পারস্য সম্রাটের সম্মানে নির্মিত তোরণ, ইতিহাসের নীরব সাক্ষী

প্রকাশিত: ১০:১৫ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ৬, ২০২০

পারস্য সম্রাটের সম্মানে নির্মিত তোরণ, ইতিহাসের নীরব সাক্ষী

পারস্য সম্রাটের সম্মানে নির্মিত তোরণ, ইতিহাসের নীরব সাক্ষী।

সময় ১৯৫১ সালের ফেব্রুয়ারী মাস। ইরানী রয়েল এয়ার ফোর্সের একটি বিমান শমসেরনগর এসে অবতরণ করলো। বিমান থেকে নেমে আসলেন পারস্য সম্রাট রেজা শাহ পাহলবী।

 

 

 

সাথে পাকিস্তানের তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী ও পরবর্তীতে গভর্ণর জেনারেল খাজা নাজিম উদ্দিন ,পাকিস্তান সেনাবাহিনীর প্রধান ও পরবর্তীতে পাকিস্তানের প্রথম প্রেসিডেন্ট জেনারেল ইস্কান্দর মির্জা আর ডেপুটি চীফ অব স্টাফ পরবর্তীতে ফিল্ড মার্শাল ও পাকিস্তানের প্রেসিডেন্ট জেনারেল আগা মোহাম্মদ আয়ুব খান।

 

উদ্দেশ্য পৃথিমপাশা নবাব বাড়িতে যাবেন। নওয়াব আলী হায়দর খাঁন ও নওয়াব আলী আজগর খাঁন দাওয়াত দিয়েছেন।
লাল গালিচা সম্বর্ধনা দিয়ে তাঁদের শমসের নগর বিমান বন্দর থেকে শমসেরনগর ট্রেন ষ্টেশনে নিয়ে আসা হয়। ট্রেন যোগে তাঁরা লংলা যাবেন।

 

পাকিস্তান সরকার তখন পারস্য সম্রাটের সম্মানে কমলগঞ্জের শমসেরনগর ষ্টেশনে ইট পাথর দিয়ে একটি তোরণ নির্মাণ করে। ঐতিহাসিক এই তোরণটি এখনও শমসেরনগরে বিদ্যমান।

(Syed Masum) সৈয়দ মাছুম এর টাইমলাইন থেকে নেয়া
সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
  • 6
    Shares

সর্বশেষ সংবাদ