টাকা, ৩ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর প্রার্থী কামাল আহমদ ৩ হাজার টাকা, ৫ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর প্রার্থী জহির খান ৩ হাজার টাকা ও হারুনুর রশীদ ভূঁইয়া ৫ হাজার টাকা এবং ৩নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর প্রার্থী জহিরুল ইসলাম খান ৩ হাজার টাকাসহ মোট ১১ জন প্রার্থীকে ৪৩ হাজার টাকা অর্থদণ্ড করা হয়।

কুলাউড়া উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও সহকারী রিটার্নিং অফিসার মো. আহসান ইকবাল বলেন, মনোনয়ন জমাকালীন সময় ও প্রতীক বরাদ্দের দিন সকল প্রার্থীকে আচরণবিধি মেনে চলার বিষয়ে কঠোরভাবে সতর্ক করা হয়েছিল। কিন্তু অনেক প্রার্থী আচরণবিধি ভঙ্গ করেছেন। তাই মোবাইল কোর্টের অভিযান পরিচালনা করা করে জরিমানা আদায় করা হয়েছে। নির্বাচনের পূর্ব মুহূর্ত পর্যন্ত এ ধরনের অভিযান অব্যাহত থাকবে।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
  • 4
    Shares

সর্বশেষ সংবাদ