দখলে খাল, শঙ্কায় চাষাবাদ

প্রকাশিত: ৯:৫৮ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ৩, ২০২১

দখলে খাল, শঙ্কায় চাষাবাদ

এম রাজু আহমেদ, জুড়ী♦ অবৈধ দখলে কৃষিনির্ভর খাল, অনিশ্চয়তায় চাষাবাদ। পুরো হাওয়ারটির চাষাবাদ একমাত্র এ খালটির উপর নির্ভরশীল। বোরো ও আমন ধান উৎপাদনে এ খালের পানি ব্যবহার ছাড়া বিকল্প ব্যবস্থা নেই। বর্ষাকাল শেষে জমিতে থাকা পানি শুকিয়ে গেলেও খালটি পর্যাপ্ত পানি ধারণ করে কৃষিকাজের প্রয়োজনীয় পানির চাহিদা মেটাতো।

মৌলভীবাজারের জুড়ী উপজেলার বিশ্বাল এ ‘কালীনগর হাওরটি’ পানিশূন্যতায় ভুগে হারাতে চলছে ফসল উৎপাদন ক্ষমতা। কৃষিকাজে ঘটছে ব্যাঘাত। কৃষিকাজ থেকে বিমুখ হওয়ার সম্ভাবনা চাষিদের।

সরেজমিন,  স্থানীয় কৃষকেরা জানান, হাওরের এক প্রান্ত থেকে আরেক প্রান্ত পর্যন্ত অবস্থিত কালীনগরের ‘কাড়াখাল’ নামের এ খালটি। এটি সরাসরি পাবিজুড়ী নদীর সাথে যুক্ত হয়ে হাকালুকি হাওরে মিলিতো হয়েছে। যুগ-যুগ ধরে এ খালের পানি ব্যবহার করে যথেষ্ট পরিমাণে আমন ও বোরো ধান উৎপাদন করা সম্ভব হয়েছে।

 

কিন্তু, কয়েকবছর যাবৎ খালটির উভয় পাশের প্রায় ২ কিলোমিটার জুড়ে অবৈধভাবে দখল হয়ে যাওয়ায় পর্যাপ্ত পানি পাওয়া যাচ্ছে না। আর এখনো থামছে না এ অবৈধ দখল, যেভাবে দখল হচ্ছে হয়তো কিছুদিন পর খালের অস্তিত্ব খুঁজে পাওয়া দুঃসাধ্য হবে। এসব অবৈধ দখলের কারণে হাওরের কৃষিকাজ দিনদিন অনিশ্চয়তার দিকে ধাবিত হচ্ছে।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
  • 14
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    14
    Shares

সর্বশেষ সংবাদ