সমন্বিত প্রচেষ্টার মাধ্যমে পরিবেশ সুরক্ষা করতে হবে – বেলা’র সভায় মেয়র

প্রকাশিত: ৪:১৭ পূর্বাহ্ণ, ডিসেম্বর ৩১, ২০২০

সমন্বিত প্রচেষ্টার মাধ্যমে পরিবেশ সুরক্ষা করতে হবে – বেলা’র সভায় মেয়র

প্রভাতবেলা প্রতিবেদক♦ সকলের সমন্বিত প্রচেষ্টার মাধ্যমে পরিবেশ সুরক্ষা করতে হবে। সিটি করপোরেশনের অভ্যন্তরে দখল হয়ে যাওয়া সব পুকুর-দীঘি উদ্ধারে নাগরিক আন্দোলনের বিকল্প নেই। দাবী আদায়ে লেগে থাকতে হয়। হারিয়ে যাওয়া পুকুর-দীঘি উদ্ধার অনেক কঠিন কাজ। সিটি করপোরেশন এব্যাপারে সজাগ,সচেতন ও জোরালো ভূমিকা অব্যাহত রাখছে।মনে রাখতে হবে কেবল নাগরিকরা পুকুর দীঘি দখল বা পরিবেশ ধ্বংস করেনা। সরকার এবং অনেক বড় প্রতিষ্ঠানও এমন কাজ করে। যাদের মোকাবেলা করা অনেক সময় কঠিন হয়ে দাঁড়ায়।

 

সিলেট সিটি করপোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী বুধবার (৩০ ডিসেম্বর) বেলা’র উদ্যোগে জলাশয় সংরক্ষণে করণীয় শীর্ষক সভায় তিনি প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত কথা বলেন।

 

সুজন সিলেটের সভাপতি ফারুক মাহমুদ চেীধুরীর সভাপতিত্ব   প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বেলা’র বিভাগীয় সমন্বয়ক এডভোকেট শাহ সাহেদা আখতার। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন  পরিবেশ অধিদপ্তরের পরিচালক মোহাম্মদ এমরান হোসেন ,ফায়ার সার্ভিসের উপ-পরিচালক  মো. কোবাদ আলী সরকার, সিনিয়র সহকারী পুলিশ কমিশনার মো. মতিয়ার রহমান,ও  মহানগরীর সহকারী কমিশনার (ভূমি) শবনম শারমিন।

 

বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন সিলেটের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল করিম কিম এর স্বাগত বক্তব্যের মাধ্যমে সূচিত সভায়  বক্তব্য রাখেন সিলেট প্রেসক্লাবের সভাপতি ইকবাল সিদ্দিকী, নগর উন্নয়ন অধিদপ্তরের সিনিয়র প্ল্যানার শাহীন আহমদ, দৈনিক প্রভাতবেলার সম্পাদক কবীর আহমদ সোহেল ,সনাক সভাপতি সমিক সহিদ জাহান, পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপ বিভাগীয় প্রকৌশলী এ.কে.এম নিলয় পাশা, আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি এমাদ উল্লাহ শহিদুল ইসলাম, আইনজীবী অরূপ শ্যাম বাপপী, , কাশমির রেজা, টিআইবির মৃদুল দেবনাথ প্রমূখ।

 

প্রধান অতিথির বক্তব্যে মেয়র আরিফ বলেন, সিলেটের বাংলাদেশ ব্যাংক ভবন দিঘি ভরাট করে নির্মাণ করা হয়েছে, বিভাগীয় স্টেডিয়াম টিলা কেটে করা হয়েছে, ধুবড়ির হাওর ভরাট করে শাহজালাল উপশহর গড়ে উঠেছে। এগুলো সরকার করেছে। সবকিছু চাইলেই উদ্ধার করা যায়না।

 

মেয়র বলেন, সোনারপাড়ায় পুকুর ভরাট করা হয়েছে মানুষের জীবন,সম্পদ ও মসজিদ রক্ষার স্বার্থে। এটা ভরাট না করলে বড় ধরণের দুর্ঘটনা ঘটতো। প্রাণহাণিরও আশ্কা ছিল।

 

তিনি বলেন, মজুমদারদিঘি উদ্ধারে সিটি করপোরেশন সক্রিয় ভূমিকা রাখে। উচ্চ আদালতের নিষেধাজ্ঞায় তা আটকে আছে। মাদানী কমপ্লেক্সের সবার দলিল তলব করা হয়েছে। সবার কাগজ খতিয়ে দেখা হচ্ছে। প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

বক্তব্য রাখছেন মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী

বক্তব্য রাখছেন মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী

বিশুদ্ধ পানির নিশ্চয়তা বিধানে ওয়াটার ট্রিটমেন্ট প্লান্টের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে উল্লেখ করে মেয়র আরিফ নগরীর ছড়া খাল উদ্ধার, সুরমা নদীর তীর উদ্ধার সংরক্ষণ, ফুটপাতকে হকারমুক্ত করণসহ নানা উন্নয়ন কাজের ফিরিস্তি দেন।

 

মুক্ত আলোচনায় বক্তারা,সিলেট নগরীর দখলকৃত পুকুর, জলাশয় ও দীঘি পুনরুদ্ধারের দাবি জানান। পাশাপাশি সিলেট নগরীর সকল ছড়া ও খাল সংরক্ষণ এবংসঠিক তথ্য সম্বলিত পূর্নাঙ্গ তালিকা সংগ্রহের গুরুত্বারোপ করেন। অবৈধভাবে সরকারী ও ব্যাক্তিগত স্থাপনা নির্মাণ ও ময়লা আবর্জনা ফেলে জলাধার দূষণ ও ভরাট রোধকল্পে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের আহবান জানান।

 

 

 

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

সর্বশেষ সংবাদ