পারলো না বাংলাদেশ

প্রকাশিত: ৯:৪২ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২৯, ২০২১

পারলো না বাংলাদেশ

পারলো না বাংলাদেশ। একটুর জন্য। তীরে গিয়ে যেন তরী ডুবলো। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে শেষ বলে প্রয়োজন ছিল ৪ রান। কিন্তু মাহমুদুল্লাহ বলে ব্যাট লাগাতে পারলেন না। মাঠে ময়দানে প্রতিবেদক♦

রাসেলের ইয়র্কারে সুবিধা করতে পারেননি তিনি।  ৩ রানে হেরে বিদায় প্রায় নিশ্চিত হয়ে গেল মাহমুদউল্লাহর দলের, অন্যদিকে তৃতীয় ম্যাচে প্রথম জয়ে টিকে থাকল বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ওয়েস্ট ইন্ডিজ।
মাহমুদউল্লাহ আর লিটন দাসের ব্যাটে জয়ের স্বপ্ন দেখছিল বাংলাদেশ। শেষ চার ওভারে তাদের দরকার ছিল ৩৩ রান। ১৭তম ওভারে মাত্র ৩ রান দিয়ে ম্যাচে উত্তেজনা ফেরান ডোয়াইন ব্রাভো। পরের ওভারে রবি রামপল দেন ৮ রান। তাতে শেষ ১২ বলে ২২ রান দরকার তাদের। ১৯তম ওভারে ব্রাভোর প্রথম বলে মাহমুদউল্লাহ ছক্কা মেরে ব্যবধান কমান। হাফ সেঞ্চুরি ও দলকে জিতিয়ে নায়ক হতে পারতেন লিটন। কিন্তু ওই ভারের শেষ বলে জেসন হোল্ডারকে লং অনে ক্যাচ দেন ৪৪ রান করে। ৪৩ বলে সাজানো ছিল তার এই ইনিংস। মাহমুদউল্লাহর সঙ্গে ৪০ রানের জুটি গড়েছিলেন লিটন।
এদিন বাঁচা-মরার ম্যাচে টস জিতে বোলিংয়ে দারুণ শুরু করে বাংলাদেশ। অবশ্য ম্যাচে পাঁচটি সুয়োগ মিস না হলে আরো অল্পতেই ক্যারিবিয়ানদের আটকে রাখা সম্ভব হতো হয়ত।  শারজা ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টসে জিতে প্রতিপক্ষকে ব্যাটিংয়ের আমন্ত্রণ জানান মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ। ব্যাট করতে নেমে নিকোলাস ‍পুরানের ৪০ ও রস্টন চালর্সের ৩৯ রানের ওপর ভর করে ১৪২ রানের পুঁজি পায় বাংলাদেশ। টাইগারদের হয়ে ২টি করে উইকেট নেন মুস্তফিজ, মাহেদী ও শরিফুল।
প্রথম দুই ওভারে মাত্র ৯ রান তুলতে পারেন ক্যারিবীয় দুই ওপেনার ক্রিস গেইল আর এভিন লুইস। ইনিংসের তৃতীয় ওভারেই মোস্তাফিজ ধাক্কা দিয়েছেন ওয়েস্ট ইন্ডিজকে। ওভারের শেষ বলটি তুলে মারতে গিয়ে বাতাসে ভাসিয়ে দেন এভিন লুইস (৯ বলে ৬)। স্কয়ার লেগে দৌড়ে এসে সহজ ক্যাচ নেন মুশফিকুর রহিম। পঞ্চম ওভারে ভয়ংকর গেইলকে বোল্ড করেন শেখ মেহেদি হাসান। টাইগার অফস্পিনারের ঘূর্ণিতে ইনসাইডেজ হয়ে ১০ বলে মাত্র ৫ রান করে ফেরেন ইউনিভার্স বস।
নিজের চতুর্থ ওভারে শরিফুল ইসলাম ভাঙলেন বিপদজনক হয়ে ওঠা নিকোলাস পুরান ও রোস্টন চেজের জুটি। ১৯তম ওভারে প্রথম দুই বলে তাদের ফেরান। ২২ বলে ১ চার ও ৪ ছয়ে ৪০ রান করে মোহাম্মদ নাঈমকে ক্যাচ দেন পুরান। ভাঙে ৫৭ রানের জুটি। পরের বলে চেজকে বোল্ড করেন শরিফুল। ৪৬ বলে ৩৯ রান করেন উইন্ডিজ ব্যাটসম্যান। তৃতীয় উইকেট পেতে পারতেন শরিফুল। কিন্তু জেসন হোল্ডারের সহজ ক্যাচ ডিপ কভারে ছেড়ে দেন আফিফ হোসেন।
মোস্তাফিজুর রহমান ইনিংসের শেষ ওভার করতে আসেন। প্রথম বলেই ডোয়াইন ব্রাভোকে (১) ডিপ কভারে সৌম্য সরকারের ক্যাচ বানান। তারপর জেসন হোল্ডার টানা দুটি ছয় মারেন। শেষ বলে একটি ছয় পেটান কিয়েরন পোলার্ড। ওই ওভারে ১৯ রান দেন মোস্তাফিজ।
সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
  • 1
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    1
    Share

সর্বশেষ সংবাদ