আব্দুল মান্নান স্যার এর যাপিত জীবন অনুকরণীয় অনুসরণীয়

প্রকাশিত: ১:২৪ অপরাহ্ণ, জুলাই ১, ২০২১

আব্দুল মান্নান স্যার এর যাপিত জীবন অনুকরণীয় অনুসরণীয়
আব্দুল মান্নান স্যার এর যাপিত জীবন অনুকরণীয় অনুসরণীয়।
আব্দুল মান্নান স্যার ছিলেন একদিকে মানুষ গড়ার কারিগর। অন্যদিকে আদর্শ সমাজ বিনির্মাণের অগ্র সারির অকুতোভয় সৈনিক। শিক্ষাক, সমাজসেবক ও রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব হিসেবে তিনি অনুকরণীয় অনুসরণীয়। নানা প্রতিকূলতায় তিনি বড়লেখায় সাহসী নেতৃত্ব দিয়েছেন। দীর্ঘ প্রায় ৬০ বছর তিনি মানুষের কল্যাণে কাজ করে গেছেন। একটি ইনসাফপূর্ণ সমাজ বিনির্মিাণের স্বপ্ন সংগ্রাম আমৃত্য করে গেছেন মান্নান স্যার। মহান মা’বুদ তাঁর কর্মগুলো আমলে সালেহ হিসেবে কবুল করুন। জান্নাতের মেহমান হিসেবে তাকে বরন করুন। এ কামনা আমাদের।♦প্রভাতাবেলা প্রতিবেদক♦
“মাস্টার আব্দুল মান্নানকে যেমন দেখেছি’ – শীর্ষক ভার্চুয়াল স্মরণ সভায় বক্তারা উপরোক্ত কথা বলেন। বড়লেখার প্রবাসে অবস্থানরত নাগরিকদের উদ্যোগে এ স্মরণ সভা অনুষ্ঠিত হয় ২৯ জুন রাত ৯টায়। স্মরণ সভায় সভাপতিত্ব করেন যুক্তরাজ্যের বাফেলো’তে অবস্থানরত বড়লেখা উপজেলা জামায়াতের প্রাক্তণ আমীর ইন্জিনিয়ার কমর উদ্দিন। ভার্চুয়াল স্মরণসভা কাতার থেকে পরিচালনা বিশিষ্ট ইসলামী ব্যক্তিত্ব মাওলানা নজরুল ইসলাম।
বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে বড়লেখার নাগরিক বিশেষ করে ইসলামী আন্দোলনের প্রাক্তন ও বর্তমান নেতৃবৃন্দ আলোচনায় অংশ গ্রহণ করেন।
উল্লেখযোগ্যদের মধ্যে আমেরিকার মিশিগান থেকে বড়লেখা উপজেলা জামায়াতের প্রাক্তন আমীর ইঞ্জিনিয়ার আব্দুল মালিক, নিউজার্সি থেকে ইসলামী ছাত্রশিবির মৌলভীবাজার জেলার প্রাক্তন সভাপতি মাওলানা আব্দুল মান্নান, নিউইয়র্ক থেকে ইসলামী ছাত্রসংঘের প্রাক্তন নেতা আব্দুল খালিক, বিশিষ্ট ইসলামী ব্যক্তিত্ব মাওলানা মুহাম্মদ আব্দুল্লাহ, মিশিগান থেকে বড়লেখার একসময়ের বলিস্ট ব্যক্তিত্ব ও বিশিষ্ট ব্যবসায়ী গুলজার আহমদ ফকু, সাবেক সরকারী কর্মকর্তা সিরাজ উদ্দিন, ইসলামী ছাত্রশিবির বড়লেখার প্রাক্তন সভাপতি রুহুল আম্বিয়া সুমন।
যুক্তরাজ্য থেকে অংশগ্রহণ করেন সাবেক শিবির নেতা আব্দুস সালাম, বিশিষ্ঠ ইসলামী ব্যক্তিত্ব শায়খ শফিকুর রহমান। কানাডা থেকে সাবেক শিবির নেতা হাফেজ ফারুক আহমদ।সৌদী আরব থেকে সাবেক শিবির নেতা দেলাওয়ার হোসাঈন।
সংযুক্ত আরব আমিরাত মাওলানা আব্দুর রহমান।
