ফাহিমের মৃত্যুতে কাঁদছে নাইজেরিয়াও!

প্রকাশিত: ৫:২৬ অপরাহ্ণ, জুলাই ১৫, ২০২০

ফাহিমের মৃত্যুতে কাঁদছে নাইজেরিয়াও!

 

প্রভাতবেলা ডেস্ক:

 

যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্ক নগরীর ম্যানহাটানে খুন হয়েছেন রাইড শেয়ারিং অ্যাপ পাঠাওয়ের সহপ্রতিষ্ঠাতা ফাহিম সালেহ। স্থানীয় পুলিশ ফাহিমের নিজ অ্যাপার্টমেন্ট থেকে মঙ্গলবার বিকালে ক্ষতবিক্ষত লাশ উদ্ধার করে।

 

ফাহিম সালেহ নাইজেরিয়াভিত্তিক রাইড শেয়ারিং অ্যাপ গোকাডারও মালিক। নাইজেরিয়ার সর্ববৃহৎ শহর লাগোসে এই অ্যাপভিত্তিক রাইড শেয়ারিং সেবাটি চালু আছে। বাংলাদেশি এই তরুণের মৃত্যুতে কাঁদছে নাইজেরিয়াও।

 

ফাহিমের মৃত্যুর খবর জানিয়ে গোকাডা এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, আমাদের প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ফাহিম সালেহের আকস্মিক মৃত্যুতে আমরা গভীরভাবে দুঃখিত। ফাহিম দুর্দান্ত নেতা, অনুপ্রেরণামূলক এবং ইতিবাচক ব্যক্তি ছিলেন। ফাহিম সবসময়ই আমাদের হৃদয়ে থাকবেন।

 

তরুণ এই বাংলাদেশির মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করছেন নাইজেরিয়ার বাসিন্দরাও। অনেকেই এই হত্যাকাণ্ডকে হৃদয়হীন ও ঘৃণ্য বলে আখ্যায়িত করেছেন। অনেক সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ব্যবহারকারীই তার মৃত্যু নিয়ে নিন্দাও জানিয়েছেন।

 

এক টুইটার ব্যবহারকারী লেখেন, তাকে টুকরো টুকরো করে হত্যা করার জন্য বৈদ্যুতিক ‘স’ ব্যবহার করা হয়। এই হত্যাকাণ্ডটি আসলেই ভয়ানক ও বেদনাদায়ক। আরেক জন টুইটারে লেখেন, মানুষ হৃদয়হীন! এই ধরনের ঘটনা সত্যই পৃথিবীতে ঘটছে!

 

এবুকা ওবি-উচেন্দু নামের এক নাইজেরিয়ান টুইটার ব্যবহারকারী লেখেন, আমার টাইমলাইনজুড়ে ভেসে আসছে ফাহিমের মৃত্যুর খবর। এই খুব মর্মান্তিক।

 

আব্রাহাম ওজেস নামের এক ব্যক্তি লেখেন, রেস্ট ইন পিস ফাহিম সালেহ। আমি মর্মাহত হয়ে এই লিখাটি লিখছি। আপনি সবসময় আমার দলের অনুপ্রেরণা ছিলেন।

 

লিও ড্যাসিলভা আরেক নাইজেরিয়ান এক টুইট পোস্টে লেখেন, ফাহিম সালেহকে নির্মমভাবে হত্যা করা হয়েছে। বিষয়টি খুবই বেদনাদায়ক।

 

প্রভাতবেলা/এমএ

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

সর্বশেষ সংবাদ