কুড়িগ্রামে শীতকালীন শাক-সবজির বাম্পার ফলন

প্রকাশিত: ৩:১৮ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ৮, ২০২০

কুড়িগ্রামে শীতকালীন শাক-সবজির বাম্পার ফলন

তানভীর হোসাইন রাজু, কুড়িগ্রাম:

কুড়িগ্রামে পরপর কয়েক দফা বন্যা আর ভারী বৃষ্টিপাতের কারনে শাক সবজির ব্যাপক ক্ষতি হয়েছিল কৃষকদের।শাক-সবজি রোপনের পরপরেই ব্যাপক বৃষ্টিপাতের ফলে অধিকাংশ ফসল নষ্ট হয়ে যায়। একের পর এক প্রাকৃতিক দুর্যোগে ক্ষতির মুখে পড়েও কুড়িগ্রামের কৃষকরা ঘুরে দাড়ানোর চেষ্টা করছেন ।

নতুন করে জমি তৈরি করে বেগুন,ঢেড়স,মুলা, লাউ,শসা,নাপা শাকসহ বিভিন্ন জাতের শাক সবজির বীজ রোপন করছেন এবং ফলনও ভালো পাচ্ছেন। শাক সবজি উঠানোর পর আলু রোপন করবেন বলে জানান কৃষকরা। শীতের শুরুতেই শাক সবজির দাম ভালো হওয়ায় এ চাষাবাদে বেশ লাভবান হচ্ছেন তারা। কৃষকরা জানান,আমন চাষ এবং সবজি চাষে কয়েকবার ক্ষতির মুখে পড়লেও সবজির দাম ভালো পাওয়ায় এখন খুশি লাগতেছে।

কুড়িগ্রাম কৃষি সম্প্রসারন অফিস জানায়,জেলায় এবার শাক সবজির লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারন করা হয়েছে প্রায় ৫শ হেক্টর জমিতে। এখনো বিভিন্ন শাক সবজির আবাদ চলমান রয়েছে।

নাগেশ্বরী উপজেলার রায়গঞ্জ ইউনিয়নের পীর সাহেবটারীর দেলোয়ার হোসেন জানান, এক বিঘা জমিতে ৬মন ধানে লিজ নিয়েছেন তিনি। এবারের বন্যায় দেড় বিঘা জমির ধান নষ্ট হয়েছে তার। তাই ক্ষতি পুষিয়ে নিতে এবার আড়াই বিঘা জমিতে লাউ, বেগুন, ধনে পাতা, মুলা, লাল শাক, বাধা কপি লাগিয়েছেন তিনি। বাম্পার ফলন হয়েছে। এখন লাউ বিক্রি শুরু করেছেন। প্রতিটি লাউ বিক্রি করছেন ৪০-৫০ টাকা দরে। বেশ লাভের মুখ দেখছেন তিনি।

কুড়িগ্রাম জেলা কৃষি সম্প্রসারন অধিদপ্তরের উপ পরিচালক মোঃ সামছুদ্দিন মিয়া জানান,কুড়িগ্রামে বিভিন্ন শাক সবজির রোপন এখনও চলমান রয়েছে। কৃষকদের ধারনা কিছুদিনের মধ্যে বাজারে প্রচুর পরিমানে শাক সবজি পাওয়া যাবে।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

সর্বশেষ সংবাদ