বাংলাদেশ থেকে অংশ নেন বড়লেখা উপজেলা জামায়াতের আমীর এমাদুল ইসলাম, জুড়ী উপজেলা জামায়াতের আমীর হাফিজ নজমুল ইসলাম, ছাত্রশিবিরের প্রাক্তন কেন্দ্রিয় বায়তুল মাল সম্পাদক আমীনুল ইসলাম, মৌলভীবাজার শিবিরের সাবেক সভাপতি আহমদ ফারুক, মাওলানা বদরুল হোসাঈন।
ইসলামী ব্যাংক বড়লেখা শাখা প্রতিষ্ঠাকালীন ম্যানেজার আমীরুজ্জামান এবং বিশিষ্ট সাংবাদিক দৈনিক প্রভাতবেলা সম্পাদক কবীর আহমদ সোহেল।
ভার্চুয়ালি ৭৯ জন বিশিষ্ট ব্যক্তি স্মরণ সভায় অংশ নেন। আলোচকরা মরহুম আব্দুল মান্নান স্যার এর বর্ণাঢ্য জীবনের বিভিন্ন দিক স্মৃতিচারণ করেন। একই সাথে বড়লেখার রাজনীতি, সমাজনীতি ও ইসলামী আন্দোলনের নানা উত্থান পতনের ঘটনা স্থান পায় আলোচনায়। প্রায় পৌনে ৩ ঘন্টা ব্যপ্তি ছিল এই স্মরণ সভার।
আলোচনায় বিশিষ্ট সাংবাদিক দৈনিক প্রভাতবেলা সম্পাদক কবীর আহমদ সোহেল কৈশোর ও তারুণ্যকালে আব্দুল মান্নান স্যার সাথে যাপিত দিনগুলির মর্মগাঁথা স্মৃতিচারণ করেন। মরহুম আব্দুল মান্নান স্যার এর জীবন কর্ম ও স্মৃতি স্থায়ীভাবে ধরে রাখবার জন্য কবীর আহমদ সোহেল তিনটি প্রস্তাব রাখেন। প্রথমত আব্দুল মান্নান স্যার এর জীবন ও কর্ম নিয়ে একটি সমৃদ্ধ স্মারক গ্রন্থ প্রকাশ, দ্বিতীয়ত: বইপ্রেমিক আব্দুল মান্নান স্যার মেমোরিয়েল লাইব্রেরী গড়ে তোলা, তৃতীয়ত: আব্দুল মান্নান স্যার এর পরিবারের অর্থনৈতিক উন্নয়নে স্থায়ী পদক্ষেপ গ্রহণ।
প্রস্তাবগুলি সর্বসম্মতভাবে সভায় গ্রহণ করা হয়। বড়লেখার স্থানীয় সংগঠন প্রস্তাবগুলো বাস্তবায়নে উদ্যোগ গ্রহণ করবে মর্মে সভাকে অবহিত করেন বড়লেখা জামায়াতের আমীর এমাদুল ইসলাম।
স্মরণসভায় তাৎক্ষণিকভাবে আব্দুল মান্নান স্যার এর জীবন ও কর্ম নিয়ে স্মারকগ্রন্থ প্রকাশনা কমিটি গঠন করা হয়। সাংবাদিক কবীর আহমদ সোহেলকে কমিটির আহবায়ক করে ৯ সদস্য বিশিষ্ট এ কমিটি গঠিত হয়। কমিটির অন্য সদস্যরা হচ্ছেন: মাওলানা নজরুল ইসলাম(কাতার),ইন্জিনিয়ার কমর উদ্দিন (আমেরিকা), ইন্জিনিয়ার আব্দুল মালিক( আমেরিকা), এমাদুল ইসলাম(বড়লেখা), হাফিজ নজমুল ইসলাম(জুড়ী), আমীনুল ইসলাম(জুড়ী-বড়লেখা), সাইফুল আলম (ফ্রান্স) ও দেলোয়ার হোসেন (সৌদি আরব)।
এছাড়া বড়লেখায় ইসলামী আন্দোলনের বীজ বপনকারী বশির উদ্দিন স্যার, মোস্তফা উদ্দিন মাস্টার, মহিবুল ইসলাম সুনাধনি মিয়া, আলহাজ কুতুব উদ্দিন, মাওলানা মুদাচ্ছির আহমদ সহ যাঁরা দুনিয়ার সফর শেষ করে মাবুদের সান্নিধ্যে চলে গেছেন তাদের জীবন কর্ম নিয়ে গ্রন্থ প্রকাশ ও তাদের সম্পর্কে নতুন প্রজন্মকে অবহিত করার লক্ষে উদ্যোগ গ্রহণের প্রস্তাব রাখা হয়।
হাফিজ মাওলানা নজমুল ইসলামের পরিচালনায় মোনাজাতের মাধ্যমে ভার্চুয়াল স্মরণ সভা সমাপ্ত হয়।
সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সর্বশেষ সংবাদ