বিকাশ প্রতারকচক্র হাতিয়ে নিয়েছে নারী উদ্যোক্তার ৬০ হাজার টাকা

প্রকাশিত: ৯:০৭ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২৩, ২০২০

বিকাশ প্রতারকচক্র হাতিয়ে নিয়েছে নারী উদ্যোক্তার ৬০ হাজার টাকা

প্রভাতবেলা প্রতিবেদক♦ চার বার জাতীয় নারী উদ্যোক্তা পুরুস্কার প্রাপ্ত রোকসানা আক্তার দীপুর ৬০ হাজার টাকা হাতিয়ে নিয়েছে বিকাশের নামে একটি প্রতারকচক্র। এ ঘটনায় দীপু মীরপুর রুপনগর থানায় সাধারণ ডায়েরী (নং-৭৪৭) এবং বিকাশ কর্তৃপক্ষের কাছে লিখিত অভিযোগ করেছেন। বিকাশ একাউন্ট থেকে হাতিয়ে নেয়া টাকা উদ্ধারের আবেদন জানিয়েছেন এই নারী উদ্যোক্তা।

রোকসানা আক্তার দীপুর (৩২) রাজধানীর নাগরিক। তিনি সেকশন-৬, ব্লক-ট, রোড-৩৮, বাসা- ০২, মীরপুর-৬, ঢাকা-১২১৬ এর বাসিন্দা। তার পিতার নাম হামেত মিয়া। জাতীয় পরিচয়পত্র নং-৭৩৪১৫২৩৫২৫। তার মোবাইল নং-০১৯৩৫-৩০০৯৫০।

রোকসানা তার অভিযোগে বলেন, গত ১৮ অক্টোবর সকাল ১০টা ৩০ মিনিটের সময় অজ্ঞাতনামা এক ব্যক্তি ০১৮৪৯৪৪৭১৪৪ নাস্বার থেকে কল দেন। তিনি নিজেকে বিকাশ এজেন্ট পরিচয় দিয়ে বলেন, আমাদের সার্ভারে কিছু সমস্যা দেখা দিয়েছে। আপনাদের কিছু তথ্যের প্রয়োজন। আমি আবারো তার পরিচয় জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি মহাখালি এসকে টাওয়ার ৭নং কাউন্টার থেকে বলছি। প্রত্যুত্তরে আমি বলি, অফিসে এসে তথ্য দেব। কিছুক্ষণ পর আবার ঐ নাম্বার থেকে কল করে বলা হয়, সার্ভারের জরুরী কাজ চলছে, তাই আপনার তথ্যটা দিন এবং অফিসে চলে আসেন। তখন তারা কিছু তথ্য চাইলে আমি বলে দেই। কিছুক্ষণের মধ্যেই এসকে টাওয়ারে চলে যাই। সেখানে পৌছে দেখি আমার বিকাশ একাউন্ট হ্যাকড্। চারটি নাম্বারে ৬০ হাজার টাকা চলে গেছে।

রোকসানা দীপু জানান, বিকাশ প্রতারক মাধ্যমে হ্যাক হওয়ার কারনে আমি  আইনি ব্যবস্থা নিয়েছি। বিকাশের কোম্পানির কাছে আবেদনপত্র স্টেটমেন্ট ও জিডির কপি জমা দিয়েছি।

তিনি বিকাশ কর্তৃপক্ষকে বলেন, যে চারটা নাম্বারে মাত্র ১০ মিনিটের মধ্যে ৬০ হাজার টাকার ভাগ হয়ে ঢুকেছে সেই গ্রাহকদের ডেকে এটার কারণ জানতে চান কিভাবে তাদের একাউন্টে টাকা ঢুকলো আমার বিকাশ একাউন্ট থেকে। তাহলেই তো সমস্যার সমাধান হয়ে যায়।

বিকাশ একাউন্ট থেকে টাকা হাতিয়ে নেবার ঘটনা এটাই প্রথম নয়। বিকাশ কর্তৃপক্ষ মাঝে মধ্যে সতর্কবার্তা আর বিজ্ঞাপন প্রচার করেই নিজেদের দায়িত্বপালন করে। গ্রাহকদের একাউন্টের নিরাপত্তা দিতে পারেনা বা চায়না। ভূক্তভোগীরা বলছেন এসব হাতিয়ে নেয়ার ঘটনায় বিকাশের সংশ্লিষ্টতা রয়েছে। সরকারের গোয়েন্দা বিভাগ তা অনুসন্ধান করলেই বেরিয়ে আসবে সব রহস্য।

মীরপুরের রুপনগর থানায় নারী সমাজকর্মী দীপুর করা জিডি নং-৭৪৭ তাং ১৮/১০/২০। জিডি ও বিকাশ কর্তৃপক্ষকে করা আবেদনে দীপু উল্লেখ করেছেন যে ৪টি নাম্বার থেকে তার ৬০ হাজার টাকা হাতিয়ে নেয়া হয়েছে। নাম্বাগুলো হচ্ছে, ০১৮৮২৯৯৯৪৪২ নাম্বারে ১০ হাজার টাকা, ০১৭৮৪৮৩৯০৫৬ নাম্বারে ৪৯৯৯ ও ৫হাজার টাকা, ০১৭৭১১৬৩৪৮৮ নাম্বারে  ১৫ হাজার টাকা এবং ০১৮২০৫২০৯৫৭ নাম্বারে ২০হাজার টাকা হাতিয়ে নেয়া হয়েছে। তা বিকাশ কর্তৃপক্ষের আয়ত্বে বাইরে নয়।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
  • 184
    Shares

সর্বশেষ সংবাদ